সোমবার ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

রাজশাহীতে এবার ৯০০ কোটি টাকার আম বাণিজ্যের আশা

রাজশাহীতে এবার ৯০০ কোটি টাকার আম বাণিজ্যের আশা

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ চলতি মৌসুমে রাজশাহী অঞ্চলে পাকা আম পাড়া শুরু হয়েছে। প্রশাসনের ঘোষণা অনুযায়ী আজ শুক্রবার থেকে এ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তবে শুরুর দিন গুটি জাতের কিচু আম পেড়েছেন চাষিরা। এর মধ্যে দিয়েই আম আম পাড়ার (ক্রয়-বিক্রয়) মহৌৎসব শুরু হয়েছে।

করোনা মহামারীর ভয় কাটিয়ে এবার ব্যবসায়ীরাও আটঘাট বেধেই প্রস্তুতি নিয়েছেন আম ক্রয়-বিক্রয়ের। সেই সঙ্গে রাজশাহী জেলা প্রশাসনও ইতিমধ্যে আম নামানোর সম্ভাব্য তারিখ ও সময় নির্ধারণ করে দিয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রাজশাহীতে এবার ২ লাখ ১৪ হাজার ৬৭৬ মেট্রিকটন (হেক্টরপ্রতি গড় ফলন ১১.৬০ মেট্রিকটন) আম উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। সেই হিসাবে চলতি মৌসুমে রাজশাহীতে ৯০১ কোটি ৬৪ লাখ ২ হাজার ৮০ টাকার আমের বিকিকিনি হওয়ার আশা করছেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। চলতি মৌসুমে রাজশাহীতে ১৮ হাজার ৫১৫ হেক্টর জমির আমবাগানে গাছে গাছে ঝুলছে আম। এরই মধ্যে পাক ধরেছে গুটি জাতের আমে। শুক্রবার থেকে বাজারেও উঠেছে এসব আম।

রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে- গত বছরের তুলনায় রাজশাহীতে এবার আমের উৎপাদন কম। প্রকৃতিগতভাবেই চলতি মৌসুম আমের জন্য অফ সিজিন হওয়ায় রাজশাহীর আমবাগানগুলোর গাছে মুকুল কম আসায় আমের উৎপাদন কিছুটা কম হয়েছে। তবে গত বছর আমের উৎপাদন বেশি হলেও করোনা মহামারী ও আমের ভরা মৌসুমে রমজান মাসের কারণে আমচাষিরা ন্যায্য মূল্য পায়নি।

সূত্র জানায়, চলতি বছরের তুলনায় গত বছর কম জমিতে (১৭ হাজার ৯ শত ৪৩ হেক্টর) আমের চাষ হয়েছিল। আর গেল মৌসুমে উৎপাদন হয়েছিল ২ লাখ ১৭ হাজার ১২৮.২৪ মেট্রিকটন আম। গড়ে ৪০ টাকা কেজি দরে আম কেনা-বেচা নির্ধারণ করেছিল কৃষি অধিদফতর। সেই হিসাব অনুযায়ী, গত মৌসুমে ৮০৬ কোটি ৯ লাখ ৯৩ হাজার টাকার আমের ব্যবসা হয়েছে। আর চলতি মৌসুমে তুলনামূলক বেশি জমিতে আমের চাষ হলেও আমের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ২ লাখ ১৪ হাজার ৬৭৬.২৪ মেট্রিকটন।

কৃষি অধিদফতরের তথ্যমতে, এবার প্রতিকেজি আমের গড় মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৪২ টাকা। সেই অনুযায়ী, চলতি মৌসুমে ৯০১ কোটি ৬৪ লাখ ২ হাজার ৮০ টাকার আমের ব্যবসা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

শীর্ষ সংবাদ: