সোমবার ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কেরানীগঞ্জে চলছে ঈদ বকশিশের নামে চাঁদাবাজি

নিজস্ব সংবাদদাতা, কেরানীগঞ্জ, ৫ জুন ॥ ঈদকে সামনে রেখে চলছে অভিনব কায়দায় চাঁদাবাজি। ঈদের বকশিশ, ঈদি, কাসিদা পার্টির নামে বাসা বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চলছে এই চাঁদাবাজি। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের নাম ভাঙ্গিয়ে ঈদ কার্ড বিলি করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে নেয়া হচ্ছে চাঁদা। ফুটপাথ ও যানবাহন থেকে চাঁদা তুলছেন পুলিশের কিছু অসাধু সদস্য। কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী রাজনৈতিক সংগঠনের নামে ঈদ বকশিশ বলে চাঁদা তোলা হচ্ছে বেশি। ঈদ বকশিশের নামে বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঈদের শুভেচ্ছা পৌঁছে দিচ্ছেন। একই সঙ্গে তারা ঈদ বকশিশ দাবি করছেন। প্রতিষ্ঠান ভেদে এই বকশিশের পরিমাণ নির্ধারণ করে দিচ্ছেন তারা। তাছাড়া গ্যাস, বিদ্যুত, টেলিফোনসহ বিভিন্ন সেবা প্রতিষ্ঠানের সবাই এ নিয়েই ব্যস্ত হয়ে পড়ে। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী থেকে শিল্পপতিরা হয়ে যান তাদের টার্গেট। ঈদ এলেই কেরানীগঞ্জে বকশিশের নামে শুরু হয় চাঁদাবাজির প্রতিযোগিতা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আলম টাওয়ারের এক গার্মেন্টস ব্যবসায়ী বলেন, ঈদ বকশিশের নামে শুরু হয়েছে উপরি আদায় আর চাঁদাবাজি। মস্তানরা নানা অজুহাতে সারা বছরই চাঁদা আদায় করে থাকে। কিন্তু ঈদ মৌসুমে তা বেড়ে যায় কয়েক গুণ। তারা বাড়তি ইনকামের জন্য এই সময়টাকে কাজে লাগিয়ে লাখ লাখ টাকা চাঁদা আদায় করছে। ভুক্তভোগী এক ব্যবসায়ী বলেন, চাঁদাবাজরা টেলিফোন করে চাচা, কাকা, মামা বা ভাইজান এই ধরনের সম্বোধন করে বলে ঈদ তো এসে গেল, কিছু ব্যবস্থা করে রাখবেন। সহজ কথায় না বুঝলে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখানো হয়। যে ব্যবসায়ী যত বড় তার কাছে তত বেশি বকশিশ বা চাঁদা দাবি করা হয়।

অন্যদিকে যে মস্তান যত বড় তার নজরানার পরিমাণও তত বেশি। ব্যবসায়ীরাও ঝামেলা এড়াতে সমঝোতা করে কম-বেশি চাঁদা দিয়ে দেন। এ মৌসুমে ঝোপ বুঝে কোপ মারতে ওস্তাদ পুলিশরাও। কার কাছে কিভাবে বকশিশ চাইতে হবে তা তাদের ভাল করেই জানা। আর যদি কারও বিরুদ্ধে কোন মামলা বা অভিযোগ থাকে তবে তো কোন কথাই নেই। তিলকে তাল বানিয়ে পকেট ভারি করতে তাদের সময় লাগে না। পূর্ব আগানগরের এক তৈরি পোশাক ব্যবসায়ী বলেন, সাদা পোশাকে কয়েক সদস্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে এসে গেছেন। আর বলে গেছেন, এবারে ঈদের বকশিশের অঙ্কটাও একটু বেশি দেয়ার জন্য। আবদারের সুরে বলেছেন, জিনিসপত্রের দাম বেড়ে গেছে। তার ওপর পরিবার পরিজন নিয়ে ঈদ তো করতে হবে। চর কালিগঞ্জ এলাকার এক ডাইং ব্যবসায়ী বলেন, সন্ত্রাসীরা আমার কাছে ২শ’ শাড়ি দাবি করেছে। তারা নাকি গরিবদের মাঝে বিলি করবে। এখন আমি পড়েছি বিপাকে আমার কাজ কাপড়ে রং করা, আমি এখন শাড়ি কোথায় পাই। জিনজিরা বাজার এলাকার ফুটপাথে ঈদ পোশাক বিক্রেতাদের অভিযোগ আমাদের কাছে প্রতি ব্যবসায়ী হিসেবে ২ হাজার টাকা ঈদ বকশিশ দাবি করে গেছে। আর বলে গেছে, আমরা ওমুক ইউনিয়নের তমুক লীগের নেতা। ২৫ রজমানে আসব টাকা রেডি করে রাখিস। সংবাদ মাধ্যমে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ব্যবসায়ী বলেন, মোবাইলে সেভ করা নম্বর ছাড়া অপরিচিত নম্বরের কল ধরি না। উপরি বা বকশিশ যে যাই বলুক না কেন? ঈদ এলেই শুরু হয়ে যায় মৌসুমি চাঁদাবাজি।

ঈদ যতই ঘনিয়ে আসতে শুরু করেছে ততই এই ঈদ নামের উপরি আদায়ের ঈদ বকশিশের মৌসুমি চাঁদাবাজির হিড়িক বাড়ছে। এ ব্যাপারে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাকের মোহাম্মদ জুবায়ের হোসেন বলেন, ঈদ বকশিশের নামে চাঁদা আদায়ের কোন অভিযোগ এখনও পাইনি। যদি এ ধরনের কোন তথ্য পাওয়া যায় তবে সঙ্গে সঙ্গে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শীর্ষ সংবাদ:
পেট্রোবাংলার নতুন চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান         আড়াইহাজারে আগুনে দুই শিশুসহ একই পরিবারের চারজন দগ্ধ         এক প্রতিষ্ঠানের ২৭৫ কোটি টাকা ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগ         ডেঙ্গু : ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৫৬         বাংলাদেশ-ভারতের অংশীদারত্ব চুক্তিতে সীমাবদ্ধ নয় : প্রধানমন্ত্রী         করোনা : ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৪         তথ্য প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য ব্যক্তিগত, দলের নয় ॥ কাদের         কাটাখালীর বিতর্কিত মেয়র আব্বাস তিন দিনের রিমান্ডে         ভারতের সঙ্গে আমাদের রক্তের সম্পর্ক ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী         বৃষ্টিতে ভেসে গেল ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা         গুণগত মান ভালো না হলে চাল গুদামে ঢুকবে না ॥ খাদ্যমন্ত্রীর সতর্কবার্তা         সুদানে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ॥ অন্তত ২৪ জন নিহত         জাওয়াদ’র প্রভাবে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি         বৃষ্টি উপেক্ষিত, মুখে কালো কাপড় বেঁধে রাজপথে শিক্ষার্থীরা         সু চির ৪ বছরের সাজা         তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদের পদত্যাগ দাবি ফখরুলের         শিশু তামীমকে তাৎক্ষণিক ৫ লাখ দেওয়ার নির্দেশ, ১০ কোটি দিতে রুল         স্কুলে ভর্তি ॥ বেসরকারীর তুলনায় সরকারী স্কুলে দ্বিগুণ আবেদন         বেড়িবাঁধ ভাঙ্গা স্থান দিয়ে ঢুকছে পানি ॥ রবিশস্যের ব্যাপক ক্ষতির শঙ্কা         চকরিয়ায় বন্দুকযুদ্ধে দুই ডাকাত নিহত