ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস

বগি ফেলে ইঞ্জিন চলল ৯ কিমি

প্রকাশিত: ০৬:৩৬, ১৯ জুন ২০১৭

বগি ফেলে ইঞ্জিন চলল ৯ কিমি

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ, ১৮ জুন ॥ কটিয়াদী উপজেলার গচিহাটা স্টেশনে ‘কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস’ ট্রেনের ইঞ্জিন এসে থামলে দেখতে পায় পেছনে বগি নেই। এ নিয়ে স্টেশনে অপেক্ষমাণ যাত্রীদের মাঝে হইচই পড়ে যায়। রবিবার দুপুর আড়াইটায় কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনটি কিশোরগঞ্জ থেকে ছেড়ে গচিহাটা স্টেশনে গিয়ে পৌঁছলে বিষয়টি সকলের নজরে পড়ে। পরে ট্রেনের চালক তোফাজ্জল হক অনুসন্ধান করে জানতে পারেন, ট্রেনটি কিশোরগঞ্জ থেকে ছাড়ার পর সদরের কর্শাকড়িয়াইল এলাকায় পৌঁছামাত্রই ইঞ্জিন থেকে বগি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। এরপর তিনি পুনরায় ইঞ্জিন নিয়ে কর্শাকড়িয়াইল গিয়ে বগি সংযোজন করে ট্রেনটি নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করেন। এ ব্যাপারে রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের জিএম আঃ হাই জানান, অনাকাক্সিক্ষত এ ঘটনার জন্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। ট্রেনের যাত্রী মিঠু মিয়া জানান, কিশোরগঞ্জ স্টেশন থেকে লাইনম্যান সঠিকভাবে ইঞ্জিনের সঙ্গে বগি সংযোজনের কাজটি না করায় এমন ঘটনা ঘটেছে। ফলে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের খামখেয়ালিপনার কারণে যে কোন বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। আরেক যাত্রী আজিজ মিয়া জানান, চলন্ত ট্রেন থেকে হঠাৎ করে বগি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় যাত্রীদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করাসহ চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। পরে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করে ইঞ্জিন ফেরত এসে পুনরায় ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করে। অপরদিকে শনিবার সন্ধ্যায় কিশোরগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী ঈশাখাঁ ৪০ ডাউন ট্রেনটি গচিহাটা ব্রিজের ওপর দিয়ে গ্রীন সিগন্যাল দেখে স্টেশনে প্রবেশ করতে থাকে। একই লাইনে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি তেলবাহী লরি সিগন্যাল পেয়ে প্রবেশ করে। পরে যাত্রীদের চিৎকারে দুই ট্রেনের চালকই দ্রুত ব্রেক করে একেবারে সামনা সামনি অবস্থানে চলে আসে। এ সময় যাত্রীরা আতঙ্কিত হয়ে ট্রেন থেকে লাফিয়ে পড়ে অনেকেই আহত হয়। পরে ট্রেন দুটি নিয়ন্ত্রণে এলে যাত্রীরা গচিহাটা স্টেশন এলাকায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এ সময় উত্তেজিত জনতার ক্ষোভ দেখে স্টেশন মাস্টার আমিনুল ইসলাম ও পয়েস ম্যান আঃ হাই তখন পালিয়ে যায়। কটিয়াদীর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই কামরুল ইসলাম জানান, রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে। তিনি আরও জানান, একই লাইনে দুটি ট্রেনের লাইন ক্লিয়ারেন্স দেয়ার ঘটনায় গচিহাটা স্টেশন মাস্টার মিজানুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।
monarchmart
monarchmart