ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

জাতীয়করণ

বগুড়ায় দুই কলেজ নিয়ে রশি টানাটানি

প্রকাশিত: ০৬:৩৮, ২৯ এপ্রিল ২০১৮

বগুড়ায় দুই কলেজ নিয়ে রশি টানাটানি

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস ॥ বগুড়ার শাজাহানপুরের ডেমাজানির একটি বেসরকারী কলেজকে জাতীয়করণ নিয়ে দুই কলেজের মধ্যে রশি টানাটানি শুরু হয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির নাম ‘কমরউদ্দিন ইসলামিয়া কলেজ’। বিরুদ্ধে অবস্থানকারী দুবলাগাড়ি ডিগ্রী কলেজ পক্ষ বলছে : কমরউদ্দিন ইসলামিয়া কলেজটি বিতর্কিত ব্যক্তিদের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত। আরেক পক্ষ, কমরউদ্দিন ইসলামিয়া কলেজের সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সাইদুজ্জামান তারা জানাচ্ছেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকারের প্রথম দফার শাসনামলে ১৯৯৬ সালে সরকারী অর্থায়নে কলেজের তিন তলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হয়। বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কলেজটি জাতীয়করণে সম্মতি প্রকাশ করেছেন। তারপর থেকেই একই দুবলাগাড়ি ডিগ্রী কলেজের গবর্নিং বডির সভাপতি তালেবুল ইসলাম কমরউদ্দিন ইসলামিয়া কলেজকে সরকারীকরণের সম্মতির প্রস্তাবনার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে নানা ধরনের মন্তব্য করছেন। এই বিষয়ে কমরউদ্দিন ইসলামিয়া কলেজের সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সাইদুজ্জামান তারা বলেন, তার দাদা ডাঃ কমরউদ্দিন (যার নামে কলেজ) ১৯৪৫ সালে ইন্তেকাল করেছেন। তার বিরুদ্ধেই অবস্থান নিয়েছে প্রতিপক্ষ। পরবর্তী সময়ে তার (সাইদুজ্জামান) চাচা অধ্যাপক আব্দুল বারী ১৯৮৬ সালে শাজাহানপুরের ডেমাজানিতে ‘কমরউদ্দিন ইসলামিয়া টেকনিক্যাল কলেজ’ প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১০ সালে মুক্তিযোদ্ধা সাইদুজ্জামান তারা এই কলেজের সভাপতি থাকা অবস্থায় ডিগ্রী খোলার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নিয়ে কলেজের নামকরণ থেকে ‘টেকনিক্যাল’ শব্দটি বাদ দিয়ে ‘কমরউদ্দিন ইসলামিয়া কলেজ’ নামকরণ করেন। এরপর কলেজটি জাতীয়করণের কার্যক্রম শুরু হয়। সর্বশেষ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কলেজটিকে জাতীয়করণের সম্মতি দিয়েছেন। তারপর হতেই দুবলাগাড়ি ডিগ্রী কলেজের গবর্নিং বডির সদস্যরা ডেমাজানি কলেজের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। তাদের কথা দুবলাগাড়ি ডিগ্রী কলেজের প্রতিষ্ঠাতাম-লীর মধ্যে মোঃ খলিলুর রহমান খান, মৃত মাহবুবুর রহমান, রাজিবুল ইসলাম, মৃত মনসুর রহমান মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। কলেজটি গত বছর জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে উপজেলার শ্রেষ্ঠ কলেজের স্বীকৃতি পায়।
monarchmart
monarchmart