ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

জাতীয়

কালবৈশাখীর তান্ডব

কৃষক ও যুবকসহ বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু

প্রকাশিত: ২২:৪১, ২১ মে ২০২২

কৃষক ও যুবকসহ বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ দেশের বিভিন স্থানে বজ্রপাতে গত ২৪ ঘণ্টায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ভোলার চরফ্যাশনে কৃষক, জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায় যুবক এবং ঠাকুরগাঁয়ে কৃষি মজুুুরির মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বগুড়ার গাবতলীতে কালবৈশাখীর ঝড়ে গাছপালা ও বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙ্গে পড়াসহ বজ্রপাতের বিকট শব্দে হার্টএ্যাটাকে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। অন্য দিকে কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে কাল বৈশাখীর তান্ডবে ৩৫ জন আহতসহ শতাধিক ঘরবাড়ির ক্ষতি হয়েছে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের। ভোলার চর ফ্যাশনে মাঠে গরু চরাতে গিয়ে বজ্রপাতে আবদুল বারেক (৭০) নামের এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকালে জাহানপুর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। নিহত বারেক ওই গ্রামের মৃত আসলামের ছেলে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বারেক সকালে তার বাড়ি সংলগ্ন মাঠে গরু চরাতে যায়। এসময় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি ও বজ্রপাত শুরু হলে বাড়ি ফেরার পথে বজ্রপাতে তিনি নিহত হন। জামালপুর ॥ সরিষাবাড়ী উপজেলায় বজ্রপাতে ওসমান গণি (৩০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে ঝড়-বৃষ্টির সময় উপজেলার চুনিয়াপটল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ওসমান গণি উপজেলার চুনিয়াপটল গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে। ঠাকুরগাঁও ॥ সদর উপজেলার ঝাড়গাঁ গ্রামে শুক্রবার বজ্রপাতে রিয়াজুল ইসলাম (৪৫) নামে এক কৃষি মজুরের মৃত্যূ হয়েছে। মারা যাওয়া রিয়াজুল ঝাড়গাঁ গ্রামের রহিমউদ্দিনের ছেলে। বগুড়া ॥ বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৯টার দিকে প্রবল কালবৈশাখী ঝড়ে গাছপালা ও বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙ্গে পড়াসহ ফসলের ক্ষতি হয়েছে। এ সময় বজ্রপাতের বিকট শব্দে হার্টএ্যাটাকে গাবতলী উপজেলার নাড়ুয়ামালায় গোলাম (৫৫) নামে এক ব্যক্তি মারা যান। মারা যাওয়া ব্যক্তির বাড়ি নাড়ুয়ামালা ইউনিয়নের জয়ভোগা গ্রামে। হোসেনপুর, কিশোরগঞ্জ ॥ বৃহস্পতিবার রাতে কালবৈশাখী ঝড়ের তা-বে উপজেলার বিভিনস্থানে কমপক্ষে ৩৫ জন আহতসহ শতাধিক ঘরবাড়ির ক্ষতি হয়েছে। সরজমিনে বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা গেছে, উপজেলার সিঁদলা ইউনিয়নের গড়মাছুয়া, সাহেবেরচর, গড়বিশুদিয়া, পুরাবাড়ীয়া, চরপিতলগঞ্জ, চৌদার এলাকায় ঘর বাড়ি গাছপালা ফসলের ক্ষেত, মসজিদ, মাদ্রাসা, বৈদ্যুতিক লাইন ও খুঁটি ঝড়ে লন্ড ভন্ড হয়ে গেছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাবেয়া পারভেজ জানান, ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণে উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।