সোমবার ২৯ চৈত্র ১৪২৭, ১২ এপ্রিল ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বাগমারায় মনোনয়ন যুদ্ধে জঙ্গী ও চরমপন্থীরা!

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার পূর্বাঞ্চলের পাঁচটি ইউনিয়নে দলীয় মনোনয়ন পেতে এবার মাঠে নেমেছে ডজনখানেক জেএমবি ও চরমপন্থী সদস্য। আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি থেকে দলীয় মনোনয়ন নিতে তৎপরতা শুরু করেছেন তারা।

পুলিশের তালিকাভুক্ত এসব জেএমবি ও চরমপন্থী সদস্যের অনেকেই ইতোমধ্যে দলীয় প্রধান ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দসহ নিজের ছবি দিয়ে পোস্টার, ফেস্টুন ও ব্যানার টাঙিয়েছেন এলাকায়। এদের অধিকাংশের বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। জামিনে থেকে তারা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে শোডাউন ছাড়াও বিভিন্নভাবে প্রচার চালাচ্ছেন। উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত রাজশাহীর সর্ববৃহৎ এই উপজেলার পূর্বাঞ্চলে রয়েছে গোয়ালকান্দি, হামিরকুৎসা, যোগীপাড়া, ঝিকড়া ও মাড়িয়া ইউনিয়ন। ১৯৯৬ সালে যোগীপাড়ার তৎকালীন ইউপি চেয়ারম্যানকে জবাই করে আত্মপ্রকাশ ঘটে নিষিদ্ধ ঘোষিত চরমপন্থী সংগঠন সর্বহারা পার্টির। আর ২০০৪ সালে গোয়ালকান্দির পলাশী গ্রামে এক যুবককে জবাই করে আত্মপ্রকাশ করে সিদ্দিকুর রহমান ওরফে বাংলা ভাইয়ের নেতৃত্বে জঙ্গী সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি)। তবে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর এই ইউনিয়নগুলো জেএমবি ও চরমপন্থীমুক্ত হয়।

স্থানীয় সূত্রমতে, উপজেলার গোয়ালকান্দি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে বিএনপির মনোনয়ন চান জঙ্গী সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) এক সময়ের শীর্ষ নেতা সিদ্দিকুর রহমান ওরফে বাংলাভাইয়ের অন্যতম সহযোগী মামুনুর রশিদ ওরফে মামুন মুহুরি। পুলিশের তালিকাভুক্ত এই জেএমবি ক্যাডারের বিরুদ্ধে হত্যা ও সন্ত্রাসী কার্মকা-ের প্রায় ডজনখানেক মামলা রয়েছে। একাধিকবার তিনি গ্রেফতারও হয়েছিলেন। ২০০৪ সালের ১ এপ্রিল মামুন মুহুরির নিজ গ্রাম পলাশীতে বাংলাভাইয়ের নেতৃত্বে একজনকে জবাই করে হত্যার মাধ্যমে জেএমবির আত্মপ্রকাশ ঘটেছিল। সে সময় মামুন মুহুরি ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক থাকলেও জেএমবিতে যোগ দিয়ে বাংলাভাইয়ের অন্যতম সহযোগী হিসেবে কাজ করেন। ছাড়াও এ ইউনিয়নে বিএনপির দলীয় মনোনয়ন চান উপজেলার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ আলী এবং জামায়াত নেতা ও বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ খান।

অপরদিকে, এ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চান আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা আব্বাস আলী, আব্দুস সালাম ও আলমগীর হোসেন। এদের মধ্যে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর জাতীয় পার্টি থেকে যোগ দেয়া আলমগীর হোসেনের নাম চরমপন্থী সংগঠন সর্বহারা দলের সদস্য হিসেবে পুলিশের তালিকায় রয়েছে। তিনি বর্তমানে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতিও। হামিরকুৎসা ইউনিয়নে এবার জাতীয় পার্টি থেকে দলীয় মনোনয়ন চান বাংলাভাইয়ের আরেক অন্যতম সহযোগী মাহাতাব উদ্দিন খামারু।

শীর্ষ সংবাদ:
চরম উত্তেজনার মধ্যেই ইউক্রেনে সামরিক বিমান পাঠাল আমেরিকা         দক্ষিণ কোরিয়াকে অবিলম্বে পাওনা অর্থ বুঝিয়ে দেওয়ার আহ্বান জানাল ইরান         কলকাতার কাছে ১০ রানে হারল হায়দরাবাদ         ছাড় পাবে না সিন্ডিকেট ॥ রমজানে দ্রব্যমূল্য স্বাভাবিক রাখতে কঠোর অবস্থান         জনকণ্ঠের প্রকাশনা বন্ধের পাঁয়তারা চাকরিচ্যুতদের         বাজেটে স্বাস্থ্য খাতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হবে ॥ অর্থমন্ত্রী         আমিরাতের প্রথম নভোচারী         বন্ধ থাকবে সব ধরনের যাত্রীবাহী ফ্লাইট         দশমিক ১০ শতাংশ কমিশন পাবে বাণিজ্যিক ব্যাংক         বৈশাখের অনুষঙ্গ লোক ঐতিহ্যের শখের হাঁড়ি         ৪৮৩টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩ লাখ টাকা করে অর্থ বরাদ্দ         দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৭৮ জনের, নতুন শনাক্ত ৫৮১৯         জনকণ্ঠের প্রকাশনা বন্ধে গেটে তালা         ভিড় কমাতে বাড়ল ব্যাংক লেনদেনের সময়         ভোজ্য তেলে কর প্রত্যাহার         চলমান লকডাউনের ধারাবাহিকতা ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত ॥ কাদের         পোশাক ও বস্ত্র কারখানা খোলা রাখার দাবি চার সংগঠনের         সোমবার থেকে ভার্চুয়ালি চলবে আপিল বিভাগের বিচারকাজ         কৃষিপণ্যের আন্তর্জাতিক মান বজায় রাখতে হবে         খালেদা জিয়ার বাসায় ৯ জন করোনায় আক্রান্ত