রবিবার ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ব্যক্তিখাতে বিনিয়োগ বাড়ানোর পরামর্শ সিপিডির

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ আয়মুখী কর্মসংস্থান বাড়াতে ব্যক্তিখাতের বিনিয়োগ বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছে সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি)। সংস্থাটির মতে, প্রবৃদ্ধি বাড়ার পেছনে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয়েছে সরকারী বিনিয়োগ। তবে কর্মসংস্থান ও উৎপাদন বাড়াতে বেসরকারীখাতের বিনিয়োগ বৃদ্ধি হওয়া প্রয়োজন।

মঙ্গলবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে চলতি অর্থবছরের বাজেট পর্যালোচনা ও আগামী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাবনা বিষয়ে বক্তব্য রাখেন সিপিডি’র সম্মানিত ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য। এ সময় সিপিডি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুন, গবেষণা পরিচালক ড. খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া সিপিডি ফেলো মোস্তাফিজুর রহমান, সিপিডি’র সিনিয়র রিচার্স এ্যাসোসিয়েট উম্মে সেফা রেজবানা, মোস্তফা আমির সাবিহা, মুনতাসির কামাল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। সিপিডি’র রিসার্চ ফেলো তৌফিকুল ইসলাম খান আগাম বাজেট নিয়ে ‘স্টেট অব দ্য বাংলাদশ ইকোনমি ২০১৭-১৮’ এর ওপর ভিত্তি করে আসছে ২০১৮-১৯ বাজেটে নানা সুপারিশ উপস্থাপন করেন। ওই সময় দেশের ব্যাংকিংখাতের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়েও খোলামেলা কথা বলেন দেবপ্রিয়। তিনি বলেন, ব্যাংকিংখাত এখন এতিমে পরিণত হয়েছে। এই এতিম ব্যাংকে রক্ষকরা নির্যাতন চালাচ্ছে বলে মনে করেন তিনি। বাংলাদেশ ব্যাংক মুদ্রানীতি ঘোষণা করে। অথচ বাংলাদেশ ব্যাংক ঘোষিত মুদ্রানীতি নিজেরাই মানে না বলে অভিযোগ রয়েছে তার। তিনি বলেন, এই খাতকে বাংলাদেশ ব্যাংক বিকলাঙ্গ করে রেখেছে। ব্যাংক থেকে টাকা নিয়ে দেয়া হয় না। দেশে খেলাপী ঋণ বেড়েই চলেছে।

আগামী নির্বাচন সামনে রেখে শেয়ারবাজার আবারও অস্থিতিশীল হয়ে উঠেছে বলে মন্তব্য করেন ড. দেবপ্রিয়। তিনি বলেন, ব্যক্তিখাতে বিনিয়োগ তিন বছর স্থবিরতা দেখা দিয়েছে। জিডিপি প্রবৃদ্ধি হচ্ছে সরকারী বিনিয়োগের ফলে। এতে দেশে আয়হীন কর্মসংস্থান দেখা যাচ্ছে। এতে করে প্রবৃদ্ধির সুফল সাধারণ মানুষের কাছে যাচ্ছে না। আয়মুখী কর্মসংস্থানে ব্যক্তিগত বিনিয়োগ বাড়ানোর তাগিদ দেন তিনি।

বাজেট ঘাটতি প্রসঙ্গে দেবপ্রিয় বলেন, গত বছর ৪২ হাজার কোটি টাকা বাজেট ঘাটতি হবে বলেছিলাম। শেষ পর্যন্ত ৪৩ হাজার কোটি ঘাটতি বাজেট হয়েছিল। এবার এটা ৫০ হাজার কোটি ছাড়াবে।

দেবপ্রিয় আরও বলেন, প্রবৃদ্ধির হার নিয়ে তর্কবিতর্ক হতেই পারে। কিন্তু ফল যা দেখা যাচ্ছে, তাতে মনে হয় দেশে আয়হীন কর্মসংস্থান বাড়ছে। ব্যক্তি খাতের বিনিয়োগ জিডিপির তুলনায় তিন বছর ধরে একই জায়গায় আটকে আছে। মুদ্রানীতিতে ঋণের লক্ষ্যমাত্রা ১৬ দশমিক ৫ ছাড়িয়ে ১৮ দশমিক ৫ শতাংশ হয়েছে। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন তাহলে এত টাকা গেল কোথায়? ব্যক্তি খাতে ব্যাংক থেকে এত টাকা ঋণ আকারে যাওয়ার পরও কেন বিনিয়োগ বাড়ল না। এই বিষয়ে অস্পষ্টতা রয়েছে বলে মনে করছে সিপিডি।

শীর্ষ সংবাদ:
সরকার পরিবর্তনের একমাত্র উপায় নির্বাচন ॥ কাদের         হাজি সেলিমকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ আদালতের         ভারত থেকে গমের জাহাজ এলো চট্টগ্রাম বন্দরে, কমছে দাম         পেছাচ্ছে না ৪৪তম বিসিএস প্রিলি         কোভিড-১৯ : ভারত-ইন্দোনেশিয়াসহ ১৬ দেশের হজযাত্রীদের দুঃসংবাদ         অর্থনীতি সমিতির ২০ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকার বিকল্প বাজেট পেশ         পরিবেশ রক্ষায় যত্রতত্র অবকাঠামো করা যাবে না ॥ প্রধানমন্ত্রী         ‘বিশ্বজুড়ে আরও মাঙ্কিপক্স শনাক্তের আশঙ্কা’         ২০২৩ সালের জুনেই ঢাকা-কক্সবাজার ট্রেন যাবে         রাজধানীর গুলশানে দারিদ্র্য কম, বেশি কুড়িগ্রামের চর রাজিবপুরে         জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন, গ্রেফতার ২         পতনে নাকাল শেয়ারবাজার, দিশেহারা বিনিয়োগকারীরা         হাইকোর্টে নর্থ সাউথের ট্রাস্টি বেনজীরের অগোচরে আদালত চত্তর ছাড়ার চেস্টা         সর্বনিম্ন ২৫ হাজার টাকা বেতন চান সরকারি কর্মচারীরা         নরসিংদীর বেলাবতে মা ও দুই সন্তানের লাশ উদ্ধার ॥ আটক ৩         খুলনায় বিস্ফোরক মামলায় ২ জঙ্গীর ২০ বছরের কারাদণ্ড         চার মাসে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত ৬ লাখ ৭৭ হাজার         সৌদিতে প্রথমবার নারী ক্রু নিয়ে আকাশে উড়ল প্লেন         ‘৬০ শতাংশ পুরুষ নারীর নির্যাতনের শিকার’         বাজেটের আগেই বেড়ে গেলো সিগারেটের দাম