ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ফুটবলার জাহিদ ক্ষমা পেলেন

প্রকাশিত: ০৬:১৪, ২৪ মে ২০১৬

ফুটবলার জাহিদ ক্ষমা পেলেন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ব্যাপারটা নতুন নয় জাহিদ হোসেনের জন্য। অনৈতিক কর্মকা- এবং শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন ফুটবলার-উইঙ্গার জাহিদ হোসেন। গত ১৮ মে নিজের শাস্তি প্রত্যাহার করার জন্যে বাফুফের কাছে লিখিত আবেদন জানিয়েছিলেন। সেই আবেদন মঞ্জুর করেছে দেশীয় ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। রবিবার বাফুফের ন্যাশনালস টিম কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ন্যাশনাল টিমস কমিটি চাইলে জাতীয় দলের চলমান ক্যাম্পেই দেখা যেতে পারে এই উইঙ্গারকে। জাহিদের শাস্তি মওকুফের বিষয়টি নিশ্চিত করেন বাফুফে সহ-সভাপতি তাবিথ আউয়াল। ধারণা করা হচ্ছে, দুই-একদিনের মধ্যেই জাতীয় দলের ক্যাম্পে যোগ দেবেন তিনি। তাবিথ আউয়াল আরও জানান, জাতীয় দলের জন্য দীর্ঘমেয়াদে ইউরোপীয় কোচই তাদের প্রথম পছন্দ। উল্লেখ্য, গত বছর সাফ ফুটবল চলাকালে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে চলতি বছর ২ মার্চ নিষিদ্ধ করা হয় জাতীয় দলের তৎকালীন অধিনায়ক মামুনুল ইসলামসহ ৪ ফুটবলারকে। যার মধ্যে মামুনুল ও জাহিদ হোসেনকে ১ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। অপর দুই ফুটবলার ইয়াসিন খান ও সোহেল রানাকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল ৬ মাসের জন্য। এছাড়া তদন্তের আওতায় থাকা বাকি ৩ ফুটবলার গোলরক্ষক শহীদুল আলম সোহেল, আতিকুর রহমান মিশু ও ইয়ামিন আহমেদ চৌধুরী মুন্নাকে করা হয়েছিল সতর্ক। বাফুফের নবনির্বাচিত কমিটির প্রথম কার্যনির্বাহী সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয় ক্ষমা চেয়ে আবেদন করলে নিষিদ্ধ চার ফুটবলারের শাস্তি মওকুফ করা হবে। মামুনুল এবং সোহেল রানা ক্ষমা চেয়ে আবেদন করলে তাদের নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ফেরার অনুমতি দেয়া হয়। মামুনুল এবং সোহেল রানার পর এবার নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পেলেন জাহিদও। এই মুহূর্তে জাহিদ ভীষণ ব্যস্ত আছেন তার অসুস্থ বাবাকে নিয়ে। তার বাবা লিয়াকত আলী (বয়স ৬২, টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে ১৯৭১ সালে সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধ করেছেন) ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন। কয়েকদিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। এখন নিজ বাসভবনে আছেন। ডাক্তাররা জানিয়েছেন আরও উন্নত চিকিৎসা লাগবে তার। এজন্য বাবাকে নিয়ে ভারতের মুম্বাইয়ের টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে যেতে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জাহিদ। এ ব্যাপারে সবকিছু চূড়ান্ত পর্যায়ে। শুধু ভিসা পেতেই সময় লাগছে। জাহিদ তার বাবার সুস্থতার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।
monarchmart
monarchmart