শনিবার ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ভারতে শুরু হচ্ছে চতুর্থ দফার লকডাউন

ভারতে শুরু হচ্ছে চতুর্থ দফার লকডাউন
  • বিশ্বে করোনায় মৃত্যু বেড়ে ৩ লাখ ১৪ হাজার

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস বিশ্বের ২১২টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে। আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারস ডট ইনফোর হিসাব অনুযায়ী, বাংলাদেশ সময় রবিবার পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৪৭ লাখ ৭১ হাজার ৬৯৭। এর মধ্যে ৩ লাখ ১৪ হাজার ৬৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসা গ্রহণের পর সুস্থ হয়ে উঠেছে ১৮ লাখ ৪৩ হাজার ৪৪৪ জন। এদিকে করোনায় রবিবার নতুন করে যুক্তরাষ্ট্রে আরও ১২৩৭, ব্রাজিলে ৮১৬ এবং ফ্রান্সে ৮৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র কোভিড-১৯-এর পরীক্ষা বাড়াতে ঘর থেকে নমুনা সংগ্রহের জন্য একটি ডিআইওয়াই নজাল স্যাম্পল কালেকশন কিট-এর অনুমোদন দিয়েছে। এছাড়া ভারতে চতুর্থ দফার লকডাউন শুরু হচ্ছে। এদিকে জীবাণুনাশক ছিটানো স্বাস্থ্যের জন্য ‘ক্ষতিকর’ হতে পারে বলে জানিয়েছে ডব্লিউএইচও। অন্যদিকে খোলা ময়দানে ঈদের নামাজ আদায়ের অনুমতি দিয়েছে ইরান এবং কাতারে মাস্ক না পরলে ৩ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। খবর এএফপি, বিবিসি, এনডিটিভি, টাইমস অব ইন্ডিয়া, আলজাজিরা, সিএনএন, সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট, ডেইলি মেইল, নিউইয়র্ক টাইমস, ডন, ইউরো নিউজ, ওয়ার্ল্ডোমিটারস ডট ইনফো ও ইয়াহু নিউজের।

যুক্তরাষ্ট্রে আরও ১২৩৭ জনের মৃত্যু, ঘর থেকে নমুনা সংগ্রহ কিটের অনুমোদন ॥ যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আরও এক হাজার ২৩৭ জন মারা গেছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৮,৭৩০ জন। জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির শনিবারের হিসাব থেকে এ কথা জানা গেছে। এদিকে যুক্তরাষ্ট্র কোভিড-১৯-এর পরীক্ষা বাড়াতে শনিবার ঘর থেকে নমুনা সংগ্রহের জন্য একটি ডিআইওয়াই নজাল স্যাম্পল কালেকশন কিট-এর অনুমোদন দিয়েছে। দেশটির খাদ্য ও ওষুধ কর্তৃপক্ষ (এফডিএ) সংগৃহীত নমুনা মেজর চেইন অব ল্যাবরেটরিজ, ল্যাবকর্পে পাঠানোর ব্যবস্থা গ্রহণ সাপেক্ষে গত ২১ এপ্রিল প্রথম একটি নজাল স্যাম্পল কালেকশন কিটের অনুমোদন দিয়েছিল।

ব্রাজিলে আরও ৮১৬ জনের মৃত্যু ॥ ব্রাজিলে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ হাজার ৯১৯ নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৩৩ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। একদিনে মৃত্যু হয়েছে ৮১৬ জনের। মোট মৃতের সংখ্যা ১৫ হাজার ৬৬২ জন। রবিবার ওয়ার্ল্ডোমিটারের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, আক্রান্তের দিক দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র, স্পেন, রাশিয়া ও যুক্তরাজ্যের পরেই অবস্থান করছে ব্রাজিল।

ফ্রান্সে আরও ৯৬ জনের মৃত্যু ॥ ফ্রান্সে করোনাভাইরাসে শনিবার নতুন করে আরও ৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে, এই সংখ্যা পূর্ববর্তী দিনগুলোর চেয়ে কম এবং এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ৬২৫ জনে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, করোনা থেকে বেরিয়ে আসার বিভিন্ন ইতিবাচক প্রবণতা অব্যাহত রয়েছে, ইনটেনসিভ কেয়ারে সবচেয়ে কম ৭১ জন করোনা রোগী রয়েছে।

ভারতে চতুর্থ দফার লকডাউন শুরু হচ্ছে ॥ করোনা ঠেকাতে ভারতজুড়ে চলমান তৃতীয় দফার লকডাউন রবিবার মধ্য রাতে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। এরপর শুরু হবে চতুর্থ দফার লকডাউন। চতুর্থ দফার লকডাউন কত দিন চলবে, সে ব্যাপারে রবিবার কেন্দ্রীয় সরকারের বিস্তারিত নির্দেশনা দেয়ার কথা রয়েছে। তবে এই দফায় লকডাউন কিছুটা শিথিল হবে, এমন ইঙ্গিতই পাওয়া যাচ্ছে। কলকাতার সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, চতুর্থ দফার লকডাউনে দেশের ১২টি রাজ্যের ৩০টি সংক্রমিত পৌর এলাকার ওপর জোর দেয়া হবে। অন্যান্য এলাকায় লকডাউন শিথিল করার বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হবে।

জীবাণুনাশক ছিটানো স্বাস্থ্যের জন্যে ‘ক্ষতিকর’ হতে পারে-ডব্লিউএইচও ॥ কিছু কিছু দেশে রাস্তাঘাটে জীবাণুনাশক ছিটানো হচ্ছে। এটি করোনাভাইরাস নির্মূল করবে না, বরং স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি করবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) শনিবার এ ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছে। করোনা মোকাবেলার অংশ হিসেবে পরিচ্ছন্নতা ও উন্মুক্ত স্থান জীবাণুমুক্তকরণ বিষয়ক এক ডকুমেন্টে ডব্লিউএইচও বলছে, জীবাণুনাশক ছিটানো সম্ভবত খুব একটা কার্যকর নয়। ডব্লিউএইচও বা হু ব্যাখ্যা করে বলছে, রাস্তা কিংবা বাজারের মতো বাইরের স্থানগুলোতে ছিটানো জীবাণুনাশকে কোভিড-১৯ কিংবা অন্য কোন জীবাণু মরে না। কারণ নোংরা ও ময়লা আবর্জনায় জীবাণুনাশক নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ে। রাস্তা কিংবা খোলা স্থানগুলো কোভিড-১৯-এর সংক্রমণের আধার নয়। বরং এসব স্থানে জীবাণুনাশক ছিটালে তা স্বাস্থ্যের জন্যে ঝুঁকি তৈরি করবে। ডকুমেন্টে কোন অবস্থাতেই ব্যক্তির ওপর জীবাণুনাশক ছিটানো সুপারিশ করা হয়নি। এতে বলা হয়, এটি বরং ব্যক্তির শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এবং আক্রান্ত ব্যক্তির মাধ্যমে করোনা ছড়ানোর আশঙ্কাকে মোটেও কমায় না।

খোলা ময়দানে ঈদের নামাজ আদায়ের অনুমতি দিল ইরান ॥ খোলা ময়দানে ঈদ-উল ফিতরের নামাজ আদায়ের অনুমতি দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরান। ফলে দেশটির মুসল্লিরা খোলা জায়গায় দাঁড়িয়ে ঈদের নামাজ আদায় করতে পারবেন। ইরানে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ কমিটির সেক্রেটারি হোসেইন কাজেমি জানিয়েছেন, ইরানের সব শহরেই খোলা ময়দানে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। তিনি আরও জানিয়েছেন যে, রমজানের পরেই রেস্টুরেন্ট খুলে দেয়া হবে। তবে সেক্ষেত্রে সাস্থ্যবিধি সঠিকভাবে মেনে চলতে হবে। প্রায় দুই মাস বন্ধ থাকার পর চলতি মাসের শুরুর দিকে বেশ কিছু এলাকায় মসজিদ খুলে দিয়েছে ইরান।

স্পেনে জরুরী অবস্থা বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ ॥ স্পেনে চলমান জরুরী অবস্থা পঞ্চম দফা ১৫ দিনের পরিবর্তে টানা এক মাসের মেয়াদ বাড়াতে সংসদে প্রস্তাব করেছেন প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ। করোনাভাইরাস ও অর্থনৈতিক সঙ্কট মোকাবেলায় সরকারের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরু করেছেন স্পেনের জনগণ। চলমান মহামারীর মাঝেই ১৭ মে এই বিক্ষোভে সরকারের পদত্যাগ দাবি করা হয়।

কাতারে মাস্ক না পরলে ৩ বছরের কারাদণ্ড ॥ মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতার। মাস্ক না পরলে কঠোর শাস্তির বিধান শুরু করেছে দেশটি। মাস্ক না পরলে সেখানে তিন বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে এবং একই সঙ্গে জরিমানাও দিতে হবে। এখন পর্যন্ত কোন দেশেই এমন শাস্তির ব্যবস্থা করা হয়নি। মাস্ক না পরার জন্য কাতারেই বিশ্বের সবচেয়ে কঠোর শান্তির আওতায় আনা হবে।

শীর্ষ সংবাদ:
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন বিএনপি নেতৃবৃন্দ ॥ কাদের         বৃহস্পতিবার দেশে আসবে গাফ্ফার চৌধুরীর মরদেহ         কিডনিতে ২০৬ পাথর !         কৃষক ও যুবকসহ বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু         বৃত্তির ফল নিয়ে ভোগান্তিতে জবি শিক্ষার্থীরা         যে অপরাধ করবে তাকেই শাস্তি পেতে হবে ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ একটি মাইলফলক : সেতুমন্ত্রী         ইভিএম পদ্ধতির ভুল প্রমান করতে পারলে পুরস্কৃত করা হবে ॥ ইসি আহসান হাবিব         অভিবাসীদের জীবন বাঁচাতে প্রচেষ্টা বাড়াতে হবে         অস্ত্র মামলায় ছাত্রলীগ নেতা সাঈদী রিমান্ডে ॥ জোবায়েরের জামিন         ইসলাম বিদ্বেষ, নারী বিদ্বেষকে ঘুষি মেরে বক্সিং-এ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জারিন         স্ত্রীর কবরের পাশে চিরশায়িত হবেন আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী         শিগগিরই সব দলের সঙ্গে সংলাপ : সিইসি         চাঁদপুরে ট্রাক-অটোরিকশা মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের দুই পরীক্ষার্থী নিহত         তীব্র জ্বালানি সংকটে শ্রীলঙ্কায় স্কুল ও অফিস বন্ধ         মঠবাড়িয়ায় যাত্রীবাহী বাস চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত, আহত ২         নগর ভবনে দরপত্র জমা দেওয়ার চেষ্টা         রাজধানীর বাজারে প্রায় সব পণ্যের দাম বৃদ্ধি         শনিবার গ্যাস থাকবে না রাজধানীর যেসব এলাকায়