ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১

ক্রিস গেইলের পর ওয়াটসন ঝড়

প্রকাশিত: ০৭:১৭, ২২ এপ্রিল ২০১৮

ক্রিস গেইলের পর ওয়াটসন ঝড়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এবারের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগটা (আইপিএল) যেন বুড়ো আর দলছুট ক্রিকেটারদের। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর ছুড়ে ফেলা ক্রিস গেইল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন প্রায় ৩৯ বছর বয়সে। যেটি এবারের আসরের প্রথম সেঞ্চুরি। দু’দিন বাদে দ্বিতীয় সেঞ্চুরিটা তুলে নিলেন আরেক ‘বুড়ো’ শেন ওয়াটসন। শুক্রবার ৩৬ বছর ৩০৭ দিন বয়সে ১০৬ রানের ম্যারাথন ইনিংস খেলে জেতালেন নতুন দল চেন্নাই সুপার কিংসকে। সেটিও কিনা তার পুরনো ফ্রাঞ্চাইজি রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে। পুনের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট এ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে আক্ষরিক অর্থেই ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছিলেন সাবেক অস্ট্রেলিয়ান। ৫৭ বলে তার ৯ চার ও ৬ ছক্কায় সাজানো ইনিংসের সৌজন্যে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ২০৪ রানের বিশাল স্কোর গড়ে চেন্নাই। এরপর রাজস্থানকে ১৪০-এ গুঁড়িয়ে দিয়ে আসরে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে তৃতীয় জয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে আসে মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি চেন্নাই সুপার কিংস এবারের নিলামে তারুণ্যের তুলনায় অভিজ্ঞতায় মনোযোগ দিয়েছিল। তাই দুই বছর পর ফেরা দলটির স্কোয়াডে বয়স্ক খেলোয়াড়দের সংখ্যাই বেশি। কোচ স্টিফেন ফ্লেমিং জানিয়েছিলেন, ম্যাচ জয়ে তরুণদের তুলনায় অভিজ্ঞদের ভূমিকাই গুরুত্বপূর্ণ। শুক্রবার কোচের সেই কথার প্রমাণই দিয়েছেন দলটির অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার শেন ওয়াটসন। ব্যাট হাতে দারুণ সেঞ্চুরি, বল হাতে উইকেট নিয়ে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে জিতিয়েছেন দলকে। জানিয়েছেন আইপিএলের প্রতিটি মুহূর্ত উপভোগ করছেন। এটি আইপিএলে তার তৃতীয় আর ক্যারিয়ারে চতুর্থ টি২০ সেঞ্চুরি। তাও এমন দলের বিপক্ষে যার সঙ্গে জড়িয়ে আছে ওয়াটসনের সব অর্জন। ২০০৮ সাল থেকে রাজস্থান নিষিদ্ধ হওয়ার আগ পর্যন্ত এই ফ্র্যাঞ্চাইজিটির হয়ে খেলেছেন ওয়াটসন। তাদের হয়ে আইপিএলে দুটি সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। এমনকি রাজস্থানের পক্ষে আইপিএলে সর্বোচ্চ রান, সবচেয়ে বেশি উইকেট, সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর, সর্বোচ্চ ব্যাটিং গড় ও সবচেয়ে বেশি ছক্কার রেকর্ড তারই। তবুও এ বছর আইপিএলে ফিরে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি দলে নেয়নি ওয়াটসনকে। এর জবাবই তিনি যেন দিলেন প্রথম দেখাতেই দুর্দান্ত সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে। তবে এসব মাথায় রাখেননি সাবেক এই অসি তারকা। কারণ তিনি জানেন ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের ধরনটাই এমন। বরং তিনি কৃতজ্ঞ, ‘আমি ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের বাস্তবতা বুঝি। আমাকে দলে না নেয়ার পেছনে রাজস্থানের অবশ্যই নিজস্ব কারণ আছে। শেষ পর্যন্ত এর উদ্দেশ্য ব্যবসা। তবে ২০০৮ সালে যখন ইনজুরির কারণে দলে জায়গা পাওয়া আমার জন্য কঠিন ছিল তখন তারা আমায় নিয়েছিল।’ নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি চেন্নাইয়ে এসে ব্যাটিংয়ে ওপেন করছেন, বল করছেন। অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি ও কোচ ফ্লেমিংয়ের কাছ থেকে এই অলরাউন্ড ভূমিকায় খেলার সুযোগ পেয়ে দারুণ খুশি ওয়াটসন, ‘এমএসডি (ধোনি) ও স্টিফেন ফ্লেমিং যে দায়িত্ব আমায় দিয়েছেন তার প্রতিটি মিনিট আমি উপভোগ করছি।’
×