রবিবার ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৩০৯ রানের টার্গেট দিলো পাকিস্তান

দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৩০৯ রানের টার্গেট দিলো পাকিস্তান

অনলাইন ডেস্ক ॥ লন্ডনের লর্ডসে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩০৮ রান সংগ্রহ করেছে পাকিস্তান।

আশার প্রদীপ জ্বালিয়ে রাখার ম্যাচে পাকিস্তানের শুরুটা হয় দুর্দান্ত। ফখর জামান ও ইমাম-উল-হকের ওপেনিং জুটিতে স্কোরবোর্ডে ৮৮ রান সংগ্রহ করে তারা। ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা এই জুটি ভাঙেন ইমরান তাহির।

ফখরকে (৪৪) হাশিম আমলার হাতে ক্যাচ বানান তাহির। পরের শিকারটিও প্রোটিয়া স্পিনারের। বাবর আজমকে নিয়ে এগোতে থাকা ইমামকেও (৪৪) ঘুর্ণিতে কাবু করেন তাহির। এরপর এইডেন মার্করামের এলবিডব্লউর ফাঁদে পড়েন মোহাম্মদ হাফিজ (২০)।

ইমামকে ফিরিয়ে একটি রেকর্ড গড়েছেন তাহির। বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি এখন তিনি। ৩৯ উইকেট নিয়ে পেছনে ফেলেছেন অ্যালান ডোনাল্ডকে। পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে ৩৭ উইকেট ছিল তাহিরের। ইংল্যান্ড ও ওয়েলস বিশ্বকাপে ৭ ম্যাচ ও ৬ ইনিংসে ১০ উইকেট নিয়ে সপ্তম স্থানে আছেন তিনি।

পাকিস্তানকে বড় সংগ্রহের পথে নেতৃর্ত্ব দেন বাবর আজম ও হারিস সোহেল। দু’জনে মিলে গড়েন ৮১ রানের জুটি। বাবর তুলে নেন ২০১৯ বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ফিফটি। তবে ইনিংসটি বড় করতে পারেন তিনি। ৬৯ রানের মাথায় আন্দিলে ফেলুকাওয়াওর বলে ক্যাচ তুলে দেন লুঙ্গি এনগিডির হাতে। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ৭ চারে।

এরপর ইমাদ ওয়াসিমকে নিয়ে বাকি কাজটি সারেন সোহেল। বিশ্বকাপে দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নেমে তুলে নেন প্রথম ফিফটি। তার ব্যাটে ভর করে তিনশ পেরোনো সংগ্রহ পায় পাকিস্তান। শেষ দিকে সেঞ্চুরি থেকে ১১ রান দূরত্বে থাকতে সোহেলকে থামান এনগিডি। তার ৫৯ বলে ৮৯ রানের ইনিংসটি সাজানো ছিল ৩ ছক্কা ও ৯ চারে।

অবশ্য সোহেলের আগে ইমাদকে (২৩) ফেরান এনগিডি। ওহাব রিয়াজকে (৪) নিজের তৃতীয় শিকার বানান এই প্রোটিয়া পেসার। শেষ দিকে অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ (২) ও শাদাব খান (১) অপরাজিত ছিলেন।

পয়েন্ট টেবিলের তলানির দিকের দুটি দল দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তান মুখোমুখি হয়েছে বিশ্বকাপের ৩০তম ম্যাচে। ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায়।

শীর্ষ সংবাদ:
অবিশ্বাস্য অর্জন ॥ বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল         বাসযোগ্য পৃথিবী গড়তে ঐক্য চাই         বঙ্গবন্ধুর শাসনব্যবস্থা নিয়ে গবেষণা করুন         ছাত্রলীগ নেতাসহ ৯ শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার         শক্তি হারিয়ে জাওয়াদ গভীর নিম্নচাপে পরিণত         সড়কে অনিয়মের বিরুদ্ধে লাল কার্ড প্রদর্শন শিক্ষার্থীদের         এলডিসি উত্তরণে ১০ বছরের মাস্টারপ্ল্যান         উন্নয়নে পাকিস্তান আমাদের ধারে কাছেও নেই         আমদানির জ্বালানি তেল আর লাইটারিং করতে হবে না         পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থা রাজধানীর ৮০ ভাগ ভবনে নেই         চট্টগ্রামে অটোরিক্সা-ডেমু ট্রেন-বাস সংঘর্ষে পুলিশসহ হত ৩         খালেদাকে বিদেশ নিতে কূটনৈতিক পাড়ায় বিএনপির দৌড়ঝাঁপ         আন্দোলনেই খালেদার বিদেশে চিকিৎসা নিশ্চিত করা হবে         বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় ঐক্যের বিকল্প নেই ॥ রাষ্ট্রপতি         করোনা ভাইরাসে আরও ৬ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৭৬         ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ ॥ সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত         বৈধ সরকারের পতন ঘটানো যাবে না: কৃষিমন্ত্রী         ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ ॥ সেন্টমার্টিন রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ ঘোষণা         কুয়েটের শিক্ষকের মৃত্যু ॥ ৯ শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার         ১৬ জানুয়ারি আমরা প্রধানমন্ত্রীকে নৌকা উপহার দেব ॥ আইভী