সোমবার ২২ আষাঢ় ১৪২৭, ০৬ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আন্দোলনে নামছেন সরকারী কলেজ শিক্ষকরা

  • ৪ ও ৫ জানুয়ারি পরীক্ষা বর্জনসহ কর্মবিরতি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পে স্কেলে মর্যাদাহানির প্রতিবাদ জানিয়ে আগামী ৪ ও ৫ জানুয়ারি দেশের সকল সরকারী কলেজ ও সংশ্লিষ্ট দফতরে পরীক্ষা বর্জনসহ পূর্ণ দিবস কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন সরকারী কলেজ শিক্ষকরা। সারাদেশে ৩০৫ সরকারী কলেজ, বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ড, অধিদফতরসহ সংশ্লিষ্ট দফতরে এ কর্মসূচী পালিত হবে। অষ্টম বেতন কাঠামোতে সরকারী কলেজের শিক্ষকদের সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে মন্তব্য করে বেতন বৈষম্য নিরসনের মাধ্যমে বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের সাড়ে ১৫ হাজার সদস্যের মর্যাদা ও বেতন সমুন্নত রাখার দাবি শিক্ষকদের। বেতন বৈষম্য রেখে পে স্কেল বাস্তবায়নের খবরে ক্ষুব্ধ শিক্ষকরা মঙ্গলবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলন করে আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষণা করেছেন।

বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির ব্যানারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তুলে ধরা হয়েছে সরকারী কলেজ শিক্ষকদের বৈষম্যের নানা দিক। তারা বলেছেন, এটা সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন নয়। এটা শিক্ষকদের মর্যাদা রক্ষার আন্দোলন। সংবাদ সম্মেলনে কর্মসূচীর ঘোষণা দেন সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক নাসরীন বেগম। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন মহাসচিব আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের সচিব শিক্ষক নেতা শাহেদুল খবীর চৌধুরী, সমিতির সহ-সভাপতি ফজলে রাব্বী, যুগ্ম মহাসচিব মাসুদ রানা, সদস্য কুদ্দুস সিকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবা খানমসহ কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ। শিক্ষক নেতারা বলেন, সারাদেশে পে স্কেল নিয়ে ব্যাপক আন্দোলনের মধ্যেই বৈষম্য নিরসন কমিটি করা হলো। সকলে আশা করেছিলেন অবশ্যই শিক্ষকদের বৈষম্যের অবসান হবে। কিন্তু তার কোন প্রতিফলন দেখা গেল না। এতে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণœ হচ্ছে বলেও হতাশা প্রকাশ করেন শিক্ষকরা। র্শিক্ষা ক্যাডারের অধ্যাপক পদে বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিকে বিবেচনায় না এনে অধ্যাপক পদের বেতন স্কেল ও গ্রেড অবনমন করা হয়েছে। সিলেকশন গ্রেড ও টাইমস্কেল বাতিল করায় প্রভাষক, সহকারী অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক এবং অধ্যাপকসহ র্শিক্ষা ক্যাডারের সকল স্তরের বেতন বৈষম্য বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে শিক্ষা ক্যাডারের ১৫ হাজার সদস্য এটি উপভোগ করতে পারছে না। প্রাপ্য মর্যাদায় উন্নীত না করে স্কেল ও পদ অবনমনে শিক্ষকরা মর্মাহত। শিক্ষা ক্যাডারের বৈষম্য দূর করাসহ বিভিন্ন দাবি তুলে ধরে সমিতির সভাপতি অধ্যাপক নাসরীন বেগম বলেন, সরকার আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ না নিলে আগামী ৪ ও ৫ জানুয়ারি সরকারী কলেজের শিক্ষকরা পরীক্ষা বর্জনসহ পূর্ণ দিবস কর্মবিরতি পালন করবেন। নতুন বেতন কাঠামোতে অধ্যাপকদের পদমর্যাদা ও বেতনক্রমের অবনমন করা হয়েছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, এ ব্যবস্থা সাংবিধানিক মৌলিক অধিকার ক্ষুণœ করার শামিল। বলেন, অন্য ক্যাডারের কর্মকর্তাদের পঞ্চম থেকে সরাসরি তৃতীয় গ্রেডে পদোন্নতি দেয়া হয়। কিন্তু শিক্ষা ক্যাডারের পঞ্চম গ্রেডের সহযোগী অধ্যাপকরা পদোন্নতি পেয়ে চতুর্থ গ্রেডে অধ্যাপক হতেন। চতুর্থ গ্রেডের অধ্যাপকদের অর্ধেক সিলেকশন গ্রেড পেয়ে তৃতীয় গ্রেড পেতেন। নতুন বেতন কাঠামোয় সিলেকশন গ্রেড বাতিলের ফলে অধ্যাপকদের চতুর্থ গ্রেড থেকেই অবসরে যেতে হবে। ফলে মর্যাদা ছাড়াও বিশাল আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বেন তারা। বেতন কাঠামো চূড়ান্তের আগে অর্থ সচিবের সঙ্গে শিক্ষকদের সভা হয়েছিল জানিয়ে নাসরীন বেগম বলেন, শিক্ষা ক্যাডারের বৈষম্য নিরসনে সচিব আমাদের আশ্বস্ত করেছিলেন। কিন্তু বেতন কাঠামোর গেজেটে কোন দিক নির্দেশনা নেই। আমাদের সঙ্গে রীতিমত প্রতারণা করা হয়েছে।

অন্য ক্যাডারের কর্মকর্তাদের মতো ১ জুলাই থেকেই পঞ্চম গ্রেডের সহযোগী অধ্যাপকদের অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি দিয়ে তৃতীয় গ্রেডের বেতন দিতে সরকারী আদেশ জারির দাবি জানান সমিতির সভাপতি। নায়েম মহাপরিচালক, এনসিটিবি চেয়ারম্যান, সব শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান এবং জেলা সদরের অনার্স ও মাস্টার্স কলেজের অধ্যক্ষের পদকেও গ্রেড-১ এ উন্নীত করার দাবি জানান তিনি।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনা ভাইরাসে ২৪ ঘণ্টায় ৪৪ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩২০১         করোনা ভাইরাসের সংকটেও বিএনপি চিরাচরিত নালিশের রাজনীতি আঁকড়ে ধরেছে         প্রবাসীদের ভিসার মেয়াদ বাড়িয়েছে সৌদি সরকার ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী         ‘করোনাসংকট মোকাবেলায় তরুণদের ভূমিকা’         আইসিইউ’র অতিরিক্ত ভাড়ার অভিযোগ দুদককে তদন্তের নির্দেশ         টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে মাদক কারবারি দুই রোহিঙ্গা নিহত         রাজধানীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ ছিনতাইকারী নিহত         বাংলাদেশিসহ ১৮০ অভিবাসনপ্রত্যাশীর জন্য দ্বার খুলল ইতালি         সমুদ্রে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত         করোনায় ৪০ কোটি মানুষ চাকরি হারিয়েছে ॥ আইএলও         এবার চীনে প্লেগ ॥ মহামারির শঙ্কায় সতর্কতা জারি         প্রতিরক্ষা সচিব হলেন মোস্তফা কামাল         করোনায় শিক্ষার্থী শূন্য সবুজ মতিহারে নীরবেই ৬৮ তে পা রাখলো রাবি         করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বলিভিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী         করোনা আক্রান্তে রাশিয়াকে ছাড়িয়ে বিশ্বে তৃতীয় অবস্থানে ভারত         প্রথমবারের মতো একাই নিষেধাজ্ঞা দিতে চলেছে যুক্তরাজ্য         হজে এবার কাবা স্পর্শ করা নিষিদ্ধ         জাপানে বন্যা ও ভূমিধস, অন্তত ২০ জনের মৃত্যু         ইরানের উপকূলজুড়ে রয়েছে বহু ভূগর্ভস্থ ক্ষেপণাস্ত্র ॥ নৌ - প্রধান         পারমাণবিক কেন্দ্রে দুর্ঘটনায় ক্ষয়ক্ষতির কথা জানাল ইরান        
//--BID Records