ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

আগামী নির্বাচন হবে অবাধ ও নিরপেক্ষ ॥ তোফায়েল

প্রকাশিত: ০৫:৫৪, ১৫ মার্চ ২০১৮

আগামী নির্বাচন হবে অবাধ ও নিরপেক্ষ ॥ তোফায়েল

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভোলা, ১৪ মার্চ ॥ বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, অতীতের মতো ভোটের বাক্স কাড়াকাড়ি করে নির্বাচনের দিন শেষ হয়ে গেছে। আগামী নির্বাচন হবে অবাধ, নিরপেক্ষ এবং বর্তমান ক্ষমতাসীন দলের অধীনে। প্রধনমন্ত্রী থাকবেন শেখ হাসিনা। পৃথিবীর সব দেশেই এর রকম নিয়ম। যারা বলে তত্ত্বাবধায়ক সরকার চাই, সহায়ক সরকার চাই; তাদের এই স্বপ্ন কখনও পূরণ হবে না। এই সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে। আগামী নির্বাচন হবে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য। নির্বাচন পরিচালনা করবে নির্বাচন কমিশন। বুধবার বিকেলে ভোলার বাংলাস্কুল মাঠে ভোলা পৌর আওয়ামী লীগ আয়োজিত সদস্য সংগ্রহ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তোফায়েল আহমেদ এসব কথা বলেন। আওয়ামী লীগের সদস্য সংগ্রহের এই সমাবেশ উপলক্ষে দুপুর থেকে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ড থেকে দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকসহ কয়েক হাজার নারী -পুরুষ ঢোলবাদ্য বাজিয়ে সমাবেশে যোগ দেয়। এক পর্যায়ে সমাবেশটি জনসভায় পরিণত হয়। সমাবেশ শুরুর আগেই বাংলাস্কুল মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। এক পর্যায়ে মানুষজন রাস্তায় অবস্থান নেয়। গত ১০ মার্চ থেকে বাণিজ্যমন্ত্রী টানা ৫ দিন তার নিজ নির্বাচনী এলাকা ভোলা সদর উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন এবং ভোলা পৌরসভায় আওয়ামী লীগের সদস্য নবায়ন ও নতুন সদস্য সংগ্রহ সমাবেশ ও ভোলা সদর উপজেলার ইলিশায় ৩টি ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। এতে ভোলার তৃণমূল পর্যায়ে নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ, উদ্দীপনা ও নির্বাচনী আমেজ ছড়িয়ে পড়ে। এসব সমাবেশে দলীয় নেতাকর্মীর পাশাপাশি দলমত নির্বিশেষে সাধারণ মানুষেরও ঢল নামে। তবে উল্লেখ করার মতো বিষয় হচ্ছে, প্রতিটি সমাবেশে নারী ভোটারদের অংশ গ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো। বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে ডিজিটালে রূপান্তরিত করেছেন। ২০২১ সালে হবে ডিজিটাল মধ্যম আয়ের দেশ এবং আমরা হব স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশ। মন্ত্রী বলেন, আমরা যখন ক্ষমতায় এসেছি তখন দারিদ্র্যের সংখ্যা ছিল ৪৬ শতাংশ। এখন দারিদ্র্যের সংখ্যা ২২। হতদরিদ্রের সংখ্যা এখন ১১। ২০৩০ সালে শূন্যের কোঠায় নেমে আসবে। মন্ত্রী বলেন, সকল দিক থেকে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল করে আন্তর্জাতিক বিশ্বে আমাদের মর্যাদার আসনে আসীন করেছেন। তিনিও মর্যাদাশালী হয়েছেন। মন্ত্রী বলেন, ইতোপূর্বে ভোলায় বিএনপির মেজর হাফিজ উদ্দিন পানিসম্পদমন্ত্রী এবং মরহুম মোশারেফ হোসেন শাজাহান পনিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। ভোলা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজিবুল্লাহ নাজুর সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মমিন টুলু, ভোলার পৌর মেয়র ও জেলা যুবলীগের সভাপতি মনিরুজ্জামান মনির, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশারেফ হোসেন, পৌর আওয়ামী লীগ সম্পাদক শাহ আলী নেওয়াজ পলাশ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এ্যাডভোকেট জুলফিকার আহমেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকিব, এনামুল হক আরজু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক নজরুল ইসলাম গোলদার, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ইউনুছ, মইনুল হোসেন বিপ্লব প্রমুখ।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২

শীর্ষ সংবাদ: