ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১

ক্রিকেটার তানজিম সাকিবকে বহিষ্কারের দাবি অভিনেত্রী জ্যোতির

প্রকাশিত: ১৬:৪৯, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩; আপডেট: ১৮:১৭, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

ক্রিকেটার তানজিম সাকিবকে বহিষ্কারের দাবি অভিনেত্রী জ্যোতির

অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ কিছু স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে বিতর্কের সৃষ্টি করা সাকিবের কড়া সমালোচনা করেছেন অভিনেত্রী জ্যোতিকা  অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি জাতীয় দলের ক্রিকেটার তানজিম সাকিবকে বহিষ্কারের দাবি করেছেন। 

সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে তানজিম সাকিবকে নিয়ে একটি দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়েছেন জ্যোতি। যেখানে তিনি লিখেছেন, তানজিম হাসান সাকিব বাংলাদেশের জাতীয় ক্রিকেট দলের একজন খেলোয়ার। কিন্তু সে এ দেশের জাতীয় সংগীত গাওয়া এবং বিজয় দিবস পালন করাকে ঘৃণা করে। তাহলে সে এ দেশের জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে খেলার অধিকার রাখে কি?

আরও পড়ুন >> তানজিম সাকিবের ভুল স্বীকার

এরপর জ্যোতি লিখেছেন, এ রকম রাষ্ট্রদ্রোহী খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে বিসিবি দ্রুত সিদ্ধান্ত নেবে আশা রাখি। এই ক্রিকেটার পেশাজীবী নারীদের নিয়ে যে নোংরা মন্তব্য করেছে, একজন কর্মজীবী নারী হিসেবে আমার সক্ষমতা-যোগ্যতা ও স্বাধীনতাকে তা চরমভাবে অপমান করে। 
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এমন হীন মন্তব্যকারী ক্রিকেটারের আইনগত শাস্তি দাবি করছি আমি। পাশাপাশি দেশের কর্মজীবী নারীদের নিয়ে এমন বিদ্বেষ ছড়ানো খেলোয়াড়কে বাংলাদেশের জাতীয় দল থেকে বহিষ্কার করার দাবি জানাই।

এই অভিনেত্রী আরও লেখেন. আমি জানি এ প্রসঙ্গে চুপ থাকাই নিরাপদ ভেবে অনেকেই চুপ থাকবে, আবার নিজেকে স্মার্ট প্রমাণ করতে গিয়ে কিছু লোক ইনিয়ে-বিনিয়ে ব্যক্তি ও বাকস্বাধীনতার কথা বলবে। কিন্তু এই দুটোই ভয়ংকর। অন্যায় করা আর অন্যায় মেনে নেওয়া সমান অপরাধ বলে আমি মনে করি। আর বাকস্বাধীনতা যদি হয় অন্যকে অপমান, কুসংস্কার ছড়ানো তাহলে সেটা নিশ্চই বাকস্বাধীনতার মধ্যে পড়ে না। আমি স্পস্টভাবে তাই আমার অবস্থান পরিষ্কার করছি।

জ্যোতির ভাষায়, মগজ ভর্তি নারীবিদ্বেষ ও ধর্মান্ধতা নিয়ে যেকোনো মানুষ বাঁচতেই পারে, সেটা তার মতাদর্শ। কিন্তু যখন একজন প্রকাশ্যে সেসব পিছিয়ে থাকা মতাদর্শ নিয়ে বর্বর সময়কে ইঙ্গিত করে তখন সেই মতাদর্শকে আর বাড়তে দেওয়া ঠিক না। সাধারণ মানুষ হলেও এড়িয়ে যাওয়া যায়, কিন্তু একজন জাতীয় দলের ক্রিকেটার যার লাখ লাখ ফলোয়ার তাকে কোনোভাবেই ছাড় দেওয়া যায় না। তাহলে ঘৃণার চাষাবাদ বাড়তে বাড়তে দেশ আইয়ামে জাহেলিয়ার দিকে আগাবে।

 

এস

×