ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯

সিরাজগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ৮ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: ২৩:০৫, ৩১ জুলাই ২০১৮

সিরাজগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ৮ জনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, সিরাজগঞ্জ ॥ সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কাদাই এলাকায় বিদ্যুতায়িত হয়ে ৮ জন নিহত এবং তিন জন গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিস্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নহতরা হলেন- কাদাই গ্রামের মেঘা শেখের ছেলে আব্দুস সাত্তার (৫০), তার ভাতিজা আব্দুল হামিদের ছেলে ছানোয়ার হোসেন (২৫), আবু তাহেরের ছেলে আব্দুল্লাহ (১৩), কাসেমের ছেলে মমিন (৩০), আব্দুল আলীমের ছেলে সজীব, আমিনুলের ছেলে রাজু (১৪), আবুল হোসেনের ছেলে হাবিব (২৪) ও মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে রফিকুল (৩০)। সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. ফরিদুল ইসলাম মৃত্যুর ঘটনা নিশ্চিত করেছেন। জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দিকা নিহত একেকজনের পরিবারকে ২৫ হাজার করে টাকা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। স্থানীয়রা জানান, কাদাই গ্রামে বর্ষার পানিতে একটি টঙ দোকান ডুবে যায়। দুপুরে স্থানীয় ১০-১২ জন দোকানটি উঠিয়ে অন্য স্থানে সরিয়ে নিচ্ছিলেন। এসময় পল্লী বিদ্যুতের একটি ছেড়া তার ওই দোকানের টিনের চালের ওপর পড়লে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে সবাই পানিতে পড়ে যান। পরে তারটি কেটে তাদের উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিলে একে একে আটজনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। নিহতদের মধ্যে চারজন তাঁত শ্রমিক, একজন ব্যবসায়ী ও তিনজন ছাত্র। এলাকার জনৈক আব্দুস সাত্তার একটি দোকান ঘর কিনে তা অন্যত্র সরিয়ে নেবার জন্য পরিবারের আত্বীয়-স্বজন মিলে চালা মাথায় নিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় টিনের চালার সাথে ২২০ ভোল্ট লাইনের তার বিঁদলে তা ছিড়ে পড়ে গোটা চাল বিদ্যুতায়িত হয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই চার জন এবং হাসপাতালে আনার পর আরো চার জন মারা যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তিনজনকে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিস্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। বিদ্যুৎ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী একেএম মহি উদ্দিন জানান, ২২০ ভোল্টের তারে স্পর্শ লেগে টিনের চালার আগাতে তার ছিড়ে এমন ঘটনা ঘটেছে।