শনিবার ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

কলম্বিয়ার হয়ে দারুণ কিছু করতে চান ফ্যালকাও

কলম্বিয়ার হয়ে দারুণ কিছু করতে চান ফ্যালকাও

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নিজেদের অঞ্চলে বিশ্বকাপ। ১৬ বছর পর অবশেষে আবার মর্যাদার বিশ্বকাপ ফুটবলে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে কলম্বিয়া। দলকে এমন একটি গৌরব ফিরিয়ে দেয়ার পেছনে যার অনন্য সাধারণ ভূমিকা ছিল সেই র‌্যাদামেল ফ্যালকাও খেলতে পারলেন না। হাঁটুর মারাত্মক ইনজুরি তাকে ছিটকে দিল বিশ্বকাপ থেকে। সেই ইনজুরি কাটিয়ে আবার অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছেন ৩১ বছর বয়সী এ কলম্বিয়ান স্ট্রাইকার। গতবার ফ্রেঞ্চ লীগ ওয়ানে দলকে নেতৃত্ব দিয়ে এবং নিজের উদ্ভাসিত নৈপুণ্যে চ্যাম্পিয়ন করেছেন মোনাকোকে। কিন্তু জাতীয় দলের হয়ে দারুণ কিছু করার জন্য মুখিয়ে আছেন তিনি। সেটা আসন্ন রাশিয়া বিশ্বকাপে দলকে প্রতিনিধিত্ব করতে পারলেই সবচেয়ে আনন্দিত হবেন বলে জানিয়েছেন ফ্যালকাও। এক সাক্ষাতকারে তিনি আরও বলেন-

প্রশ্ন ॥ গত মৌসুমটা চমৎকার ছিল। এবারও ৫ খেলায় ৭ গোল করেছেন। বিশ্বকাপ ঘনিয়ে আসছে এই সময় নিজেকে নিয়ে কি ভাবছেন?

ফ্যালকাও ॥ মোনাকোয় গত মৌসুমটা খুবই ইতিবাচক কেটেছে। যেভাবে পরিকল্পনা করেছি সেভাবেই গোল পেয়েছি এবং সেটা আমাকে নতুন মৌসুমের জন্য খুব ভাল প্রেরণাদায়ক হিসেবে ভূমিকা রেখেছিল। বিশেষ করে বিশ্বকাপ এগিয়ে আসছে এই সময়ে এমনটা খুব জরুরী ছিল। আমরা কিছু খেলোয়াড়কে হারিয়েছি, কিন্তু নিজেদের ধারাবাহিকতা ভালভাবেই অব্যাহত রাখতে পেরেছি। আর ব্যক্তিগতভাবে আমি আগের চেয়ে ভাল বোধ করছি। আমি আশা করছি জাতীয় দলের হয়ে এই রকমই পারফর্মেন্স করতে চাই।

প্রশ্ন ॥ ফর্মে দুর্দান্তভাবে ফেরার পেছনে রহস্য কী? ক্যারিয়ারের সেরা সময় কাটাচ্ছেন বলে মনে করছেন?

ফ্যালকাও ॥ শুধু কঠিন পরিশ্রম করে যাওয়া এবং এটা জানা যে এখন পর্যন্ত উন্নতির অনেক জায়গা আছে। নতুন কিছু শেখার অনুভবটা আমাকে খেলোয়াড় হিসেবে আরও উন্নত করে তুলেছে। যে অভিজ্ঞতা আমি অর্জন করেছি তাতে ভাল সিদ্ধান্ত নেয়ার সক্ষমতা হয়েছে। এগুলো সবই আমাকে ভাল ও পরিপূর্ণ একজন খেলোয়াড় হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে সহায়ক হয়েছে এবং এমন একজন হতে পেরেছি যার দলকে গোল ব্যতীতও ভাল কিছু দেয়ার ক্ষমতা আছে। নিজেকে নিয়ে এই মুহূর্তে আমি খুবই আত্মবিশ্বাসী। পূর্ণ ফিটনেসে ফিরেছি এবং ম্যাচপ্রতি গোলের গড়টাও এখন ভাল। এটা আমাকে ভারমুক্ত করেছে অনেকখানিই।

প্রশ্ন ॥ দীর্ঘসময় ইনজুরিতে ছিলেন যার কারণে ২০১৪ সালের ব্রাজিল বিশ্বকাপ খেলা হয়নি। রাশিয়া বিশ্বকাপে সেই দুঃখটা ঘুচাতে পারবেন?

ফ্যালকাও ॥ আমার পরিবার আমাকে দারুণ সমর্থন জুগিয়েছে। আর আমি মেনে নিয়েছিলাম যে অনেক সময় খুব সহজ জিনিসও জীবনের পৃষ্ঠা উল্টে বাজে হয়ে যেতে পারে। সবসময় নিজের ওপর বিশ্বাস ও আকাক্সক্ষাটা ছিল যে আমি চমৎকারভাবে ফিরতে সক্ষম। বিস্ময়করভাবে আমি দারুণভাবে ফিরতে পেরেছি। অনেক বছর ধরে আমরা কঠিন লড়াই এবং কঠোর পরিশ্রম করেছি। আমরা এখন বিশ্বকাপের খুব কাছাকাছি। এখন জাতীয় দল যে অবস্থানে আছে পরের দুই ম্যাচে ভদ্রোচিত ফলাফল পেলে রাশিয়া নিশ্চিতই হয়ে যাবে। সেক্ষেত্রে কলম্বিয়ার হয়ে বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্নটা পূরণ হবে আমার।

প্রশ্ন ॥ আর্জেন্টিনা এই মুহূর্তে প্লে অফ পজিশনে, তাদের ছাড়া বিশ্বকাপ কল্পনা করতে পারেন?

ফ্যালকাও ॥ তাদের দারুণ একটা দল আছে। কিন্তু দক্ষিণ আমেরিকার বাছাই খুবই কঠিন এবং সেজন্য অনেক সংগ্রাম করতে হয়। বেশ কয়েকটা দলের এখনও গাণিতিক জটিলতায় ভুগতে হচ্ছে। তারা অবশ্যই কোয়ালিফাই করবে। এটা খুবই লজ্জাজনক হবে যদি লিওনেল মেসি এবং আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপে না থাকে। কিন্তু ফুটবলে এমন অনেক কিছুই ঘটতে পারে।

প্রশ্ন ॥ এবার রাশিয়ায় হয়তো গত বিশ্বকাপের পুরোপুরি ভিন্ন দল দেখা যাবে কলম্বিয়ার। জোসে প্যাকারম্যানের কৌশল নিয়ে কিছু বলতে চান?

ফ্যালকাও ॥ আমরা খুবই ভারমুক্ত থাকব যদি ফরোয়ার্ডরা গোল করেন। কিন্তু আমরা জানি বিশ্বকাপে যেতে আমাদের পয়েন্ট দরকার, সেটা পাওয়ার ক্ষেত্রে কে গোল করল তা কোন সমস্যা নয়। গত বাছাইয়ে প্যাকারম্যানের একটি স্কোয়াড ছিল যাদের মধ্যে বিশ্বকাপ খেলার ক্ষুধা ছিল এবং অভিজ্ঞতায় পরিপূর্ণ ছিল।

শীর্ষ সংবাদ: