সোমবার ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

শাবির জটিলতা নিরসনের কোন লক্ষণ নেই

শাবির জটিলতা নিরসনের কোন লক্ষণ নেই
  • অর্থ জোগান দেয়ার অভিযোগে সাবেক ৫ শিক্ষার্থী আটক

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট অফিস ॥ জটিলতা নিরসনের কোন সুস্পষ্ট লক্ষণ পরিলক্ষিত হচ্ছে না। শাবির উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে শিক্ষার্থীদের অনশন চলছে। অসুস্থতা নিয়ে শিক্ষার্থীদের অনশন ক্রমশ ঝুঁকির দিকে যাচ্ছে। চিকিৎসকরা করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় মেডিক্যাল সাপোর্ট বন্ধ রয়েছে। উপাচার্য নিজ বাস ভবনে অবরুদ্ধ রয়েছেন। মঙ্গলবারও শিক্ষার্থীদের বাধার কারণে ভিসিকে খাবার দিতে পারেননি শিক্ষকরা। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ফরিদউদ্দিন আহমেদের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তার বাসভবন অবরুদ্ধ করে রেখেছেন। সাংবাদিক ও পুলিশ ছাড়া আর কাউকেই তার বাসভবনে ঢুকতে দিচ্ছেন না তারা। ভিসির জন্য খাবার নিয়ে তার বাসভবনে প্রবেশ করতে আজও শিক্ষার্থীদের বাধার মুখে পড়েছেন শিক্ষকরা। মঙ্গলবার বেলা সোয়া ১টার দিকে শাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. তুলসি কুমার দাশ, সাধারণ সম্পাদক মহিবুল আলম, সহসভাপতি ড. আশরাফুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষক বিভিন্ন ধরনের খাদ্যপণ্য নিয়ে ভিসির বাসভবনে প্রবেশ করতে যান। তখন বাসভবনের সামনে অবস্থানকারী শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের বাধা দেন। তখন নিজেদের দাবি-দাওয়া আলোচনার টেবিলে বসে জানাতে শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানান শিক্ষকবৃন্দ। তবে শিক্ষকদের কোন কথাই শুনতে রাজি হননি শিক্ষার্থীরা। এর আগে, গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় শাবির বেশ কয়েকজন শিক্ষক খাবার নিয়ে ভিসির বাসভবনে যেতে চাইলে শিক্ষার্থীদের বাধার মুখে পড়েন। তখন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে কিছুটা উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। গত রবিবার রাতে শিক্ষার্থীরা ভিসির বাসভবনের বিদ্যুত সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। এ নিয়ে সর্বত্র তীব্র সমালোচনার ঝড় ওঠে। এর প্রেক্ষিতে গতকাল রাতে পুনরায় বিদ্যুত সংযোগ প্রদান করা হয়। গণফোরামের সাংসদের সংহতি প্রকাশ ॥ সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সংহতি প্রকাশ করেছেন সিলেট-২ আসনের (ওসমানীনগর-বিশ্বনাথ) সংসদ সদস্য ও গণফোরামের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য মোকাব্বির খান। মঙ্গলবার দুপুরে তিনি শাবি ক্যাম্পাসে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দেখতে যান। এ সময় তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের বক্তব্য অনুযায়ী তাদের দাবি অত্যন্ত যৌক্তিক। এখানে কোন ধরনের রাজনীতি নেই। প্রধানমন্ত্রী যেভাবে এগিয়ে আসেন সব সমস্যা সমাধানে। তিনি চাইলেই এই সমস্যা সমাধান করতে পারেন। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্যা সমাধানে এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রীকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তিনি শাবিপ্রবিতে আসেন। সেখানে তিনি আধাঘণ্টা অবস্থান করেন। এ সময় এমপি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করেন এবং গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে মোবাইল ফোনে শিক্ষার্থীদের কথা বলিয়ে দেন।

ফেনসিডিলের ঘটনায় তোলপাড় ॥ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ফেনসিডিলসহ এক সিকিউরিটি গার্ডকে আটক করেছে শিক্ষার্থীরা। সোমবার রাত ১১টার দিকে ওই সিকিউরিটি গার্ডকে আটক করে শিক্ষার্থীরা। এরপর তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়। জাহিদুর রহমান নামের যুবক বিশ্ববিদ্যালয়ের গেস্ট হাউসের সিকিউরিটি গার্ড হিসেবে কর্মরত। শিক্ষার্থীদের হাতে ধৃত জাহিদুর রহমান জানায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক তাকে ওই পার্সেল আনতে গেটে পাঠিয়েছিলেন। ওই প্যাকেটের ভেতর কী ছিল সেটা আগে থেকে সে জানত না। ওই শিক্ষকের নাম কী- এমন প্রশ্নের জবাবে জাহিদুর কারও নাম জানাতে পারেনি। পরে গণমাধ্যমকর্মী, পুলিশ ও তিন শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে জাহিদুরকে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডরমেটরিতে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি। পরে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন শিক্ষকের ছবি দেখালে ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মাজহারুল ইসলাম মজুমদারকে শনাক্ত করে জাহিদ। সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার আজবাহার আলী শেখ বলেছেন, এক যুবক উপাচার্যের বাসভবনের দিকে ঢুকছিল। সে এখানকার আউট সোর্সিংয়ের সিকিউরিটি গার্ড। জাহিদুর রহমান নামে ওই সিকিউরিটি গার্ডকে ফেনসিডিলসহ শিক্ষার্থীরা আটক করে পুলিশের হাতে দিয়েছে। ওই গার্ড জানিয়েছে, সে বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষকের জন্য ফেনসিডিল আনতে গিয়েছিল। এই ঘটনায় নিরাপত্তাকর্মী জাহিদুর রহমান ও জুমান আহমদকে মাদক মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ। জালালাবাদ থানার ওসি নাজমুল হুদা জানান মামলায় আপাতত দুজনকে আসামি করা হয়েছে। সেই সঙ্গে পুরো বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্তে যার সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যাবে তাকেই মামলার আসামি করা হবে। এদিকে আটকের পর জাহিদ বলেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ বিভাগের অধ্যাপক মাজহারুল ইসলাম মজুমদারের জন্য সে ফেনসিডিল নিয়ে গিয়েছিল। ওই শিক্ষক উপাচার্য ভবনের পাশের গেস্ট হাউসেই অবস্থান করছেন। আমাকে ওই স্যার বলেছেন, তিনি অসুস্থ। তার ওষুধ প্রয়োজন। এরপর একজনের নাম আর মোবাইল নম্বর দিয়ে বলেছেন, তার কাছ থেকে এটি নিয়ে আসতে। তার কাছ থেকে একটি বক্স পান জাহিদ। তবে ভেতরে যে ফেনসিডিল ছিল সেটি তিনি জানতে না।

জানা যায়, গত বছরের এপ্রিলে অনলাইন ক্লাস চলাকালে শাবির এই শিক্ষকের ধূমপানের ছবি অনলাইনে ভাইরাল হয়েছিল। এছাড়াও বিভিন্ন ব্যাচের অনলাইন ক্লাস চলাকালে ধূমপানরত অবস্থায় তার একাধিক ছবি প্রকাশের পর ব্যাপক সমালোচনা হয়েছিল। গণমাধ্যমের কাছে সে সময় তিনি সে ছবির সত্যতাও স্বীকার করেছিলেন।

চিকিৎসা সেবা বন্ধ ॥ উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দলনরত শিক্ষার্থীদের চিকিৎসা সেবা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের টিম চিকিৎসা সাপোর্ট দিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থীরা। সঙ্গে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ৬টি এ্যাকাউন্টই বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের। গত বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের ইন্টার্ন চিকিৎসকদের একটি দল শাবিপ্রবিতে অনশনকারীদের চিকিৎসা সেবা দিতে শাবিপ্রবিতে আসেন। এরপর সোমবার থেকে তারা অনশনকারীদের কোন মেডিক্যাল সাপোর্ট দিচ্ছেন বলে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানায়। আন্দোলনকারীদের এক মুখপাত্র আরিফুল ইসলাম চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে জানায়, ‘অনশনরত শিক্ষার্থীদের সবার অবস্থা অবনতির দিকে যাচ্ছে। তারা ধীরে ধীরে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছেন। তারা সবাই খিঁচুনি, ব্লাডে অক্সিজেন ও সুগার লেভেল কমে যাওয়া, ব্লাড প্রেশারসহ নানা শারীরিক জটিলতায় পড়ছেন। তারা অর্গান ড্যামেজের ঝুঁকিতে আছেন। কেন এই শিক্ষার্থীরা জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে এসেও মেডিক্যাল সাপোর্ট পাচ্ছেন না তা নিয়ে আমরা ভীষণ উদ্বিগ্ন। এ বিষয়ে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের ইন্টার্ন চিকিৎসক মোঃ নাজমুল হাসান বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের প্রথম থেকেই চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছি। এখন শিক্ষার্থীদের এবং আমাদের চিকিৎসকদের মধ্য থেকে কয়েকজনের করোনার উপসর্গ দেখা দেয়ায় আমরা আপাতত সেবাটি বন্ধ রেখেছি। পরবর্তীতে আমরা কী করব, সেটা জানিয়ে দেব।

অনুরোধের পরও আমরণ অনশন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা ॥ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা অনশন ভাঙবেন না বলে জানিয়েছেন। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা জানান, উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আমাদের আমরণ অনশন কর্মসূচী চলবে। আমরা আন্দোলন থেকে পেছাব না। উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ তালেবানি কালচারে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা করছেন বলে অভিযোগ করেন শিক্ষার্থীরা।

অর্থ জোগান দেয়ার অভিযোগে সাবেক পাঁচ শিক্ষার্থী আটক, মামলা ॥ শাবিপ্রবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে অর্থ সহায়তা দেয়ার অভিযোগে আটক সাবেক পাঁচ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নগরীর জালালাবাদ থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (মিডিয়া) আশরাফ উল্লাহ তাহের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আসামিরা হলেন টাঙ্গাইলের সখীপুর দারিপাকা গ্রামের মতিয়ার রহমান খানের ছেলে হাবিবুর রহমান খান (২৬), বগুড়ার শিবগঞ্জ থানাধীন লক্ষ্মীকোলা গ্রামের মুইন উদ্দিনের ছেলে রেজা নুর মুইন (৩১), খুলনার সোনাডাঙ্গার মিজানুর রহমানের ছেলে এএফএম নাজমুল সাকিব (৩২), ঢাকার মিরপুরের মাজার রোডের জব্বার হাউসিং বি-ব্লকের ১৭/৩ বাসার এ কে এম মোশাররফের ছেলে একেএম মারুফ হোসেন (২৭) এবং কুমিল্লার মুরাদনগর থানাধীন নিয়ামতপুর গ্রামের সাদিকুল ইসলামের ছেলে ফয়সল আহমেদ (২৭)।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (মিডিয়া) আশরাফ উল্লাহ তাহের বলেন, মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকা থেকে সিআইডির একটি টিম আসামিদের সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। এর আগে গত দুদিনে ঢাকার বিভিন্ন জায়গা থেকে তাদের আটক করে সিআইডি। হস্তান্তরের পরেই তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। এ ঘটনায় অধিকতর তদন্ত করে তাদের সঙ্গে আর কেউ জড়িত আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে।

এনডিএফের সংহতি ॥ শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট (এনডিএফ) সিলেট জেলা শাখা। মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় সুরমা মার্কেটস্থ জেলা কার্যালয় থেকে মিছিল শুরু হয়ে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদমিনারে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন এনডিএফ সিলেট জেলা শাখার সভাপতি এ্যাডভোকেট কুমার চন্দ্র রায়। জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট সিলেট জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শাহীন আলমের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ ছাদেক মিয়া, জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট সিলেট জেলা শাখার দফতর সম্পাদক রমজান আলী পটু, জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট শাহপরাণ থানা কমিটির সভাপতি মোঃ খোকন আহমদ, জাতীয় ছাত্রদল শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহসভাপতি রুপেল চাকমা, সাধারণ সম্পাদক ওসমান গনি, সিলেট জেলা শাখার অন্যতম নেতা শুভ আজাদ শান্ত, সিলেট জেলা প্রেস শ্রমিক সংঘর সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সরকার, সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আনছার আলী প্রমুখ। বক্তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের চেতনার সঙ্গে মুক্তবুদ্ধি চর্চা, স্বাধীন মতপ্রকাশ ও আধুনিক জ্ঞান বিজ্ঞান সৃষ্টির ধারণা জড়িত। কিন্তু বাংলাদেশর প্রচলিত স্বৈরাচারী রাষ্ট্রকাঠামোর মধ্যে মুক্তবুদ্ধি চর্চার সুযোগ সম্ভব নয়। প্রকৃত মুক্তবুদ্ধি চর্চার জন্য জাতীয় গণতান্ত্রিক বিপ্লব সম্পন্ন করে গণতান্ত্রিক সমাজ ও রাষ্ট্র বিনির্মাণের বিকল্প নেই।

আন্দোলনকারীদের একটি অংশ অনশন ভাঙ্গতে চায় ॥ উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন চলবে তবে আমরণ অনশন কর্মসূচী থেকে সরে আসতে উদ্যোগী হয়েছে অন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের একটি অংশ। অনশন কর্মসূচীর অষ্টম দিনে এমন অবস্থান লক্ষ্য করা গেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে। একদল শিক্ষার্থী মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলচত্বরে সমবেত হয়ে অনশনকারীদের অনশন ভাঙ্গার অনুরোধ জানান। এর আগে তারা, উপাচার্যবিরোধী আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার শপথ নেন। আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের একাংশকে এই শপথ পড়ান মোহাইমিনুল বাশার রাজ। তবে অনশন চালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে অনড় অবস্থানও রয়েছে শিক্ষার্থীদের আরেকটি অংশের। এ বিষয়ে আলোচনা চলছে দুইপক্ষের মধ্যে। অনশনকারী শিক্ষার্থী শাহারিয়ার আবেদিন বলেন, ‘আমি আরও কিছুদিন না খেয়ে থাকতে পারব। আমি অনশন চালিয়ে যেতে চাই। আমি অনশন ভাঙ্গব না।’ আরেক অনশনকারী একই কথা বলেন। এদিকে, অনশন ভঙ্গে আন্দোলনকারীদের আরও কিছুটা সময় দিয়েছে সহযোদ্ধারা। আন্দোলনকারীরা জানান, অনশন ভাঙ্গলেও তারা দিন-রাতের পুরোটা সময় ক্যাম্পাসে অবস্থান নিয়ে উপাচার্যকে পদত্যাগে বাধ্য করিয়ে তবেই স্থান ত্যাগ করবে।

শীর্ষ সংবাদ:
কালোবাজারি চলবে না ॥ তালিকা নিয়ে মাঠে নামছে রেল পুলিশ         বুঝেশুনে উন্নয়ন কাজের পরিকল্পনা নিতে হবে         বিএনপিকে নিয়ম মেনেই নির্বাচনে আসতে হবে ॥ কাদের         ঢাকায় আইসিসি প্রধানের ব্যস্ত দিন         দুদুকের মামলায় হাজী সেলিম কারাগারে         সিলেট নগরীর পানি নামছে ॥ সুনামগঞ্জ হাওড়বাসীর দুর্ভোগ         দুই সন্তানসহ স্ত্রী হত্যা ॥ স্বামী আটক         বিশ্বের সবচেয়ে দামী আম চাষ হচ্ছে দেশে         সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পরিচয়ে প্রতারণা ॥ জামাই-শ্বশুর আটক         দেশে কালো টাকা ৮৯ লাখ কোটি, পাচার ৮ লাখ কোটি         সব ব্যাংকারদের বিদেশ ভ্রমণ বন্ধ করলো বাংলাদেশ ব্যাংক         সরকার পরিবর্তনের একমাত্র উপায় নির্বাচন ॥ কাদের         ভারত থেকে গমের জাহাজ এলো চট্টগ্রাম বন্দরে, কমছে দাম         কারাগারে হাজী সেলিম, প্রথম শ্রেণির মর্যাদা         অর্থনীতি সমিতির ২০ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকার বিকল্প বাজেট পেশ         কোভিড-১৯ : ভারত-ইন্দোনেশিয়াসহ ১৬ দেশের হজযাত্রীদের দুঃসংবাদ         বাইডেনসহ ৯৬৩ মার্কিন নাগরিকের রাশিয়া প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা         পেছাচ্ছে না ৪৪তম বিসিএস প্রিলি         পরিবেশ রক্ষায় যত্রতত্র অবকাঠামো করা যাবে না ॥ প্রধানমন্ত্রী         রাজধানীর গুলশানে দারিদ্র্য কম, বেশি কুড়িগ্রামের চর রাজিবপুরে