শুক্রবার ৭ কার্তিক ১৪২৮, ২২ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আন্তর্জাতিক পানি সম্মেলন ॥ নদীকে জীবন্ত সত্তার স্বীকৃতি দাবি

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ২৯ জানুয়ারি ॥ নদী নিয়ে কাজ করা দেশীয় ও আন্তর্জাতিক গবেষক এবং সরকারী-বেসরকারী কর্মকর্তারা নদী বাঁচাতে নদীকে জীবন্ত সত্তা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার দাবি জানিয়েছেন। তারা বলেছেন, অপরিকল্পিত উন্নয়ন, দখল, দূষণ করে নদী মেরে ফেলছি আমরা। কারণ নদীর অনুভূতিকে আমরা আমলে নেই না। নদীর নিজস্ব একটা সত্তা আছে সেটি আমরা ভাবি না। মঙ্গলবার কুয়াকাটায় বেলা ১১টায় হোটেল গ্রেভার-ইন মিলনায়তনে ‘রিভার: এ লিভিং বিয়িং’ নামের একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলেনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব দাবি ওঠে। আলোচকরা বলেন, নদীর অধিকার রক্ষায় নদীর মতো নদীকে থাকতে দিলে তার সত্তার স্বীকৃতি দিতে হবে।

দুদিনের আন্তর্জাতিক এ সম্মেলনের প্রথম দিনে মূল বিষয় তুলে ধরেন একশনএইড বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ্ কবির। তিনি বলেন, দখল-দূূষণসহ অপরিকল্পিত উন্নয়নে আমাদের নদীগুলো মরে যাচ্ছে। নদী মরে যাওয়ার নেতিবাচক প্রভাব পরছে আমাদের জীবন-জীবিকায়। নদীকে নদীর মতো থাকতে দিতে হবে। এছাড়া নদী বাঁচানো যাবে না।

শুরুতে ধারণাপত্রে বলা হয়, পানি এবং জীবন সমার্থক। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ পানির অধিকারকে মানবাধিকার হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। কিন্তু বিশ্বজুড়ে নদীর অধিকার এখনো ব্যাপকভাবে স্বীকৃতি পায়নি। দক্ষিণ এশিয়ায় শত শত নদী দ্বারা পরিবেষ্টিত। যেহেতু এ নদীগুলোর অধিকাংশই আন্তঃসীমান্ত নদী, তাই বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল এবং মায়ানমারে বসবাসরত মানুষের কাছে এসব নদীর পানি একটি সাধারণ প্রাকৃতিক সম্পদ। যা মানুষের জীবন-জীবিকার সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। ধারণাপত্রে বলা হয়, নদীরও অনুভূতি আছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অধ্যাপক আইনুন নিশাত বলেন, নদীকে বাঁচাতে হলে আমাদের নদীকে ভালভাবে বুঝতে হবে। নদী একটি জীবন্ত সত্তা। এই জীবন্ত সত্তাকে ভালভাবে বুঝতে হবে। এসব অনুধাবন করে নদী বিষয়ক প্রকল্প হাতে নেয়া প্রয়োজন। নদী মরে গেলে মানুষের ওপর তার প্রভাব পরলে তখন নদীর সত্তা বোঝা যায়। দখল, দূষণ, অপরিকল্পিত পরিকল্পনা এবং জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে নদীর অধিকার ও সত্তা আমার ধ্বংস করছি।

শীর্ষ সংবাদ:
রাজধানীতে মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে ৩৫ জনকে গ্রেফতার         চট্টগ্রামে মণ্ডপে হামলার ঘটনায় দশজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ         তালেবানকে জাতিসংঘে আসন না দেওয়ার আকুতি আফগান নারীদের         কক্সবাজারে আটক ইকবালকে কুমিল্লায় নেওয়া হচ্ছে         এক দিন পর হাসপাতাল থেকে প্রাসাদে ফিরলেন রনি এলিজাবেথ         ভারতে পাচারের সময় স্বর্ণের বারসহ একজন আটক         উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ১০, আহত ২০         জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস আজ         অভিনেতা শামীম ভিস্তি মারা গেছেন         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ৭ হাজার ১৮৬ জন         সুপার টুয়েলভে ॥ টাইগারদের চমৎকার নৈপুণ্য         সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে নজরদারি বাড়ান         জনকণ্ঠ ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম         বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ড সাকিবের         অবশেষে কুমিল্লাকাণ্ডের হোতা ইকবাল গ্রেফতার         মূল্যস্ফীতি বাড়ছে         হঠাৎ বন্যায় তিস্তাপাড়ে ১৫ হাজার মানুষ পানিবন্দী         শেখ হাসিনার হাতের ছোঁয়ায় উন্নত হচ্ছে রাজবাড়ী         সরকারের ধারাবাহিকতা থাকায় অভ‚তপূর্ব উন্নয়ন ॥ প্রধানমন্ত্রী