সোমবার ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

বিএনপি ডিজিটাল বাংলাদেশ চায় না ॥ ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার/ সংবাদদাতা, নীলফামারী ও সৈয়দপুর॥ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি ডিজিটাল বাংলাদেশ চায় না। তারা এনালগ বাংলাদেশ চায়। বাংলাদেশকে পিছিয়ে রাখতে চায় তারা।

শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা শহরের ফাইভ স্টার মাঠে আওয়ামী লীগের কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপির রাজনীতি ক্ষমতার রাজনীতি, জনগণের রাজনীতি করেন না উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপি গরিবের দল নয়, লুটেরা কোটিপতির দল। এ কারণে তাদের এখন খরা চলছে সবখানে। কি নির্বাচন, কি আন্দোলন কোথাও বিএনপির জনসমর্থন নেই। তিনি আরও বলেন, শেখ হাসিনার সরকার গরিবের সরকার। যেকোন দুর্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আপনাদের পাশে আছেন, ভবিষ্যতেও থাকবেন। শীতে বন্যায় কষ্ট পেলেও বিএনপি মানুষের পাশে আসেন না। তারা ঢাকায় বসে নালিশ করেন।

ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ইভিএম প্রয়োগ নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, নির্বাচন কমিশন যা সিদ্ধান্ত নেবে আমরা সেটাতেই আছি। আমরা কোনটাতেই ভীত নই। কিন্তু বিএনপি নির্বাচনের আগেই ইভিএম নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। ভোটের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। ইভিএম একটি আধুনিক নির্বাচন ব্যবস্থা। ভোট অনুষ্ঠানের আগেই তারা কিভাবে প্রশ্ন তুলেন ?

দলীয় সূত্র জানায়, উত্তরাঞ্চলের রংপুর বিভাগের আট জেলায় আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ৫০ হাজার কম্বল বিতরণ করা হবে। অনুষ্ঠানে এসব কম্বল জেলা নেতৃবৃন্দের হাতে তুলে দিয়ে ওই অনুষ্ঠানে ৩ হাজার কম্বল বিতরণ করেন সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সেতুমন্ত্রী বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের সমালোচনা করে বলেন, উত্তরের জনপদে তার বাড়ি। তীব্র শীতে এ এলাকার জনগণ কষ্ট পাচ্ছে, অথচ তিনি ঢাকায় বসে শুধু সরকারের সমালোচনা নিয়ে ব্যস্ত আছেন। তিনি জনগণের পাশে নেই। বিএনপির গণজোয়ারের প্রমাণটা কোথায় পাব? নির্বাচনে অথবা আন্দোলনে। তাদের জোয়ারটা কোথায় এলো, আমরাতো দেখতে পাচ্ছি না। দেশের মানুষও দেখে নাই।

তিনি আরও বলেন, সরকার ও আওয়ামী লীগ শীতার্ত মানুষের পাশে রয়েছে। উত্তরের ৫০ হাজার মানুষকে শীতে কম্বল দেয়া হচ্ছে। মন্ত্রী উল্লেখ করে বলেন, উত্তরাঞ্চলের মানুষকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুব ভালবাসেন। এজন্য কেন্দ্রীয় কমিটিতে দু’জন নেত্রীকে স্থান দিয়েছেন তিনি। তিনি বিহারীদের পুনর্বাসনে সব ধরনের পদক্ষেপ নিচ্ছেন। আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাসিম, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি, ত্রাণ ও দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী ডাঃ এনামুর রহমান, সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আখতার হোসেন বাদল, সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক প্রমুখ। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য রাবেয়া আলীম, নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হকসহ ৯ জেলার আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। এর আগে মন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় নেতারা সৈয়দপুর বিমানবন্দরে পৌঁছলে তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। পরে মন্ত্রী সৈয়দপুর সড়ক ও জনপথ ডাকবাংলোতে রংপুর জোনের উন্নয়ন কার্যক্রমে কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

শীর্ষ সংবাদ: