বুধবার ৮ বৈশাখ ১৪২৮, ২১ এপ্রিল ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সুইজারল্যান্ডে গণভোটে নিষিদ্ধ হল ‘মুখ ঢাকা পোশাক’

সুইজারল্যান্ডে গণভোটে নিষিদ্ধ হল ‘মুখ ঢাকা পোশাক’

অনলাইন ডেস্ক ॥ সুইজারল্যান্ডের গণভোটে সামান্য ব্যবধানে ‘প্রকাশ্যে মুখ ঢাকা পোশাক’ নিষিদ্ধের বিতর্কিত প্রস্তাব পাস হয়েছে। প্রস্তাবে পোশাকের ধরন উল্লেখ করা না হলেও মুসলিম নারীদের বোরকা বা নিকাবকে লক্ষ্য করেই প্রচার চালানো হয়।

সুইজারল্যান্ডের নিয়ম অনুযায়ী যেকোনও বিষয়ে এক লাখ মানুষ স্বাক্ষর প্রদান করলে সেই প্রস্তাবের ওপর জাতীয় ভোট অনুষ্ঠিত হয়। গণভোটে ৫১ দশমিক দুই শতাংশ মানুষ প্রস্তাবটির পক্ষে রায় দিয়েছেন। তবে দেশটির ২৬টি ক্যান্টনের (প্রশাসনিক অঞ্চল) ছয়টিতে বেশিরভাগ মানুষ এই প্রস্তাব সমর্থন করেননি। এই ছয় ক্যান্টনের মধ্যে রয়েছে দেশটির সবচেয়ে বড় তিন শহর জুরিখ, জেনেভা ও বাসেল। এছাড়া রাজধানী বার্নের অধিকাংশ মানুষও ছিলেন বিপক্ষে।

প্রস্তাব অনুযায়ী, কোনও ব্যক্তি জনসমক্ষে মুখ ঢেকে রাখতে পারবেন না। রেস্টুরেন্ট, স্টেডিয়াম, গণপরিবহণ এমনকি রাস্তায় হাঁটার ক্ষেত্রেও মুখ আবৃত করে এমন পোশাক পরা যাবে না। তবে ধর্মীয় উপাসনালয় এবং নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যগত কারণে এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে না। অর্থাৎ করোনা থেকে রক্ষায় মাস্ক পরতে কোনও সমস্যা নেই। সেই সঙ্গে প্রার্থনাস্থলে এই নিয়মের ছাড় দেওয়া হবে।

এরইমধ্যে দেশটির দু’টি অঞ্চলে নিয়মটি কার্যকর রয়েছে। সেটি সারাদেশের জন্য প্রযোজ্য হবে কিনা সেই বিষয়ে রবিবার ভোটাভুটি হয়। ফ্রান্স, বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ডসসহ ইউরোপের কয়েকটি দেশে একই ধরনের নিষেধাজ্ঞা কার্যকর রয়েছে।

যারা পক্ষে :

সুইজারল্যান্ডে এই প্রস্তাবের কোথাও বোরকা, নিকাবের কথা আলাদা করে বলা হয়নি। তবে এর পক্ষের রাজনৈতিক প্রচারে মুসলিম নারীদের পোশাককেই সামনে আনা হয়েছে। সুইজারল্যান্ডের সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠ দল দ্য সুইস পিপলস পার্টি প্রস্তাবের পক্ষে জোরালো অবস্থান নেয়। তাদের বিলি করা একটি প্রচারপত্রে বোরকা পরা এক নারীর চিত্র ব্যবহার করে লেখা হয়েছে, ‘ইসলামি উগ্রবাদ থামাও’।

কিন্তু বাস্তবতা হল সুইজারল্যান্ডে সচরাচর বোরকা, নিকাব পরিহিত নারীদের তেমন একটা দেখা যায় না। তারপরও এমন প্রস্তাব কেন উঠেছে সেটি নিয়ে রাজনৈতিক বিতর্ক আছে। এই বিষয়ে সুইস পিপলস পার্টির সংসদ সদস্য জ্যঁ-লুক অ্যাডোর বলেন, বোরকা পরা খুব বেশি নারী সুইজারল্যান্ডে নেই সেটা সৌভাগ্যের। তার যুক্তি, “কোন বিদ্যমান সমস্যা নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়ার আগেই সমাধান করা উচিত।”

যারা বিপক্ষে :

তবে সরকার ও সংসদ এ নিয়ে দেশজুড়ে নিষেধাজ্ঞার বিপক্ষে ছিল। এর মাধ্যমে অকারণ ইসলাম ভীতি ছড়ানো হচ্ছে বলেও মত তাদের। বিপক্ষের একটি প্রচারপত্রে বলা হয়েছে, “অযৌক্তিক, অপ্রয়োজনীয় ও ইসলামভীতি ছড়ানো বোরকাবিরোধী আইনকে না বলুন।”

যেসব জায়গায় কর্তৃপক্ষ পরিচয় নিশ্চিত হতে চাইবে সেসব ক্ষেত্রে কেউ মুখ ঢাকা পোশাক পরলেও চেহারা দেখানোর বাধ্যবাধকতার পাল্টা প্রস্তাব দিয়েছিলেন তারা। নিষিদ্ধের প্রস্তাবটি ভোটে বাতিল হলে তাদের এই বিকল্প প্রস্তাব কার্যকর হতো।

মুসলিম নারীবাদীদের প্রতিবাদ :

প্রস্তাবটিতে যেসব কথা বলা হয়েছে সেগুলোকে বর্ণবাদী হিসেবে উল্লেখ করেছে মুসলিম নারীদের সংগঠন পার্পল হেডসকার্ভস।

বার্তা সংস্থা এএফপিকে সংগঠনটির মুখপাত্র ইনেস এল-শিখ বলেন, প্রস্তাবিত আইনে যা সমস্যা নয় সেটিকে একটি সমস্যা হিসেবে দেখানো হচ্ছে। অথচ পুরো সুইজারল্যান্ডে মাত্র ত্রিশজন নারী বোরকা পরেন।

২০১৯ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ৮৬ লাখ জনসংখ্যার সুইজারল্যান্ডে মাত্র পাঁচ দশমিক পাঁচ ভাগ মুসলিম। সূত্র: ডয়েচে ভেলে।

শীর্ষ সংবাদ:
জাতিসংঘের মাদকদ্রব্য বিষয়ক কমিশনের সদস্য হলো বাংলাদেশ         ফ্লয়েডের মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশ কর্মকর্তা চাওভিনকে হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত         লকডাউন ॥ এখনও শুরুই হয়নি সরকারী ত্রাণ বিতরণ         পাল্লেকেলেতে প্রথম টেস্টে টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছে বাংলাদেশ         বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ৩০ লাখ ৫০ হাজার ছাড়িয়েছে         খালেদা জিয়ার সঙ্গে বাবুনগরীর কোনোদিন দেখা হয়নি ॥ প্রতিবাদলিপিতে হেফাজত         মোহাম্মদপুর থেকে হেফাজত নেতা আতাউল্লাহ আমিন গ্রেফতার         করোনায় একদিনে সর্বাধিক সংক্রমণে বিশ্বের সব দেশকে ছাড়িয়েছে ভারত         জর্জ ফ্লয়েড হত্যায় ডেরেক শভিন দোষী সাব্যস্ত         সবার জন্য টিকা চাই ॥ কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনকে বৈশ্বিক পণ্য আখ্যায়িত         মুক্তিযুদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক সংস্কৃতির বিরুদ্ধেই যত ক্ষোভ         করোনার কবলে ৮০ লাখ প্রতিষ্ঠান         আগের সব বিধিনিষেধই থাকছে নতুন লকডাউনে         আতিকউল্লাহ খান মাসুদের মৃত্যুতে শোক অব্যাহত         হেফাজতের ২৩ মামলার তদন্ত করবে সিআইডি         কওমি শিক্ষার্থীদের মাঠে নামিয়ে ক্ষমতা দখলের চেষ্টা করেন মামুনুল         এক মাসেই করোনা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব         চারদিন পর করোনায় মৃত্যু একশ’র নিচে নেমেছে         প্রবাসীদের কথা বিবেচনায় আজ থেকে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চালু         এফবিসিসিআই নির্বাচন বন্ধে কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ নয়