বৃহস্পতিবার ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ইসরাইলের সঙ্গে সুসম্পর্ক চায় তুরস্ক ॥ এরদোয়ান

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান বলেছেন, ইসরাইলের সঙ্গে সুসম্পর্ক চায় তার দেশ। এ লক্ষ্যে দু’পক্ষের মধ্যে গোয়েন্দা পর্যায়ে আলোচনা চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে ফিলিস্তিন নিয়ে ইসরাইলের নীতিমালা মেনে নেয়া যায় না বলেও এরদোয়ান সমালোচনা করেছেন। তুরস্ক এবং ইসরাইলের মধ্যে শক্তিশালী বাণিজ্যিক সম্পর্ক থাকার পরও সম্প্রতি কয়েক বছরে দু’দেশের সম্পর্কে তিক্ত বিরোধ দেখা দিয়েছে। ২০১৮ সালে দু’দেশ একে অপরের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করেছে। এছাড়া, তুরস্ক বারবারই পশ্চিম তীরে ইসরাইলি দখলদারিত্ব এবং ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে তাদের আচরণের নিন্দা করে এসেছে। খবর রয়টার্সের।

শুক্রবার ইস্তানবুলে জুমার নামাজের পর এরদোয়ান সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘ইসরাইলের শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে তুরস্কের সমস্যা আছে, তা না হলে আমাদের সম্পর্ক অন্যরকম হতে পারত। ফিলিস্তিন নীতি আমাদের শেষ সীমা (রেড লাইন)। ইসরাইলের ফিলিস্তিন নীতি মেনে নেয়া আমাদের পক্ষে অসম্ভব। তাদের নির্দয় আচরণ মেনে নেয়া যায় না। শীর্ষ পর্যায়ে কোন সমস্যা না থাকলে আমাদের সম্পর্ক অনেকটাই ভিন্ন হতে পারত। আমরা আমাদের সম্পর্ককে আরও ভাল একটি অবস্থানে নিয়ে যেতে চাই।

২০১৮ সালে গাজা সীমান্তে ইসরাইলি বাহিনীর হামলায় কয়েক ডজন ফিলিস্তিনি নিহত হওয়ার ঘটনা নিয়ে বিরোধে তুরস্ক এবং ইসরাইল একে অপরের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করেছিল। তবে তারপরও দু’দেশের মধ্যে চলে এসেছে বাণিজ্য। এর মধ্যেই আগস্টে তুরস্ক ইস্তানবুলে কয়েক ডজন হামাস সদস্যকে তুর্কি পাসপোর্ট দিয়েছে বলে অভিযোগ করে ইসরাইল। তুরস্কের এ পদক্ষেপকে ‘খুবই অবন্ধুসুলভ’ আখ্যা দেয় তারা।

ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের অনুগত বাহিনীর কাছ থেকে ২০০৭ সালে গাজার নিয়ন্ত্রণ করায়ত্ব করেছে হামাস। তখন থেকে হামাসের সঙ্গে ইসরাইলের তিনটি যুদ্ধ হয়েছে।

তুরস্ক বলে আসছে, হামাস ফিলিস্তিনের বৈধ রাজনৈতিক আন্দোলনের দল। তারা গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত হয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
গণমুখী প্রশাসন ॥ স্বাধীনতার ৫০ বছরে বড় অর্জন         ছাত্রদের কাজ লেখাপড়া, রাস্তায় নেমে যান ভাংচুর নয়         উন্নয়নে পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ         ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নেতৃত্বের ভূমিকায় থাকবে         ১১ খাতে বিপুল বিনিয়োগ আসার সম্ভাবনা         ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তি চুক্তিতে বদলে গেছে পাহাড়         রামপুরায় ছাত্র বিক্ষোভ, মতিঝিলে গাড়ি ভাংচুর         দেশের প্রথম বর্জ্য বিদ্যুত কেন্দ্র অবশেষে বাস্তবায়ন হচ্ছে         বাল্যবিয়ে রোধে কাজীদের সচেতন করতে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে         হত্যা মিশনে ব্যবহৃত গুলি-অস্ত্র উদ্ধার         শ্রদ্ধা ভালবাসায় জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের চিরবিদায়         সুপ্রীমকোর্টে শারীরিক উপস্থিতিতে বিচার কাজ শুরু         খালেদা জিয়াকে স্তব্ধ করে দিতে চায় সরকার ॥ ফখরুল         মুক্তিপণের টাকা আদায় হচ্ছিল মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে         সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে লাল সবুজের মহোৎসবে মুখরিত হাতিরঝিল         ৯০ কার্যদিবসে সম্প্রীতি বিনষ্টের মামলা নিষ্পত্তি করতে হবে         এইচএসসি ও আলিম পরীক্ষা উপলক্ষে যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ডিএমপি         আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলে ব্যবস্থা নেবো : অর্থমন্ত্রী         হৃদরোগ ঝুঁকি হ্রাসে সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় আরও ২ জনের মৃত্যু