শুক্রবার ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সংখ্যালঘু নির্যাতন নিয়ে ভারতের অভিযোগ সঠিক নয় ॥ মোমেন

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতন নিয়ে ভারত যে অভিযোগ এনেছে, তা সঠিক নয়। এদেশে কোন সংখ্যালঘু নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন না বলে জানান তিনি। বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি এ কথা বলেন। খবর বাংলানিউজের।

বাংলাদেশে সংখ্যালঘুরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন অভিযোগ এনে ভারত সংসদে নাগরিকত্ব বিল উত্থপান করেছে। এ পরিপ্রেক্ষিতে মন্তব্য জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতনের তথ্য সঠিক নয়। যারা এই তথ্য তাদের দিয়েছে, তারাও সঠিক তথ্য দেননি। আমি আশা করব বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের নেতৃত্ব এটা নিয়ে কথা বলবে। ড. মোমেন বলেন, ভারত ঐতিহাসিকভাবেই সহনশীল দেশ। ধর্মনিরপেক্ষ দেশ। সেখান থেকে তারা পিছিয়ে গেলে আরও দুর্বল হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশে কোন সংখ্যালঘু নির্যাতনের শিকার হচ্ছে না। আমরা এখানে সব ধর্মের লোক মিলেমিশে বসবাস করছি। আমরা স্লোগান দিচ্ছি ধর্ম যার যার উৎসব সবার। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে সোনালি অধ্যায়ের সূচনা হয়েছে। দুই দেশের মধ্যে সৌহার্দ্য বাড়ছে। আগামী দিনে দুই দেশের মধ্যে এই সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হবে বলে তিনি প্রত্যাশা করেন।

সুচির অধঃপতন দেখে দুঃখ পেয়েছি

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, মিয়ানমারের নেত্রী আউং সান সুচির অধঃপতনে দুঃখ পেয়েছি। আশা করছি, তার দিব্যজ্ঞান হবে। তিনি তার অবস্থান থেকে সরে আসবেন। বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন। সাক্ষাত শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ড. মোমেন বলেন, নোবেল বিজয়ী আউং সান সুচির মুক্তির দাবিতে আমি নিজেও বিক্ষোভ করেছি। তিনি গণতন্ত্রের আইকন ছিলেন। তবে, এখন তার অবস্থান দুঃখজনক। আমি নিজেও সুচির অধঃপতনে দুঃখ পেয়েছি। আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালতে (আইসিজে) সুচি জবাবদিহি করতে চলেছেন, এ প্রসঙ্গে অনুভূতি জানতে চাইলে ড. মোমেন বলেন, আশা করি, সুচি তার অবস্থান থেকে সরে আসবেন। তার দিব্যজ্ঞান হবে। তিনি আরও বলেন, রোহিঙ্গা গণহত্যা বিচারে আইসিজেতে (আন্তর্জাতিক বিচার আদালত) গাম্বিয়া লড়াই করছে। তাদের ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করি আমরা।

শীর্ষ সংবাদ:
১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত কুয়েট বন্ধ ঘোষণা         রামেক হাসপাতালে করোনা উপসর্গে ২ জনের মৃত্যু         বিশ্বের ৩০ দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ওমিক্রন         জনকন্ঠে সংবাদ প্রকাশের পর মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে বরাদ্দ আসছে         বিয়ের পিড়িতে দুই হাত হারানো ফাল্গুনী         রায়পুরায় অপহরণের ৬ দিন পর মিললো শিশু ইয়াছিনের লাশ         ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর রেকর্ডে আর্সেনালকে হারাল ইউনাইটেড         সমুদ্রবন্দরে ১ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত         ফটিকছড়িতে এক মাদক ব্যবসায়ী আটক         দিনাজপুরে বাল্যবিয়ে দেয়ার চেষ্টায় কাজী কারাগারে, বরের জরিমানা         রাজধানীর শেওড়াপাড়ায় মোটরসাইকেল আরোহীকে গুলি করে আহত         আফ্রিকার ৭ দেশ থেকে ফিরলেই নিজ খরচে কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক         মানুষকে আগামী বহু বছর ধরে কোভিডের টিকা নেবার প্রয়োজন হতে পারে ॥ ড. বুর্লা         মুন্সীগঞ্জে বিস্ফোরণে দগ্ধ ভাই-বোন নিহত ॥ মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বাবা-মা         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ৭ হাজার ৪২ জন         ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড ॥ আমিনবাজারে ছয় ছাত্র হত্যা         যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত         এইচএসসি পরীক্ষা শুরু, ১৪ লাখ পরীক্ষার্থী         ১৬ ডিসেম্বর শপথ করাবেন শেখ হাসিনা         আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা