মঙ্গলবার ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ০৭ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিএডিসির বীজধান সঙ্কট

  • কলাপাড়ায় শঙ্কিত কৃষক

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ২৬ জুন ॥ কলাপাড়ায় মৌসুমের শুরুতেই আমন বীজের তীব্র সঙ্কট দেখা দিয়েছে। কৃষকরা নির্ধারিত ডিলারের দোকানে ঘুরেও বিএডিসির বীজধান পাচ্ছে না। ফিরছে খালি হাতে। তারা জানান, বীজতলা করার সময় পার হয়ে যাচ্ছে, অথচ বীজধান মিলছে না। ফলে যথাসময় আমনের বীজতলা তৈরি নিয়ে বড় ধরনের শঙ্কা দেখা দিয়েছে। কলাপাড়ায় বিএডিসির বীজধান বিক্রির যে কয়জন ডিলার রয়েছে এর মধ্যে কলাপাড়া শহরের গৌতম হাওলাদার, আলীপুরের শহীদ মুসল্লি, মহিপুরের সোহাগ ও ধানখালীর একজন বীজধান উত্তোলন করে বিক্রি করছে। তারা যে পরিমাণ বীজধান পটুয়াখালী থেকে উত্তোলন করেছিল তা বৃহস্পতিবার দুপুরে বিক্রি শেষ হয়ে গেছে। এখন বিএডিসির কোন বীজধান বাজারে নেই। ফলে বীজের শঙ্কট প্রকট হয়ে দেখা দিয়েছে। কৃষকরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। অনেক কৃষক বলেছেন সিন্ডিকেট করে এটি কৃত্রিম সঙ্কট করা হয়েছে। পশ্চিম সোনাতলা গ্রামের বড় কৃষক হারুন মাঝি জানান, তার অন্তত ৯০ বিঘা জমির আমন আবাদের জন্য ২১০ কেজি বীজ ধানের প্রয়োজন। তিনি ব্রি-৪৯,২৩ এবং গুটি স্বর্ণা জাতের বীজধান খুঁজছিলেন। শহরের গৌতম হাওলাদারের দোকানে গিয়ে ফিরে গেছেন। যেখানে বিএডিসির বীজধান ১০ কেজি বস্তা তিন শ’ টাকায় বিক্রির কথা তা বিক্রি করছে ৩৫০ টাকায়। তাও মিলছে না। আর বাইরের কোম্পানির বীজধান কিনতে হয় কৃষককে ৮০-৯০ টাকা কেজিতে। তাও ভেজাল। সোনাতলা গ্রামের বেল্লাল হোসেন এবং হোসেনপুর গ্রামের সুলতান হাওলাদার জানান, তারাও বীজধান সঙ্কটের শঙ্কায় পড়েছে। বীজতলা তৈরির এখন জো (সময়) তাই কৃষক শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান জানান, সরকারীভাবে কৃষককে ন্যায্যমূল্যে বীজধান ক্রয়ের জন্য বিএডিসি চাহিদার ৩০ ভাগ বীজধান ফি বছর সরবরাহ করে আসছে। এ বছর চাহিদা বাড়িয়ে ৪০ ভাগ করা হয়েছে। কিন্তু গেল বছরের ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তা-বে অধিকাংশ ধান চিটা হয়ে গেছে। ফলে শতকরা ৯৫ ভাগ কৃষক স্থানীয়ভাবে বীজধান সংগ্রহ করতে পারেনি। তাই চাহিদা হঠাৎ বেড়ে গেছে। উপকূলীয় জনকল্যাণ সংঘের সভাপতি জয়নাল আবেদীন জানান, বুলবুলের কারণে কোন কৃষক বীজধান সংগ্রহ করতে পারেনি। তাই এখন সকল কৃষকের বীজধানের প্রয়োজন রয়েছে। কৃষকরা জানান, আমন একমাত্র মৌসুম সকল জমিতে ধানের আবাদ করেন তারা। আর এখন বীজের সঙ্কটে চাষাবাদে প্রতিবন্ধকতা দেখা দিয়েছে। কৃষি অফিসের দেয়া তথ্যমতে, কলাপাড়ায় আমন আবাদযোগ্য জমির পরিমাণ প্রায় ৮৬ হাজার একর। যেখানে ৮৬০ টন বীজধানের প্রয়োজন রয়েছে। কিন্তু বিএডিসি থেকে সর্বোচ্চ ৪০ ভাগ সরবরাহ করা হলেও বাকি ৬০ ভাগ কৃষককে বাইরে থেকে চড়ামূল্যে কিনতে হবে। তাতে সঙ্কট কাটছে না। তবে কৃষি কর্মকর্তা বলেছেন আগামী রবিবার আরও কিছু বীজধান ডিলাররা আনবেন। তখন কৃষকরা বীজধান সংগ্রহ করতে পারবেন। কিন্তু বিএডিসির বীজ ধান যদি প্রান্তিক, বর্গাচাষীদের মধ্যে বিলি-বণ্টন করা যেত তাইলে এরা উপকৃত হতো। নইলে ৮০-৯০ টাকা কেজি দরে বীজধান কিনে বীজতলা তৈরি করতে হবে। কৃষকরা আরও জানান, তারা সাধারণত অধিকাংশ জমিতে ব্রি-৪৯, ২৩, ১১, ৫১, ৫২, ৩২ ও ২২ জাত ছাড়াও গুটি স্বর্ণা জাতের ধানের আবাদ করেন। এছাড়া নিচু জমিতে স্থানীয় জাত মোটা কুটি অগ্রানী, ক্যারেঙ্গাল মোটা, মোথা মোটা জাাতের ধানের আবাদ করেন। এসব বীজধান বাজারে থাকা প্রয়োজন। বিএডিসির ডিলার গৌতম চন্দ্র হাওলাদার জানান, তিনি বিএডিসির প্রায় সাড়ে সাত টন ধানবীজ এনেছেন। আরও পাওনা রয়েছে আড়াই টন। সবশেষ বৃহস্পতিবার ২২৫ প্যাকেট ধানের বীজ এনেছিলেন। তা মুহূর্তে শেষ হয়ে গেছে। বর্তমানে কয়েক প্যাকেট বীণা জাতের ধানের বীজ রয়েছে। তার মন্তব্য বীজধানের সঙ্কটের সুযোগে এক শ্রেণীর অখ্যাত কোম্পানি নিম্নমানের মিশ্রজাতের ধানের বীজ বাজারে ছেড়ে দিচ্ছে। যা কিনে কৃষক প্রতারিত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনা ভাইরাস ॥ ব্রাজিলে মৃত্যু ৬৫ হাজার ছাড়াল         দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৫৫ জনের, নতুন শনাক্ত ৩০২৭         শুল্ক কমিয়ে বিদেশ থেকে চাল আমদানির সিদ্ধান্ত         করোনা ভাইরাস ॥ চিকিৎসক নিয়োগে আসছে বিশেষ বিসিএস         পাপুলকাণ্ডে রাষ্ট্রদূতের বিরুদ্ধে অভিযোগ খতিয়ে দেখা হবে ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী         উপনির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই ॥ ইসি সচিব         বান্দরবানে জনসংহতির সংস্কারপন্থি ছয়জনকে গুলি করে হত্যা         দাউদকান্দিতে প্রাইভেটকার খাদে পড়ে একই পরিবারের ৩ জন নিহত         এবার মাশরাফির স্ত্রীও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত         জাতীয় পার্টিতে নতুন দুই উপদেষ্টা         দুই আসনের উপনির্বাচনকে অগ্রহণযোগ্য বলল বিএনপি         কিশোরগঞ্জে শোক-শ্রদ্ধায় শোলাকিয়ায় জঙ্গী হামলায় নিহতদের স্মরণ         করোনা ভাইরাসে ভারতে মৃত্যু ছাড়াল ২০ হাজার         টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে দুই ইয়াবা কারবারি নিহত         কলম্বিয়ায় জ্বালানি ট্যাঙ্কার বিস্ফোরণ ॥ নিহত অন্তত ৭         ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকের বড় ভাইয়ের মৃত্যু         মিয়ানমারের সেনাপ্রধান ও উপ-প্রধানের ওপর যুক্তরাজ্যের নিষেধাজ্ঞা         বন্যপ্রাণী নিধন চলতে থাকলে আরও প্রাদুর্ভাব আসবে ॥ জাতিসংঘ         যুক্তরাষ্ট্রে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ৩২ রাজ্যে করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী         শুধু ভারত নয়, জাপানসহ ২০ দেশের সঙ্গে দ্বন্দ্ব চীনের        
//--BID Records