মঙ্গলবার ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৪ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

দেশে তৈরি ব্যাগপ্যাক বিদেশে রফতানি হচ্ছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ এক সময় বিদেশ নির্ভরতা থাকলেও এখন দেশেই তৈরি হচ্ছে উন্নতমানের ব্যাকপ্যাক, ট্রলি, স্পোর্টস ব্যাগ, হাত ব্যাগ, এক্সিকিউটিভ ব্যাগসহ কাপড়ের তৈরি নানা ধরনের ব্যাগ। দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশেও যাচ্ছে এসব ব্যাগ। ফলে ধীরে ধীরে হলেও বৈদেশিক মুদ্রা আয়ে খাতটি হয়ে উঠছে সম্ভাবনাময়।

জানা যায়, বাংলাদেশে এখন দেশী-বিদেশী মিলিয়ে ১০টির বেশি প্রতিষ্ঠান এসব ব্যাগ তৈরি করছে। বিদেশী মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে- ইয়ংওয়ান, পার্ক বাংলাদেশ, ওসমা, ভিআইপি ইন্ডাস্ট্রিজ বাংলাদেশ লিমিটেড এবং এ এ্যান্ড এ ট্রাভেলিং গুডস বাংলাদেশ লিমিটেড। দেশী প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে- রাইডার, টাইগারকো, সিমুরা ননওভেনস লিমিটেড, বোহেমিয়ান ট্রাভেল গিয়ার, এমজেডএম টেক্সটাইল লিমিটেড, একসেনচ্যুর, ইউসেবিও স্পোর্টিং।

আশুগঞ্জের খাড়িয়ালা গ্রামের রাইডার লেদার ব্যাগস এ্যান্ড লাগেজ ফ্যাক্টরি লিমিটেডের তৈরি ব্যাগ যাচ্ছে নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্ক, যুক্তরাষ্ট্র, হংকং, জাপান ও ফ্রান্সে। এ প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৪০০ কর্মী কাজ করছেন। প্রতিষ্ঠানটি লাগেজ থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের ব্যাগ তৈরি করে। এসব ব্যাগ তৈরিতে তারা কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহার করে পলিয়েস্টার, ক্যানভাস, নাইলন, ডেনিম ও ওভেন কাপড়। সম্প্রতি কারখানা পরিদর্শনকালে প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘কাপড়ের ব্যাগ হতে পারে বাংলাদেশের জন্য আরেকটি সম্ভাবনাময় খাত। তৈরি পোশাক খাতের চেয়ে ব্যাগ তৈরি ও রফতানিতে মুনাফা বেশি।’

এ খাতকে দ্রুত বর্ধনশীল উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমি ২০১৪ সালে ১৫ কোটি টাকা নিয়ে ব্যবসা শুরু করি। ব্যাংক থেকে ২৮ কোটি টাকা ঋণ নিই। ২০১৫ সালে ১৫ কোটি টাকার পণ্য রফতানি করি এবং ২০১৬ সালে ৭০ কোটি টাকার রফতানি করি। ২০১৭ সালে আমাদের লক্ষ্য ১৮০ কোটি টাকার ব্যাগ রফতানি করা।’ ব্যাকপ্যাক থেকে গড়ে ১৫ শতাংশ মুনাফা করা সম্ভব জানিয়ে নাজমুল বলেন, গতবছর যে ৭০ কোটি টাকার পণ্য বিক্রি করা হয়েছে তার মধ্যে ৪০ কোটি টাকাই এসেছে রফতানি থেকে। বাকিটা স্থানীয় বাজার থেকে এসেছে। মোট মুনাফা প্রায় ১১ কোটি টাকা। নাজমুলের দেয়া তথ্য অনুযায়ী তার কারখানায় দিনে তিন হাজার আর বছরে প্রায় ৯ লাখ ৩৬ হাজার ব্যাকপ্যাক তৈরির সক্ষমতা রয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
রিজার্ভ বাড়াতে মরিয়া ॥ নানামুখী কৌশল সরকারের         আঞ্চলিক সঙ্কট মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর পাঁচ প্রস্তাব         শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দুই সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের দিন         রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন দুঃস্বপ্ন         দুর্নীতির মামলায় কারাগারে ওসি প্রদীপের স্ত্রী         একগুচ্ছ প্রণোদনায় ঘুরে দাঁড়াল শেয়ারবাজার         প্রভাবশালীদের দখলে উত্তরবঙ্গের অর্ধেক খাস জমি         সিলেটে বন্যাকবলিত এলাকায় খাবার পানির তীব্র সঙ্কট         মাঙ্কিপক্স নিয়ে সব বিমানবন্দরে সতর্ক অবস্থা         গম নিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে বোঝাপড়ায় আগ্রহী আমদানিকারকরা         পদ্মা সেতু নিয়ে বড়াই করা উচিত নয় ॥ ফখরুল         শিক্ষক ও বিমানবাহিনীর সদস্যসহ সড়কে প্রাণ গেল ১৫ জনের         প্রমাণ ছাড়া স্বাস্থ্যকর পুষ্টিকর বলে প্রচার করা যাবে না         ফখরুলের বক্তব্য নতুন ষড়যন্ত্রের বহির্প্রকাশ ॥ কাদের         প্রস্তুত স্বপ্নের পদ্মা সেতু         পাম তেল রপ্তানিতে ইন্দোনেশিয়ার নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার         বাংলাদেশের কাছে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল বিক্রি করতে চায় রাশিয়া         রাজধানীতে ট্রাকে পণ্য বিক্রি করবে না টিসিবি         জাফরুল্লাহ চৌধুরীর ‘জাতীয় সরকার’ প্রস্তাবে বিব্রত বিএনপি         মঙ্গলবার আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইবেন সম্রাট