ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯

তিন মাসেই মঙ্গলের পথ পাড়ি!

প্রকাশিত: ১১:১৯, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯

তিন মাসেই মঙ্গলের পথ পাড়ি!

মঙ্গলগ্রহে মানুষ পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। এজন্য অত্যাধুনিক নভোযান তৈরির কাজেও লেগে পড়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। বর্তমান মহাকাশযানে চড়ে মঙ্গলে যেতে প্রায় নয় মাস সময় লাগবে। এই দীর্ঘ সময়ের বাঁধা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা চালাচ্ছেন নাসার প্রকৌশলীরা। তারা বলছেন, পরমাণু বা বিদ্যুত শক্তিচালিত মহাকাশযান নির্মাণ করা গেলে মাত্র তিন মাসেই তা পৌঁছে যাবে মঙ্গলে! নাসার একদল বিজ্ঞানী বলেন, সৌরশক্তি ব্যবহার করে মঙ্গলগ্রহে মানুষ পাঠানোর আগে অন্যান্য সরঞ্জাম পাঠানো যেতে পারে। এতে জ্বালানি কম লাগলেও সময় লাগবে প্রায় দুই-আড়াই বছর। অন্য বিজ্ঞানীরা বলছেন, দ্রুত মঙ্গলে পৌঁছানোর একটি উপায় হচ্ছে, নিউক্লিয়ার থার্মাল ইলেকট্রিক প্রোপালশন বা পরমাণু শক্তিচালিত রকেট ইঞ্জিন। আরেকটি উপায়, ইলেকট্রিক আয়ন প্রোপালশন বা বিদ্যুত শক্তিচালিত ইঞ্জিন। প্রথমে রাসায়নিক জ্বালানিচালিত রকেট দিয়ে পৃথিবী থেকে নভোচারীদের নেয়া হবে ওরায়ন ক্যাপসুলে (নির্মাণাধীন পুনর্ব্যবহারযোগ্য নভোযান)। এটি আগে থেকেই চাঁদের কক্ষপথে থাকা একটি স্পেস স্টেশনের সঙ্গে যুক্ত হবে। সেখান থেকে আরেকটি ট্রান্সফার ভেহিকলের সঙ্গে যুক্ত হবে ওরায়ন এবং নভোচারীরা রওনা দেবেন মঙ্গলের উদ্দেশে। পারমাণবিক বিদ্যুতচালিত নভোযানটির ক্রু ক্যাপসুলে থাকবেন নভোচারীরা। সঙ্গে থাকবে ট্রান্সপোর্ট মডিউল। মঙ্গলের কক্ষপথে গিয়ে আরেকটি প্রদক্ষিণরত নভোযানের সঙ্গে পারমাণবিক বৈদ্যুতিক রকেটটি সংযুক্তির পর মঙ্গলপৃষ্ঠে তা অবতরণ করবে। -বিবিসি