সোমবার ১০ কার্তিক ১৪২৮, ২৫ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

বৃষ্টির পানিতে ভেসে গেছে বহু মাছের ঘের ॥ সবজি, ফসলের ক্ষতি

বৃষ্টির পানিতে ভেসে গেছে বহু মাছের ঘের ॥ সবজি, ফসলের ক্ষতি

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ শ্রাবণের অঝোর ধারা, জোয়ার ও বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের কারণে দেশের বিভিন্ন জায়গায় বন্যা ও জলাবদ্ধতায় জনদুর্ভোগ বেড়েছে। হাজার হাজার জমির ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে। শত শত মাছের ঘের ভেসে গেছে। সাতক্ষীরার সাত উপজেলার ৭৮ ইউনিয়ন ও পৌরসভার কয়েক লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। মঠবাড়িয়া, যশোর, পাথরঘাটা, বাঁশখালী, সাতক্ষীরা ও বরগুনার বহু বাড়ি ও সড়ক পানিতে তলিয়ে গেছে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

জানা গেছে, বৃষ্টির পানিতে ভাসছে সাতক্ষীরা পৌরসভাসহ জেলার নিম্নাঞ্চল। জেলার সাত উপজেলার ৭৮ ইউনিয়ন আর দুটি পৌরসভার নিম্নাঞ্চল পানিতে থৈ থৈ করছে। ভেসে গেছে পুকুর ও মাছের ঘের। তলিয়ে গেছে রোপা আমন ও বীজতলা। বেগুন, কাঁচা মরিচ, ঢ্যাঁড়শ, উচ্ছে, করলাসহ বিভিন্ন সবজি ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। শহরের প্রায় অর্ধেক এলাকা পানিতে ডুবে গেছে। রাস্তাঘাট, বাড়িঘর, মসজিদ-মন্দির, কবরস্থান ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পানি উঠেছে।

যশোর ॥ শ্রাবণের অঝোর ধারায় প্লাবিত হয়েছে যশোর শহরসহ আশপাশের এলাকার নিম্নাঞ্চল। বৃহস্পতিবার ভোর থেকেই যশোর ছিল বৃষ্টির কবলে। সঙ্গে ছিল ঝড়ো হাওয়া। শুক্রবার সকালেও হয়েছে ভারি বৃষ্টিপাত। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে যশোরবাসীকে। একটানা বৃষ্টিতে যশোর শহরের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। হাঁটুপানি জমেছে অনেক জায়গায়। ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন পানিবন্দী মানুষ। এছাড়া শহরের বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুত বিভ্রাট দেয়া দেয়। ঘণ্টায় ১০ থেকে ১২ বার বিদ্যুত এসেছে আর গেছে। বৃহস্পতিবার যশোর শহরের বিভিন্ন সড়ক দেখা যায় অনেকটা জনশূন্য। বৃষ্টির কারণে অতি প্রয়োজন ছাড়া কেউই বাড়ি থেকে বের হননি। সড়কে যান চলাচলও ছিল সামান্য। শুক্রবার সকালে বৃষ্টি হওয়ায় শহরে লোক ছিল কম। শহরের খড়কি, বেজপাড়া, শংকরপুর, বারান্দিপাড়া, স্টেশন রোড, পিটিআই রোডসহ কয়েকটি এলাকার মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। পানিতে ডুবে গেছে কয়েকটি গলিপথ।

পাথরঘাটা ॥ বরগুনার পাথরঘাটায় একটানা ভারি বর্ষণে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। ভেসে গেছে অসংখ্য মাছের ঘের ও পুকুর। এখনও তলিয়ে আছে সদ্য রোপা আমনের বীজতলা ও ফসলি জমি। উপকূলীয় উপজেলা পাথরঘাটা সংলগ্ন বিষখালী ও বলেশ্বর নদীর বেড়িবাঁধও রয়েছে ঝুঁকিতে। পাথরঘাটা উপজেলার, জ্বীনতলা, পদ্মা হরিণঘাটা, রুহিতা, কাঁঠালতলী, তালুক চরদুয়ানী, উপজেলার কালমেঘা, কাকচিড়া, লেমুয়া সদ্য রোপা আমন ও বীজতলা পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়েছে। এছাড়া অসংখ্য মাছের ঘের, পুকুর ভেসে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

মঠবাড়িয়া ॥ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় উপকূলীয় অঞ্চলে প্রবল ভারি বর্ষণ ও লঘুচাপের প্রভাবে সৃষ্ট জলাবদ্ধ পানিতে ডুবে মুনিরা (০৪) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ: