মঙ্গলবার ১২ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

অতীতের ভুল শুধরে বিমানকে সামনে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয় জানালেন মোকাব্বির

স্টাফ রিপোর্টার ॥ অতীতে যেসব ভুল হয়েছে সেগুলো শুধরে বিমানকে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন এয়ারলাইন্সটির নবনিযুক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মোকাব্বির হোসেন। বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টায় বিমানের কর্পোরেট অফিস বলাকায় দায়িত্ব গ্রহণের পর সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এ সময় মোকাব্বির হোসেন বলেন, বিমানের মুনাফা ছাড়া আমার অন্য কোন এজেন্ডা নেই। বিমানকে এগিয়ে নিতে গণমাধ্যমের সহযোগিতা প্রয়োজন। এটি জাতীয় পতাকাবাহী প্রতিষ্ঠান। এটিকে এগিয়ে নিতে গণমাধ্যমকর্মীদের পরামর্শ প্রয়োজন। আপনাদের সহযোগিতায় বিমানকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত রবিবার মোকাব্বির হোসেন বিমানে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগ দেন। নতুন এমডি বলেন, আমি এখানে যোগ দিয়েছি এই প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করার জন্য। নিয়ম অনুযায়ী ব্যবসা ভাল করার চেষ্টা করব। আজ যে অবস্থায় আছি, বিদায়কালেও সেই জায়গায় থাকব। আমার হাইড এ্যান্ড সিক কিছু নেই। সবকিছুই ট্রান্সপারেন্ট। আমার মেধা, জ্ঞান ও শ্রম দিয়ে যেটি ভাল তার সর্বোচ্চটা করার চেষ্টা করব।

দুর্নীতি বন্ধ প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে মোকাব্বির হোসেন বলেন, কেউ আইনের উর্ধে নয়। অনেকেরই শাস্তি হচ্ছে, আরও অনেকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তাধীন রয়েছে। তবে বিচারাধীন সববিষয়ে কোন প্রশ্নের উত্তর দেয়া সম্ভব নয়।

নতুন আসা বোয়িং নিয়ে বিমান আগের পরিকল্পনা অনুযায়ী চলবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মোকাব্বির হোসেন বলেন, বোয়িং নিয়ে করা পুরনো পরিকল্পনা সংশোধন করতে হবে। কারণ এইখাতে প্রতিনিয়তই প্রকৌশল পাল্টাতে হয়। এটাই এই খাতের নিয়ম। এই খাতের প্রথম বিষয়ই হচ্ছে নিরাপত্তা। এরপর যাত্রীদের সময়মতো সুনির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছানো। যাত্রীসেবার মান বাড়ানোর জন্য অনেক পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। যাত্রীরা যেন আরামে ভ্রমণ করতে পারেন সেটা অগ্রাধিকার দিতে হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে মোকাব্বির বলেন, বিমানের নিরাপত্তা নিয়ে কোন প্রশ্ন নেই। যাত্রীসেবা বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। যাত্রীসেবা, নিরাপত্তা ও নির্ধারিত সময়ে পৌঁছানোই আমাদের সবচেয়ে বড় বিষয়। সংবাদ সম্মেলনে বিমানের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শীর্ষ সংবাদ:
ফটিকছড়িতে ভারতের দেওয়া লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্স হস্তান্তর         ‘বিএনপি অগণতান্ত্রিক পথে ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন দেখছে’         একনেকে ১০ প্রকল্প অনুমোদন         ব্রিটেনে পাঁচ বাঙালীর নামে পাঁচটি নতুন ভবন উৎসর্গ         ৪০২ দিন পর খেলতে নামলেন মাশরাফি         ইউক্রেন বিষয়ে পশ্চিমা নেতাদের সঙ্গে আলোচনা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর         প্রথমবারের মত দক্ষিণ কোরিয়ায় দৈনিক সংক্রমণ ৮ হাজার ছাড়িয়েছে         ভারতে গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ৭ মেডিকেল শিক্ষার্থী নিহত         ওমিক্রনে শিশুদের ঝুঁকি বাড়ছে         ‘জাতিসংঘে চিঠি শান্তিরক্ষা মিশনে প্রভাব ফেলবে না’         রাজশাহীতে করোনায় ৩ জনের মৃত্যু, শনাক্তের হার ৫৫.৭৮%         ক্যামেরুনের স্টেডিয়ামে খেলা চলাকালে হুড়োহুড়িতে ছয় দর্শকের মৃত্যু         এবার র‌্যাবকে নিষিদ্ধ করতে ইইউতে চিঠি         ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ দেশের তালিকায় বাংলাদেশ ১৩তম         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ৫ হাজার ৯২২ জন         ইন্দোনেশিয়ায় জাতিগত সংঘাতে ১৯ জন নিহত         কমতে পারে রাতের তাপমাত্রা         আজ বাংলাদেশ-রাশিয়া সম্পর্কের ৫০ বছর         আগুন যেন অপ্রতিরোধ্য ॥ একের পর এক দুর্ঘটনা ঘটেই চলেছে         শাবি ভিসির পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন অব্যাহত