শনিবার ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

টাকা স্থানান্তরে প্রতি থানায় মানিএস্কর্ট টিম

গাফফার খান চৌধুরী ॥ এক লাখের বেশি টাকা স্থানান্তরে দেশের প্রতিটি থানায় পুলিশের মানিএস্কর্ট টিম গঠন করা হয়েছে। টাকার মালিকরা ইচ্ছে করলেই এই টিমের সহায়তা নিতে পারবেন। শুধু টাকার মালিককে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশের যাতায়াতের জন্য যানবাহনের ব্যবস্থা করতে হবে। তবে যেসব থানায় পর্যাপ্ত যানবাহন রয়েছে, সেসব থানাগুলোকে টাকা স্থানান্তরের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সহায়তা করার নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ সদর দফতর। কোরবানির ঈদের সময় মোটা অঙ্কের টাকার ছিনতাই এবং ছিনতাইয়ে বাধা দানের সময় হতাহতের ঘটনা এড়াতেই এমন কৌশল নেয়া হয়েছে। টাকা স্থানান্তরের সময় ছিনতাইয়ের চেষ্টাকারীদের প্রয়োজনে সরাসরি গুলি করতে পারবেন দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা। মানিএস্কট টিম কর্তৃক টাকা স্থানান্তরের সময় ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটলে এবং সেই ঘটনায় জড়িত পুলিশ সদস্যদের চাকরিচ্যুতসহ তাদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি আইনে মামলা করা হবে।

পুলিশ সদর দফতর সূত্রে আরও জানা গেছে, সারাদেশের প্রতিটি থানা ও পুলিশের প্রতিটি ইউনিটে লাখ টাকার ওপর স্থানান্তরের ক্ষেত্রে ইতোমধ্যেই পুলিশের মানিএস্কট টিম গঠন করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত একটি আদেশও জারি করা হয়েছে। জারিকৃত আদেশে ঈদ উপলক্ষে ব্যক্তি ও প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে নগদ টাকা পরিবহনে মানিএস্কট টিমের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার নির্দেশ দেয়া হয়। আদেশে বলা হয়, ঈদ উপলক্ষে ক্রয়-বিক্রয়, ব্যবসা-বাণিজ্য, অর্থের লেনদেন ও স্থানান্তর বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে চুরি, ছিনতাই, দস্যুতা, ডাকাতিসহ মলম পার্টি ও অজ্ঞান পার্টির অপতৎপরতা বৃদ্ধি পেতে পারে। এসব অপতৎপরতা রোধের পাশাপাশি টাকা স্থানান্তরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশের মানিএস্কট টিম সার্বিক সহায়তা করবে।

পুলিশের মানিএস্কট টিমের সহায়তা পেতে সংশ্লিষ্ট থানা অথবা আবেদনের মাধ্যমে আবদুল গণি রোডের পুলিশ কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করতে হবে। মানিএস্কট টিমের সহায়তা পেতে ৯৫৫১১৮৮, ৯৫১৪৪০০, ৯৫৫৯৯৩৩ ও ০১৭১৩৩৯৮৩১১ নম্বরগুলোতে যোগাযোগ করা যাবে। তবে টাকাসহ পুলিশ সদস্যদের যাতায়াতের জন্য টাকার মালিককে যানবাহনের ব্যবস্থা করতে হবে। দেশের প্রতিটি থানার পাশাপাশি ঢাকায় মানিএস্কট টিমের সহায়তা প্রত্যাশী সংস্থা বা ব্যক্তি আবদুল গণি রোডের পুলিশ কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করেও সহায়তা নিতে পারবেন। মিরপুর পুলিশ কন্ট্রোল রুমে (পিওএম পুলিশ লাইন্স) ৫টি মানিএস্কট টিম সার্বক্ষণিকভাবে প্রস্তুত থাকবে।

গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, সংবাদমাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে, ব্যাংকে ও এটিএম বুথগুলোতে স্টিকার লাগিয়েও মোটা অঙ্কের টাকা স্থানান্তরকারীদের প্রায় শতভাগ মানুষকেই পুলিশের মানিএস্কট টিমমুখো করা যায়নি। ঢাকায় শতকরা ৯৭ ভাগ মোটা অঙ্কের টাকা স্থানান্তরকারীই মানিএস্কট টিমের সহায়তা নেন না। যদিও হালে এ অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে। অনেকেই এখন পুলিশের মানিএস্কট টিমের সহায়তা নিচ্ছেন। পুলিশের যোগসাজশে বহন করা মোটা অঙ্কের টাকা ছিনতাই হওয়ার আশঙ্কা করেন অনেকেই।

পুলিশ সদর দফতর সূত্র বলছে, মানিএস্কট টিম কর্তৃক বহনকৃত টাকা ছিনতাই হওয়ার ন্যূনতম কোন সম্ভাবনা নেই। যদি কোন অসৎ পুলিশ সদস্যের যোগসাজশে বা কোন কারণে টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে, তাহলে তদন্ত করে ওই পুলিশ সদস্যকে চাকরিচ্যুত করার পাশাপাশি খোয়া যাওয়া টাকা উদ্ধারের ব্যবস্থা করা হবে। অভিযুক্ত পুলিশের বিরুদ্ধে ফৌজদারি আইনে মামলা হবে। সেই সঙ্গে খোয়া যাওয়া টাকা অভিযুক্তদেরই পরিশোধ করতে হবে। ছিনতাইয়ের সঙ্গে টাকার মালিক বা অন্য কারও যোগসূত্র আছে কিনা তাও গভীরভাবে খতিয়ে দেখা হবে।

যেসব পুলিশ সদস্যদের মানিএস্কট টিমে রাখা হবে, তাদের আলাদা তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। তারা কোথায় কাদের কত, টাকা নিয়ে যাচ্ছেন, তার সঠিক তথ্য থাকবে। মানিএস্কট টিমে থাকা পুলিশ সদস্যদের মোবাইল ফোন ও সদস্যদের নজরদারিতে রাখা হয়। মানিএস্কট টিমের কোন পুলিশ সদস্য টাকা স্থানান্তরের সময় কোন সন্ত্রাসী বা ডাকাত বা ছিনতাইকারী গ্রুপের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে কিনা তা মনিটরিং করা হয়। আর ছিনতাইয়ের কবলে পড়লে মানিএস্কট টিমে থাকা পুলিশ সদস্যরা প্রয়োজনে দুর্বৃত্তদের সরাসরি গুলি চালাতে পারবেন। এমন সুযোগে যাতে কোন অসৎ ব্যক্তি কালো টাকা বা হুন্ডির টাকা স্থানান্তরে পুলিশের মানিএস্কট টিমের সহায়তা নিতে না পারেন, সে বিষয়টিও নজরদারিতে রাখা হবে।

পুলিশ মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক বলেছেন, সারাদেশেই টাকা স্থানান্তরের ক্ষেত্রে পুলিশের মানিএস্কট টিম কাজ করছে। বিভিন্ন ব্যাংক, ব্যক্তিবিশেষ ছাড়াও গার্মেন্টেসেরও মোটা অঙ্কের টাকা স্থানান্তরের সময় সহায়তা চাইলে পুলিশের মানিএস্কট টিম সহায়তা করে থাকে। মানিএস্কট টিমের সহায়তা নিলে টাকা ছিনতাই ও ছিনতাইকালে বাধা দানকে কেন্দ্র করে হতাহতের ঘটনা কমে আসবে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া এ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান বলেছেন, রাজধানীর প্রতিটি থানায় পুলিশের মানিএস্কট টিম রয়েছে। টিমগুলো সর্বদা প্রস্তুত আছে। এছাড়া ছিনতাই রোধে ব্যাংকের সামনে এবং এটিএম বুথগুলোর সামনে সাদা পোশাকের পুলিশের তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
আশ্বিনেও এত গরম থাকার কারণ         গির্জায় ব্রিটিশ এমপিকে ছুরি মেরে হত্যা ‘সন্ত্রাসী ঘটনা’॥ যুক্তরাজ্য পুলিশ         রাজধানীতে ইয়াবাসহ আটক ২৬         আইসের সবচেয়ে বড় চালান জব্দ, মূলহোতা গ্রেফতার         ইবির হলে থাকতে পারবে না ভর্তিচ্ছুরা         মাগুরার জগদলে ইউপি নির্বাচনী সহিংসতায় ৪জন নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ৪         শরীয়তপুরে গোসাইরহাটের অবহেলিত চরাঞ্চলে ২৪ উন্নয়নমূলক প্রকল্পের উদ্বোধন         অস্ট্রেলিয়ার সমেলবোর্ন থেকে ৪০০ কেজি হেরোইন জব্দ         খাদ্য উৎপাদনে বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ ॥ প্রধানমন্ত্রী         এমবাপের নৈপুণ্যে অঁজিকে হারিয়েছে পিএসজি         কান্দাহারে শিয়া মসজিদে হামলার ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৭         গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৯৫৩ জনের         উন্নয়নের মহাসড়কে মানিকগঞ্জ         কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কমেছে ২০ টাকা         দেশে ফসল উৎপাদনে রেকর্ড         টিকার আওতায় ১০০ কোটির দ্বারপ্রান্তে ভারত         রোহিঙ্গা সমস্যার টেকসই সমাধান খুঁজতে মিয়ানমারকে চাপ দিন         আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু আজ         ট্রাক কাভার্ডভ্যান থেকে চাঁদা আদায় বন্ধ হয়নি         সার্বিয়ার সঙ্গে রাজনৈতিক ও নিরাপত্তা সহযোগিতা বাড়াতে আগ্রহী বাংলাদেশ