রবিবার ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বোস কেবিন

  • শাফাত রেজা অন্তু

আড্ডা নৈনন্দিন জীবনে এক অন্যরকম আবেশ তৈরি করে। একঘেয়ে জীবনের ধারায় আড্ডা যে নিদারুন আবহের সূচনা করে তার ছাপ পড়ে প্রতিটা মানুষেরই মনে। কী পুরুষ, কী নারী সবার মাঝেই আড্ডার প্রশান্তিময় আবেগ ছড়িয়ে দেয় অসীম আনন্দের মূর্ছনা। তাছাড়া মানুষ মাত্রেই একজন আরেকজনের সঙ্গে একপশলা গল্প করে পাঁচ-দশ মিনিট পার করে দেবে-এটাই প্রাকৃতিক নিয়ম। তবে নগরজীবনে যেমন আড্ডায় রয়েছে প্রাণবন্তু উচ্ছা¦াস, তেমনি গ্রামীণ জনপদেও আড্ডা কিন্তু একটা বিশেষ যায়গা করে নিয়েছে বাঙালীর জীবন। বাঙালী মানেই গল্পবাজ। পরিচিত কিংবা অপরিচিত কথাচ্ছলে এক চিলতে কথাজুড়ে দেয়াই বাঙালীর রয়েছে আবহমান বৈশিষ্ট্য।

নগরজীবনের আড্ডার রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন প্রতিবেশ। অফিসে কাজের ফাঁকে সহকর্মীর সঙ্গে লাঞ্চ ব্রেক কিংবা টি ব্রেকে গল্পের আসরটা জমে ওঠে মধুর মগ্নতায়। তবে সেটাকে আড্ডা না বলে সাময়িক কথন বলাই ভাল। আড্ডাটা মূলত একটা শিল্পের রূপ পায় কবি, শিল্পী, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিককর্মী, রাজনীতিক, খেলোয়াড়, কলেজ-ইউভিার্সিটির বন্ধুদের মধ্যে। নাওয়া-খাওয়া ভুলে চলে তুমুল ম্যারাথন আড্ডা। তবে এক্ষেত্রে প্রবল আড্ডাবাজ বলে প্রধানত এগিয়ে আছেন লেখক, শিল্পী, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক কর্মীরাই। লেখক-শিল্পীর এই আড্ডার প্রচলন হয়ে আসছে মধ্যযুগ থেকে। তবে সে সময়ের আড্ডা আর আধুনিক যুগের আডডার মধ্যে রয়েছে রকমফের। লেখক, শিল্পী সংস্কৃতি কর্মীদের আড্ডার কোন সমারোহ কিংবা টাইম ফ্রেম নেই। একবার আড্ডা জমে উঠলে সেই আড্ডার কখন পর্দা নামবে তা যেন নিজেরাও অনুধাবন করতে পারেন না। আবার কর্মজীবি মানুষের আড্ডাটা শুধু সন্ধ্যার জন্যই থাকে তোলা। কখনও বা তারা ছুটির দিনের অবসরে আড্ডায় মেতে ওঠেন। আর কবি-সাহিত্যিক-শিল্পী, সাংবাদিক, সংস্কৃতি কর্মীদের আড্ডাটা যেন এক রুটিন বাঁধা বিষয়। যে যেখানেই থাকুক নির্দিষ্ট সময়ে তারা নির্দিষ্ট রেস্টুরেন্ট, রেস্তুরাঁ, অথবা, ক্যাফেটেরিয়ার ক্যান্টিনে এসে একে একে জড়ো হয়ে মেতে ওঠবে জস্পেশ আড্ডায়।

প্রসঙ্গক্রমে লেখক-শিল্পী, সাহিত্যিকদের কিছু ছবি সেই পঞ্চাশের সময়কাল থেকে সবার মধ্যে এক ধরনের রোমাঞ্চকর আনন্দও জমিয়ে তুলত যার কথা মনে হলেই যারা ওই আড্ডার সহযাত্রী ছিলেন তারা হয়ে পড়েন ভীষণ নস্টালজিক। বিশেষ করে জেলা শহরে কোন না কোনো রেস্তোরাঁ কিংবা ক্যাফেটেরিয়ায় সকল সন্ধ্যা বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষদের আড্ডা জমে ওঠে। এমনই এক রেস্টুরেন্টের নাম হলো বোস কেবিন। রাজধানীর সবচেয়ে কাছের শহর- যা একসময় মহকুমা শহর হিসেবে পরিচিত ছিলো। সেই নারায়নগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্ত্র রেলইষ্টিশানের পাশ ঘেষে ফলপট্টিতে আজ থেকে ৯৫ নব্বই বছর পূর্বে প্রতিষ্ঠিত হয় আজকের বিখ্যাত বোস কেবিন। একশো বছরের কাছাকাছি বয়সী এই বোস কেবিনের যে ঐতিহ্য, যে ইতিহাস। সেই ইতিহাস- ঐতিহ্য এতোটাই সমৃদ্ধ যে নারায়ণগঞ্জের শিলপ, সাহিত্য সংস্কৃতি, রাজনীতি তথা এ শহরের প্রতিটি সংস্কৃতিবান মানুষের মনে বোস কেবিনের প্রতি যে টান। সেই টানের গল্প এই ৯৫ নব্বই বছর ধরে প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধারণ করে আছে।

শীর্ষ সংবাদ:
হাজি সেলিমকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ আদালতের         সরকার পরিবর্তনের একমাত্র উপায় নির্বাচন ॥ কাদের         পরিবেশ রক্ষায় যত্রতত্র অবকাঠামো করা যাবে না ॥ প্রধানমন্ত্রী         সুনামগঞ্জে নদীর পানি কমলেও হাওড়ের জনপদে দুর্ভোগ বেড়েছে         পতনে নাকাল শেয়ারবাজার, দিশেহারা বিনিয়োগকারীরা         ‘বিশ্বজুড়ে আরও মাঙ্কিপক্স শনাক্তের আশঙ্কা’         সর্বনিম্ন ২৫ হাজার টাকা বেতন চান সরকারি কর্মচারীরা         হাতিয়ায় ত্রান পেল ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তরা         নরসিংদীর বেলাবতে মা, ছেলে ও মেয়ের গলাকাটা লাশ উদ্ধার         খুলনায় বিস্ফোরক মামলায় ২ জঙ্গীর ২০ বছরের কারাদণ্ড         অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন         বাংলাদেশিরা মালদ্বীপে বৈধ হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন         চার মাসে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত ৬ লাখ ৭৭ হাজার         বাজারে গ্যালে দাম হুইন্না কইলজাডা মোচড় মারে         কুয়াকাটায় ভেসে আসা ডলফিনের মৃত্যু         ফটিকছড়ির বাগানে জাপানের লাখ টাকার মিয়াজাকি আম         ভারতের জাম্মু-কাশ্মিরে সুড়ঙ্গ ধসে ১০ জন নিহত         এখন আমাদের নতুন করে চিন্তা করতে হবে ॥ মুমিনুল         দি মারিয়া একটানা ৭ বছর খেলে পিএসজি ছাড়লেন