সোমবার ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

জিয়া ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ২৯ অক্টোবর

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আগামী ২৯ অক্টোবর বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে সোয়া তিন কোটি টাকা লেনদেনের মামলার রায় ঘোষণার তারিখ নির্ধারণ করেছে আদালত। এ মামলার চার আসামির মধ্যে ভয়াল একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী পলাতক রয়েছেন।

মঙ্গলবার ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ মোঃ আখতারুজ্জামান নতুন এই তারিখ নির্ধারণ করেন। প্রসঙ্গত, আট বছর আগে দুদকের দায়ের করা এ মামলার বিচারিক কার্যক্রমের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়েছে। এরপরই রায়ের নতুন এই তারিখ নির্ধারণ করেন বিচারক। ঢাকার পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের ভেতরে বসানো জজ আদালতের অস্থায়ী এজলাসে মামলাটির বিচারিক কার্যক্রম চলছে। কারাগারটির আরেকটি ভবনে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে জিয়া এতিমখানা দুর্নীতি মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি হিসেবে বন্দী রয়েছেন খালেদা জিয়া। জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলে খালেদা জিয়ার সর্বোচ্চ সাত বছরের সাজা হতে পারে বলে বলছেন দুদকের কৌঁসুলি এ্যাডভোকেট মোশাররফ হোসেন কাজল।

মঙ্গলবারের আদেশে বলা হয়, আসামিপক্ষ নানা কারণ দেখিয়ে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন নাই। কালক্ষেপণ করেছেন। সেজন্য প্রসিকিউশন যে আবেদন করেছে সে আবেদন মঞ্জুর করা হলো। আগামী ২৯ অক্টোবর এ মামলা রায় ঘোষণার দিন পর্যন্ত খালেদা জিয়া জামিনে থাকবেন। মামলায় যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের সুযোগ না থাকলেও ন্যায়বিচারের স্বার্থে আসামিপক্ষকে সুযোগ দেয়া হয়েছিল বলে আদেশে বলা হয়।

খালেদা জিয়ার অন্যতম আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া সাংবাদিকদের বলেন, বেআইনীভাবে এ আদেশ দেয়া হয়েছে। আমরা এ বিষয়ে উচ্চ আদালতে যাব।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সালের ৮ আগস্ট দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারী পরিচালক হারুনুর রশিদ সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতির এ মামলাটি দায়ের করেন।

তেজগাঁও থানার এ মামলায় ক্ষমতার অপব্যবহার করে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আত্মসাত করার অভিযোগ আনা হয় আসামিদের বিরুদ্ধে। তদন্তকারী কর্মকর্তা হারুন অর রশিদ ২০১২ সালের ১৬ জানুয়ারি খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন। ২০১৩ সালের ১৯ মার্চ অভিযোগ গঠনের মধ্যদিয়ে আসামিদের বিচার শুরু হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে ২০১৭ সালের ১ ডিসেম্বর আদালতে উপস্থিত হয়ে আত্মপক্ষ সমর্থনে নিজের বক্তব্য উপস্থাপন শুরু করেন খালেদা জিয়া। সেখানে নিজেকে খালেদা জিয়া সম্পূর্ণ নির্দোষ দাবি করে আদালতের কাছে সুবিচার চান।

খালেদা জিয়ার আবেদনের প্রেক্ষিতে কয়েক দফা এ মামলার বিচারক বদলে দেয় হাইকোর্ট। খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা নানাভাবে সময়ক্ষেপণ করে বিচার বিলম্বিত করছেন বলে অভিযোগ করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরীও এ মামলার আসামি। পলাতক হারিছ চৌধুরীকে ২১ অগাস্ট মামলার রায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। হারিছ চৌধুরীর তখনকার সহকারী একান্ত সচিব ও বিআইডব্লিউটিএ-এর নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান এ মামলায় কারাগারে রয়েছেন।

শীর্ষ সংবাদ:
শেখ রাসেলের হত্যাকারীরা নর্দমার কীট ও পশুতুল্য ॥ কৃষিমন্ত্রী         ‘শেখ রাসেল স্বর্ণপদক’ দিলেন প্রধানমন্ত্রী         অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বাংলাদেশ গড়তে চাই ॥ প্রধানমন্ত্রী         বিএনপি হত্যা-ষড়যন্ত্র-সাম্প্রদায়িক রাজনীতির বাহক ॥ কাদের         ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ॥ অবরোধ তুলে নিলেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা         ‘১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্তের ফসল’         ইভ্যালি পরিচালনায় বোর্ড গঠন করে দিলেন হাইকোর্ট         ঝিনাইদহে জাকির মন্ডল হত্যা মামলায় ৮ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড         ‘রাসেল মানবিক সত্তা হিসেবে সবার মাঝে বেঁচে আছেন’         ট্রেনে ভ্রমণরত শিশুদের উপহারসামগ্রী বিতরণ রেলমন্ত্রীর         সেই তুফানের জামিন বিষয়ে হাইকোর্টের রুল         সাবওয়া ও মা’রিব প্রদেশে অভিযান চালিয়ে অনেক ভূখণ্ড মুক্ত করল ইয়েমেনি বাহিনী         কেরালায় বন্যায় মৃত্যু বেড়ে ২৭, বহু নিখোঁজ         শেখ রাসেলের সমাধিতে আ’লীগের শ্রদ্ধা         সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত জারি         দক্ষিণ কোরিয়া গেলেন সেনাপ্রধান         শেখ রাসেল দিবস আজ, পালিত হবে জাতীয়ভাবে         গাইবান্ধায় রকি হত্যা মামলার মুল আসামী গ্রেফতার         দ্বিতীয় ধাপের ইউপি ভোটে ১৭ রাজনৈতিক দল         রাজধানীতে মাদকদ্রব্যসহ গ্রেফতার ৪২