ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

ফরিদপুরে ছাত্রীর মৃত্যু ॥ চিকিৎসকের সন্দেহ নিপা ভাইরাসে

প্রকাশিত: ০৬:৩৩, ২৯ মার্চ ২০১৮

ফরিদপুরে ছাত্রীর মৃত্যু ॥ চিকিৎসকের সন্দেহ নিপা ভাইরাসে

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর, ২৮মার্চ ॥ রাবি আক্তার (১৩) নামে এক স্কুলছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে নিপাহ্ ভাইরাস জনিত কারণে বলে সন্দেহ করেছেন চিকিৎসক। তবে রোগটি শনাক্ত করার কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি। মৃত্যুবরণকারী রাবি আক্তার সদরপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের চৌদ্দরশি গ্রামের শেখ রব্বানীর মেয়ে। তিন বোনের মধ্যে সে বড়। সে (রাবি) সদরপুর বেগম কাজী জেবুন্নেছা সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী ছিল। রাবেয়া আক্তারের মা চায়না বেগম জানান, গত ২১ মার্চ কয়েক দিন আগে রাবি ভাঙ্গা উপজেলার হামেরদী ইউনিয়নের ভীমেরদিয়া গ্রামে তার মামা মোঃ হান্নান মাতুব্বরের বাড়িতে বেড়াতে যায় । ওই সময় খেজুর রস পান করেছিল। গত ২৩ মার্চ সকালে বাড়িতে ফিরে আসে রাবি। খেজুরের রস খাওয়ার পর থেকে রাবির মাথা ব্যথা ও বমি হচ্ছিল। চোখও হলুদ হয়ে গিয়েছিল। চায়না বেগম বলেন, গত সোমবার রাত ৩টার দিকে অত্যধিক বমি হওয়ায় মঙ্গলবার সকালে সদরপুর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল কর্মকর্তা মোঃ ফরিদ আহামেদের বাসার চেম্বারে রাবিকে নিয়ে আসি। চিকিৎসক রাবিকে জরুরী বিভাগে হস্তান্তর করেন। সেখান থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণের জন্য বলা হয়। পরে হাসপাতাল থেকে ফরিদপুরের উদ্দেশ্যে গাড়িতে ওঠানো হলে রাবেয়া নিশ্বাস নেয়া বন্ধ করে দেয়। তাৎক্ষণিক উপজেলা স্বাস্থ্য চিকিৎসক ইসিজি করতে বলেন। ইসিজি রিপোর্ট দেখানো হয় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রাবেয়াকে ফরিদপুর মেডিক্যাল হাসপাতালে হস্তান্তরের পরামর্শ দিয়ে আবাসিক চিকিৎসক মোঃ ফরিদ আহামেদ রোগের সম্ভাব্য কারণ হিসেবে নিপাহ ভাইরাস জনিত জটিলতার কথা উল্লেখ করেছেলিন। ওই লেখার ব্যাখ্যা দিয়ে মোঃ ফরিদ আহামেদ বলেন, নিপাহ্ ভাইরাস ব্রেন ইনফেকশনজনিত রোগ। রাবেয়ার ব্রেনে ইনফেকশন হয়েছিল। তিনি বলেন, সদরপুর ও ভাঙ্গা এলাকা নিপাহ্ ভাইরাসপ্রবণ এলাকা।