বৃহস্পতিবার ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

শেরপুরে কাজে আসছে না কোটি টাকার ব্রিজ ॥ দুর্ভোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, শেরপুর, ২২ জুন ॥ রাস্তা সংস্কার, সম্প্রসারণ ও পাকাকরণের অভাবে শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে কাজে আসছে না এলজিইডির প্রায় কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত একটি ব্রিজ। দীর্ঘ ১৬ বছর যাবত আশপাশের ১৫ গ্রামের মানুষকে পোহাতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ। এর পরও এলাকার দায়িত্বশীল মহলসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের তরফ থেকে বিষয়টির সমাধানে আজও নেয়া হয়নি তেমন কোন কার্যকর উদ্যোগ। ফলে সরকারে বিপুল অঙ্কের টাকায় নির্মিত ব্রিজটি এলাকাবাসীর আশীর্বাদের পরিবর্তে যেন কষ্টস্মারক হিসেবেই তার অস্তিত্ব জানান দিচ্ছে।

জানা যায়, ঝিনাইগাতী উপজেলার সদর ইউনিয়নের মাটিয়াপাড়া সিএনবি রোড থেকে সারিকালিনগর, গজারমারী হয়ে বাগেরভিটা বাজার পর্যন্ত প্রায় ৮ কিলোমিটার রাস্তা। ওই পথে মাটিয়াপাড়া, সারিকালিনগর, বালুরচর, কালিনগর, নয়াপাড়া, দাড়িয়ারপাড়, কান্দুলী, কোচনিপাড়া, বাগেরভিটা ও কোনাগাঁও, আহম্মদনগর, জরাকুড়া, পাইকুড়া ও ধানশাইলসহ ১৫টি গ্রামের হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে থাকে। যাতায়াতের ওই অংশে অন্তত ৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ রয়েছে ৩/৪টি বাজার। স্থানীয়দের তরফ থেকে রাস্তাটি দেশ স্বাধীনের পর থেকেই পাকাকরণের দাবি উঠে এলেও আজও তা বাস্তবায়িত হয়নি। বিভিন্ন সময় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে রাস্তাটি সংস্কারের আশ্বাসই পাওয়া গেছে শুধু। ফলে রাস্তাটি পাকাকরণের অভাবে পথচারীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এদিকে রাস্তাটি সংস্কার ও প্রশস্ত না করেই ২০০৪ সালে ওই রাস্তার মাঝখানে গজারমারী এলাকায় এলজিইডির প্রায় কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয় একটি ব্রিজ। কিন্তু দু’পাশে রাস্তা না থাকায় ব্রিজটি কোন কাজেই আসছে না গ্রামবাসীদের। শুষ্ক মৌসুমে যেমন তেমন, বর্ষা মৌসুমে ওই পথে যাতায়াতকারীদের দুর্ভোগের সীমা থাকে না। তখন মানুষের চলাচলের একমাত্র মাধ্যম নৌকা। এছাড়া এলাকায় উৎপাদিত কৃষিপণ্য ও গবাদিপশু পারাপারে সীমাহীন বিড়ম্বনার শিকার হতে হয় কৃষকদের। ধানশাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বলেন, প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে সামান্য বৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলের পানিতে রাস্তাটি তলিয়ে যায়। শুধু ভেসে থাকে ব্রিজটি। ওই সময় গ্রামবাসীর চলাচলে দুর্ভোগের সীমা থাকে না। একই কথা জানিয়ে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী বলেন, প্রায় ৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি সংস্কার, প্রশস্ত ও পাকা না করেই মাঝপথে বিশাল অঙ্কের টাকায় প্রায় ১৬ বছর আগে একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হলেও তা এলাকাবাসীর কাজে আসছে না। বরং তা এলাকাবাসীর কষ্টস্মারক হিসেবেই দেখা যাচ্ছে। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মোজাম্মেল হক বলেন, রাস্তাটি উন্নয়নের জন্য প্রাক্কলনসহ সংশ্লিষ্ট অধিদফতরে প্রস্তাব প্রেরণ করা হয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
সিলেটে রেকর্ড বন্যা         নির্বাচনী মাঠে নামুন, কেউ ভোট কেড়ে নেবে না         আস্থার সঙ্কটে খাদের কিনারে শেয়ারবাজার         প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে টেস্টে ৫ হাজার রান মুশফিকের         ভুল চিকিৎসায় শিশুর মৃত্যু, ডাক্তারসহ আটক ৪         রাইস ব্র্যান ও সরিষার তেল উৎপাদন বাড়ানো হবে         পর্যটকদের জন্য ব্যবস্থা থাকবে, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য যেন নষ্ট না হয়         নিত্যপণ্যের বাজার আরও টালমাটাল হওয়ার আশঙ্কা         কান চলচ্চিত্র উৎসবে আজ দেখানো হবে ‘মুজিব’ সিনেমার ট্রেইলার         দেশের অর্থনীতিতে অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরি হয়েছে         অপরিপক্ব লিচুতে ভরে গেছে দিনাজপুরের বাজার         মোবাইল চুরি, ছিনতাই চক্রে ব্যবসায়ী ও টেকনিশিয়ান         নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুন, কেউ ভোটের অধিকার কেড়ে নেবে না : প্রধানমন্ত্রী         সিলেটে বন্যায় পানিবন্দি ১৫ লাখ মানুষ         বন্যায় সিলেটবাসীকে সহযোগিতা দেয়া হবে         আগামী ৩১ মে হজ ফ্লাইট শুরু নিয়ে ফের অনিশ্চয়তা         নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শৃঙ্খলার মধ্যে আনতে হবে : শিল্পমন্ত্রী         হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়লো         আগামী ৫ জুন বাজেট অধিবেশন শুরু         বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ বাতিল