মঙ্গলবার ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৪ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিতে মরিয়া বিদ্রোহীরা

ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিতে মরিয়া বিদ্রোহীরা

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ দেশব্যাপী চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অযোগ্য কিংবা বিদ্রোহী আর বহিস্কৃতরা ফের যুদ্ধ করেছে নৌকার মনোনয়ন নিতে। তৃতীয়ধাপের নির্বাচনে রাজশাহীর পবা ও মোহনপুরের ১৩ টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ হবে। ইতিমধ্যে তানোর গোদাগাড়ীতে চলছে ভোটের আমেজ। আগামী ১১ নবেম্বর দ্বিতীয় এ দুটি উপজেলায় ১৭ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন যুদ্ধ চলছে এখন। রাজশাহীর পবা-মোহনপুর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে এ দফায় ভোটযুদ্ধ হবে। পবা উপজেলার পারিলা পারিলা ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক পেতে সাতজন আবেদন করেছেন। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে তাদের মধ্যে মধ্যে ব্যাপক তদবির লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তবে সবচেয়ে বেশি মরিয়া হয়ে উঠেছেন গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে গিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়া ও তাকে সমর্থন দেওয়ায় বহিস্কার হওয়া দুই নেতা। তারা হলেন- পারিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সোহরাব আলী ও পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সাইফুল বারী ভূলু।

বিদ্রোহী ও বহিস্কৃতরা নৌকা প্রতীক চাইলে তাদের নাম কেন্দ্রে পাঠানো হবে কিনা জানতে চাইলে পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইয়াসিন আলী বলেন, আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এসব বিষয়ে আগেই নির্দেশনা দিয়েছেন। সেই নির্দেশনা মেনেই কেন্দ্রে নাম পাঠানো হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার বলেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের বিষয়ে সকল ক্ষমতা সংসদ সদস্য ও থানা আওয়ামী লীগের হাতে। ত্যাগীদের খুব একটা মূল্যায়ন নাই। তারা যাদের নামে সুপারিশ করবে যত অভিযোগই থাকুক তারাই নৌকা প্রতীক পাবে। এসব বিষয়ে আমাদের কিছুই করার নাই।

এদিকে পারিলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বহিস্কৃত নেতা সাইফুল বারী ভুলু ও সোহরাব আলী ছাড়াও নৌকা প্রতীক চেয়ে আবেদন করেছেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নবীবুর রহমান, পারিলা ইউনিয়ন মহিলা লীগ সভাপতি ফাহিমা বেগম, ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা আজিজুল হক, ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি আসাদুল হক ও ইউনিয়ন কৃষকলীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম।

শুধু পবা উপজেলার ইউনিয়ন পর্যায়েই নয়। এবারের নির্বাচনে রাজশাহীর বিভিন্ন উপজেলায় নৌকায় মনোনয়নের জন্য নানা তদবির শুরু করেছেন। এ তদবিরে দলছুট, বহিস্কৃত ও বিদ্রোহীরায় বেশী এগিয়ে রয়েছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে অর্থের বিনিময়ে এসব বহিস্কৃতরা এলাকায় ভোটেই আগেই মনোনয়ন যুদ্ধ শুরু করেছেন।

শীর্ষ সংবাদ:
মাদকাসক্ত সন্তানকে গ্রেফতারে বাবা-মা আসেন ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         নিয়মানুযায়ী দিনের ভোট দিনেই হবে ॥ সিইসি         ২৫ জুন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন         মুশফিক অপরাজিত ১৭৫, বাংলাদেশ অলআউট ৩৬৫         নাইজেরিয়ায় জঙ্গী হামলায় ৫০ জন নিহত         কুমিল্লার নাশকতার মামলায় স্থায়ী জামিন খালেদার         ছাত্রলীগ-ছাত্রদলের সংঘর্ষে উত্তপ্ত ঢাবি, আহত ৩০         আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলেন সম্রাট         হাইকোর্টের সাজার বিরুদ্ধে হাজী সেলিমের আপিল         বাংলাদেশে কোনো মাঙ্কিপক্স রোগী শনাক্ত হয়নি ॥ উপাচার্য         সার্বিয়ান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আজ ঢাকায় আসছেন         কাশ্মীরে শুটিং করতে গিয়ে দুর্ঘটনায় আহত সামান্থা ও বিজয়         পিএইচডিতে ইনক্রিমেন্ট স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের দাবি ইবি শিক্ষক সমিতির