ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

এবার ইউএস ওপেনে চোখ সেরেনার

প্রকাশিত: ০৭:০০, ৩০ জুলাই ২০১৮

  এবার ইউএস ওপেনে চোখ সেরেনার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সদ্য সমাপ্ত উইম্বলডনেই চমকে দিয়েছেন সেরেনা উইলিয়ামস। দুর্দান্ত খেলে টুর্নামেন্টের ফাইনালে জায়গা করে নেন তিনি। কিন্তু শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে জার্মানির এ্যাঞ্জেলিক কারবারের কাছে হেরে যান আমেরিকান তারকা। তবে গত সেপ্টেম্বরে মা হওয়ার পর উইম্বলডনে ফিরে ফাইনাল খেলাটাকেও বিস্ময়ের চোখে দেখছেন বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান এই তারকা। এ প্রসঙ্গে এক সাক্ষাতকারে সেরেনা উইলিয়ামস বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে এটা ছিল বিস্ময়কর এক মুহূর্ত।’ উইম্বলডনের ফাইনালে সেরেনা উইলিয়ামসকে থামিয়ে ক্যারিয়ারের তৃতীয় গ্র্যান্ডস্লাম জিতেন এ্যাঞ্জেলিক কারবার। এর ফলে টুর্নামেন্টের রানারআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় ৩৬ বছর বয়সী সেরেনাকে। তবে আমেরিকান টেনিসের এই জীবন্ত কিংবদন্তি দ্বিতীয় সেরাটাকে যথেষ্ট ভাল চোখে দেখেন না। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দ্বিতীয় স্থান কিংবা দ্বিতীয় সেরাটা আমার জন্য মোটেও যথেষ্ট ভাল নয়। জেতাটা সবসময়ই দুর্দান্ত ব্যাপার। অন্যদিকে হার মেনে নেয়াটা সবসময়ই কঠিন। কিন্তু আপনাকে সবসময়ই জয়ের জন্য প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে। আমার লক্ষ্যে পৌঁছার জন্য এটাই সঠিক পথ।’ সেরেনা উইলিয়ামসের জন্য গত বছরটা ছিল বেশ ঘটনাবহুল। বিয়ে এবং সন্তান লাভ করেন তিনি। সন্তান লাভের ১০ মাস পূর্ণ হওয়ার আগেই কোর্টে ফেরা এবং উইম্বলডনের মতো মেজর টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা! মোটেও সহজ ব্যাপার নয়। লস এ্যাঞ্জেলসের প্রতিবেদক স্যাম ফার্মার তাই তাকে বীরত্বের খেতাব দিয়েছেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সেরেনা উইলিয়ামসের জন্য এটা নতুন এক অধ্যায়। তবে এই সময়ে সেরেনাকে শুধু যে সহানুভূতিশীল দৃষ্টিতে দেখছেন তা নয় অনেকের কাছেই সেরেনা চরিত্রটা বীরত্বের। তার বয়সে সেরেনা উইলিয়ামস যা করছে তা সত্যিই নস্টালজিক।’ উইম্বলডনের ফাইনালিস্ট সেরেনার লক্ষ্য এখন ইউএস ওপেন। যা আগামী মাসেই শুরু হবে। তার আগে মুবুডালা সিলিকন ভেলি ক্ল্যাসিকে পারফর্ম করতে দেখা যাবে সেরেনা উইলিয়ামসকে। স্ট্যানফোর্ডের এই টুর্নামেন্টের তিনবারের চ্যাম্পিয়ন আমেরিকান তারকা। ২০১১-১২ মৌসুমে টানা দুইবার এই টুর্নামেন্টের শিরোপা জয়ের স্বাদ পান তিনি। ২০১৪ সালে শেষবারের মতো ব্যাংক অব দ্য ওয়েস্ট ক্ল্যাসিকের চ্যাম্পিয়ন হন তিনি। সেরেনার সামনে এবারও শিরোপা পুনরুদ্ধারের হাতছানি। উইম্বলডনের পর এই টুর্নামেন্টেই প্রথমবার অংশ নিচ্ছেন আমেরিকান তারকা। তারপর সেরেনার লক্ষ্য ইউএস ওপেন। ২৩ গ্র্যান্ডস্লাম জিতে ইতোমধ্যেই নিজেকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন সেরেনা উইলিয়ামস। তার সামনে এখন নতুন মাইলফলকের হাতছানি। আর মাত্র একটি গ্র্যান্ডস্লাম জিতলেই কিংবদন্তি মার্গারেট কোর্টের ২৪ গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের রেকর্ডে ভাগ বসাবেন সেরেনা। বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক শীর্ষ তারকাও হাঁটছেন সেই পথে। আমেরিকান তারকা কী পারবেন ইউএস ওপেনের শিরোপা জিতে মার্গারেট কোর্ট কে স্পর্শ করতে? ইএসপিএন-এর বিশ্লেষক এবং সাবেক টেনিস তারকা ম্যারি জো ফার্নান্দেজ এ ব্যাপারে দারুণ আশাবাদী। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সে যদি ইউএস ওপেনে চ্যাম্পিয়ন হয় তাহলে আমি মোটেও বিস্মিত হব না।’ সেরেনা অবশ্য জেতার নিশ্চয়তা দিচ্ছেন না কিন্তু লড়াইয়ের ঘোষণা দিয়েছেন ঠিকই। তার মতে, ‘এটা তো আমার জন্য কেবল সূচনা। আমাকে এখনও অনেক দূর যেতে হবে। তবে ইউএস ওপেনেও নিজের সেরাটা ঢেলে দেয়ার লক্ষ্য নিয়েই কোর্টে নামব।’ সেই পথে সেরেনার বড় বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেন এ্যাঞ্জেলিক কারবারই। কেননা উইম্বলডনের শিরোপা জিতে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা জার্মান তারকা যে ২০১৬ সালেও এই টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন হন। এছাড়া সেরেনার স্বদেশী স্লোয়ানে স্টিফেন্স কোর্টে নামবেন বর্তমান চ্যাম্পিয়নের তকমাটা গায়ে মেখে। কারবার-স্টিফেন্স ছাড়া রোমানিয়ার সিমোনা হ্যালেপ, ক্যারোলিন ওজনিয়াকি কিংবা মারিয়া শারাপোভার মতো তারকারাও নিশ্চিত ইউএস ওপেন জয়ের লক্ষ্য নিয়ে কোর্টে নামবেন।
monarchmart
monarchmart