বৃহস্পতিবার ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ অক্টোবর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিপন্ন অবস্থায় সিরীয় অস্ত্রবিরতি ॥ জাতিসংঘ

  • জরুরী পদক্ষেপ নিতে আহ্বান আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি

জাতিসংঘ শুক্রবার সতর্কবাণী উচ্চারণ করে বলেছে, সিরিয়ায় নাজুক অস্ত্রবিরতি অত্যন্ত বিপন্ন পরিস্থিতিতে গড়িয়েছে। সংস্থা জোর দিয়ে বলেছে, এ অনিশ্চিত শান্তি প্রচেষ্টাকে টিকিয়ে রাখার জন্য যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটির ওপর প্রভাব রয়েছে এমন দেশগুলোর মধ্যে এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠান জরুরী। অন্যদিকে বিদ্রোহী অধিকৃত সিরিয়ার দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ শহর আলেপ্পোর পার্শ্ববর্তী এলাকায় শুক্রবার বিমান হামলায় অন্তত ২৫ জন নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে ৪০ জনেরও বেশি। খবর এএফপির।

জাতিসংঘের সিরিয়াবিষয়ক শীর্ষ দূত স্তাফান দে মিসুতুরা সাংবাদিকদের বলেছেন, অস্ত্রবিরতি এখনও কার্যকর রয়েছে। কিন্তু আমরা দ্রুত উদ্যোগ না নিলে তা অত্যন্ত বিপন্ন হয়ে পড়বে। সিরিয়ায় অস্ত্রবিরতি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে। কিন্তু দেশে বিশেষ করে আলেপ্পোর চারদিকে সম্প্রতি কয়েক সপ্তাহ ধরে তীব্র লড়াই চলছে। অব্যাহত সহিংসতা এবং স্থলে জরুরী মানবিক ত্রাণ না পৌঁছার কারণে সিরিয়ায় প্রধান বিরোধী হাই নিগোশিয়েনস কমিটি (এইচএনসি) এ সপ্তাহের প্রথম দিকে জেনেভায় জাতিসংঘের সদর দফতরে শান্তি আলোচনায় আনুষ্ঠানিক অংশগ্রহণ থেকে সরে যায়। কিন্তু মিসতুরা শুক্রবার বলেছেন, তার দলের সদস্যরা তাদের জেনেভা হোটেলে এইচএনসিয়ের অবশিষ্ট সদস্যদের সঙ্গে এক টেকনিক্যাল পর্যায়ে অত্যন্ত ফলপ্রসূ বৈঠক করেছেন। তিনি বলেন, আমরা যে বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা শুরু করেছি তা নিয়ে যথাসম্ভব গুরুত্বের সঙ্গে আলোচনার জন্য বুধবার পর্যন্ত আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাব। তা আমরা পারব আনুষ্ঠানিকভাবে, অনানুষ্ঠানিকভাবে, ব্যবহারিকভাবে এবং তার প্রয়োজন রয়েছে আমাদের। তিনি অস্ত্রবিরতি জোরদারে সহযোগিতায় এবং এ কঠিন শান্তি উদ্যোগের প্রতি সমর্থনে একযোগে এগিয়ে আসার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি আহ্বান জানান, ১৭ দেশের আন্তর্জাতিক সিরিয়া সাপোর্ট গ্রুপের আইএসএসজি এক নতুন উচ্চপর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠানের। এ গ্রুপের উদ্যোগেই স্বাক্ষরিত হয়েছে ফেব্রুয়ারিতে অস্ত্রবিরতির চুক্তি গ্রুপের সহসভাপতির দায়িত্বে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া। তিনি বলেন, মন্ত্রী পর্যায়ে এবং নতুন বৈঠক অনুষ্ঠান জরুরী হয়ে দেখা দিয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা শুক্রবার লিবিয়ায় এ পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের সঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, অস্ত্রবিরতি ভেঙ্গে পড়ার ব্যাপারে এবং তা টিকে থাকবে কিনা সে সব ব্যাপারে আমি অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। সিরিয়ায় এ সংঘাত শুরু হয় ২০১১ সালে। কিন্তু সংঘাত এক বহুমুখী যুদ্ধে রূপ নিয়েছে এবং তাতে নিহত হয়েছে ২ লাখ ৭০ হাজারেরও বেশি মানুষ।

সিরিয়ান অবজারভেটোরি ফর হিউম্যান রাইটস বলেছে, সিরীয় যুদ্ধ বিমান আলেপ্পোর আশপাশে হামলা চালিয়েছে। মানবাধিকার পর্যবেক্ষণ গ্রুপটি আগে বিমান হামলায় ১৯ জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছিল। কিন্তু তারা এ কথাও বলেছিলেন যে নিহতের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে পারে। এএফপি জানায়, হামলার লক্ষ্যস্থল ছিল বুস্তান আল কাসর, আল মাশাদ ও সালাহিনসহ বেশ কয়েকটি এলাকা। বাব আল নায়রাবের দক্ষিণাঞ্চলে শুক্রবার ২টি ব্যারেল বোমা আঘাত হানে। শহরের সিভিল ডিফেন্স প্রধান বাইবরেস মাশাল বলেন, সেখানে ২৫ বার বিমান হামলা হয়েছে।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
৩৩৮৭৫৯৯৩
আক্রান্ত
৩৬৩৪৭৯
সুস্থ
২৫১৭২৯৭১
সুস্থ
২৭৫৪৮৭
শীর্ষ সংবাদ:
মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসি ॥ বরগুনায় চাঞ্চল্যকর রিফাত হত্যা মামলা         ট্রাম্প-বাইডেন প্রথম নির্বাচনী বিতর্কে তিক্ততা, বিশৃঙ্খলা         সরকার দেশের স্বার্থে ব্যবসায়ীদের সুবিধা দিচ্ছে ॥ অর্থমন্ত্রী         শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি আরও বাড়ছে         কোমল পানীয়ের নামে আমরা কী খাচ্ছি?         আলোচনার শীর্ষে টিলাগড় ॥ দুই আসামি রিমান্ডে         বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র বিমান চলাচল চুক্তি সই         জাপানী বড় বিনিয়োগের হাতছানি         ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের আজ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন         ১৬ কোটি মানুষের একমাত্র আশা ভরসা শেখ হাসিনা         চাকরির প্রলোভনে কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়া প্রতারক গ্রেফতার         জাহালমকে ১৫ লাখ টাকা দেয়ার নির্দেশ         একাদশ সংসদের ৬১ শতাংশ সদস্যই ব্যবসায়ী         বিকাশের টাকা ডাকাতির ঘটনায় গাড়িসহ ৪ জন গ্রেফতার         বাংলাদেশ কখনো জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দেয়নি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         ৪ থেকে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন পালন করবে ডিএনসিসি’         দেশের স্বার্থে সরকার ব্যবসায়ীদের পক্ষে সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে : অর্থমন্ত্রী         জাহালমকে ১৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে ব্র্যাক ব্যাংক         ফাঁসির রায় ॥ পুলিশ হেফাজতে মিন্নি         ‘বিএনপি আন্দোলন-সংগ্রামের লক্ষ্য নির্ধারণেই ব্যর্থ, আন্দোলন তো সুদূর পরাহত’