ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীরা বিনা খরচে সোনালী এক্সচেঞ্জ মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে রেমিটেন্স পাঠাতে পারবেন

পেপারলেস ব্যাংকিংয়ের পথে আরও এগিয়ে সোনালী ব্যাংক

অর্থনৈতিক রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২২:২২, ২০ নভেম্বর ২০২৩

পেপারলেস ব্যাংকিংয়ের পথে আরও এগিয়ে সোনালী ব্যাংক

পেপারলেস ব্যাংকিংয়ের পথে আরও একধাপ এগিয়ে গেল সোনালী ব্যাংক

অ্যাপসভিত্তিক সেবার মাধ্যমে পেপারলেস ব্যাংকিংয়ের পথে আরও একধাপ এগিয়ে গেল রাষ্ট্রমালিকানাধীন সোনালী ব্যাংক। সোনালী ই-সেবা ও ই-ওয়ালেট অ্যাপের মাধ্যমে সর্বাধুনিক নিরবচ্ছিন্ন সেবা দিয়ে অল্প সময়ে গ্রাহক সন্তুষ্টি ও জনপ্রিয়তা লাভ করা সোনালী ব্যাংক এবার নিয়ে এলো নতুন অ্যাপ সোনালী এক্সচেঞ্জ মোবাইল অ্যাপ। যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীদের সোনালী ব্যাংকের সেবায় যুক্ত করতে চালু হতে যাচ্ছে অ্যাপটি। এই অ্যাপ ব্যবহারের মাধ্যমে ২৪ ঘণ্টা যুক্তরাষ্ট্র হতে বিনা খরচে দ্রুততম ও নিরাপদভাবে রেমিটেন্স পাঠানো, যে কোনো ব্যাংক হিসাব ও মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসে তাৎক্ষণিকভাবে রেমিটেন্স পাঠানো যাবে।

যুক্তরাষ্ট্র হতে অ্যাপটি ব্যবহার করে রেমিটেন্স পাঠালে সরকার ঘোষিত ২.৫% প্রণোদনার পাশাপাশি সোনালী ব্যাংক দেবে অতিরিক্ত ২.৫% প্রণোদনা। আজ রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর মো. আব্দুর রউফ তালুকদারের সোনালী এক্সচেঞ্জ মোবাইল অ্যাপটি উদ্বোধনের কথা রয়েছে। 
স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরকারের সক্রিয় অংশীদার হিসেবে এবং দেশের সর্ববৃহৎ রাষ্ট্রমালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংক হিসেবে প্রযুক্তিবান্ধব সেবায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলছে সোনালী ব্যাংক। সোনালী এক্সচেঞ্জ মোবাইল অ্যাপ চালুর মাধ্যমে সোনালী ব্যাংকের অ্যাপভিত্তিক সেবা আরও একধাপ এগিয়ে যাবে বলে আশাবাদী সংশ্লিষ্টরা। এ বিষয়ে সোনালী ব্যাংক পিএলসির সিইও অ্যান্ড ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. আফজাল করিম বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশি বসবাস করেন।

যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী প্রবাসীদের এই অ্যাপ ব্যবহার করে তাদের কষ্টার্জিত উর্পাজন দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা বিনা খরচে যে কোনো সময়ে এবং দ্রুততম ও নিরাপদভাবে দেশে পাঠাতে আমরা এ অ্যাপ চালু করছি। সোনালী ব্যাংকের রয়েছে দেশব্যাপী বিস্তৃত নেটওয়ার্ক ও প্রান্তিক পর্যায় পর্যন্ত বিপুলসংখ্যক গ্রাহক। এই অ্যাপ ব্যবহারের ফলে দেশের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ উপকৃত হবে বলে আমরা মনে করি। এর মাধ্যমে পেপারলেস ব্যাংকিংয়ে সোনালী ব্যাংক আরও অগগ্রতি লাভ করবে বলেও তিনি আশা ব্যক্ত করেন। 
মো. আফজাল করিম বলেন, সোনালী ব্যাংক সবসময় সর্বাধুনিক ও প্রযুক্তিবান্ধব সেবায় বিশ্বাসী। ইতোমধ্যে আমাদের চালুকৃত সোনালী ই-সেবা ও ই-ওয়ালেট অ্যাপ গ্রাহকদের কাছে দারুণ সমাদৃত হয়েছে। এসব অ্যাপ ব্যবহার করে বিশে^র যে কোনো প্রান্ত হতে মানুষ ঘরে বসেই মাত্র দুই মিনিটে হিসাব খোলা, বিভিন্ন ফি ও চার্জ পরিশোধসহ ২৪ ঘণ্টা বিভিন্ন ধরনের লেনদেন করছেন। এছাড়া চেকবই ও স্বাক্ষর যাচাই ছাড়াই কিউ-আর কোড স্ক্যান করে যে কোনো শাখা হতে অর্থ উত্তোলন করা যাচ্ছে।

তিনি আরও জানান, সর্বোত্তম গ্রাহকসেবা নিশ্চিতে রাষ্ট্রমালিকানাধীন ব্যাংকগুলোর মধ্যে সোনালী ব্যাংকই প্রথম দেশ ও বিদেশ হতে ২৪ ঘণ্টা কল সেন্টার এবং কিউ-আর কোড ভিত্তিক অর্থ উত্তোলন সেবা চালু করেছে। দেশের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে ব্যাংকিংসেবা আরও সহজ করতে দেশে ১৮টি মডেল শাখা চালু করেছে। এসব শাখায় বীর মুক্তিযোদ্ধা, সিনিয়র সিটেজেনদের জন্য পৃথক সেবা কাউন্টারসহ ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু রয়েছে।

এছাড়াও গ্রাহকদের সব ধরনের আর্থিক লেনদেন সুবিধা, ক্যাশলেস ব্যাংকিং ও নগদ টাকার ব্যবহার কমাতে সোনালী ব্যাংক বাংলা কিউআর কোড সেবায় যুক্ত হয়েছে। ক্যাশলেস ও পেপারলেস ব্যাংকিংসহ সোনালী ব্যাংকের বিদ্যমান অন্যান্য সেবা সম্পর্কে তিনি আরও বলেন, বর্তমানে সোনালী ই-ওয়ালেটের হিসাব সংখ্যা বর্তমানে ৫,৬৩,৯৭৩টি। ই-ওয়ালেটের মাধ্যমে অক্টোবরে গড়ে দৈনিক ২৭ কোটি টাকার বেশি লেনদেন হয়েছে। সোনালী ই-সেবা অ্যাপ ব্যবহার করে এ পর্যন্ত ১ লাখ ৬১ হাজার হিসাব খোলা হয়েছে।

×