শুক্রবার ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কমিউনিটি ক্লিনিক গতিশীল করতে নতুন আইন হচ্ছে

  • প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির সহায়তা নেয়াই উদ্দেশ্য

নিখিল মানখিন ॥ কমিউনিটি ক্লিনিক প্রকল্পের কার্যক্রম আরও গতিশীল করতে নতুন আইন প্রণয়ন করতে যাচ্ছে সরকার। আইনটির নাম দেয়া হয়েছে ‘কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্ট আইন-২০১৪’। ইতোমধ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে আইনটির খসড়া। সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নিকট হতে অর্থ সংগ্রহ এবং ব্যবহারের মাধ্যমে কমিউনিটি ক্লিনিক পরিচালনায় সহায়তা করাই আইনটির মূল উদ্দেশ্য। স্থানীয় জনসাধারণের মধ্যে অংশীদারিত্বমূলক মনোভাব তৈরির লক্ষ্যে স্বাস্থ্যসেবা মান উন্নয়নে তাদের পরামর্শ/ মতামতের ভিত্তিতে ট্রাস্টের তহবিল থেকে আর্থিক সাহায্য/মঞ্জুরি প্রদানের ব্যবস্থা থাকবে। বিশেষ ক্ষেত্রে অতি দরিদ্র রোগীর উন্নত চিকিৎসার জন্য উচ্চতর পর্যায়ে প্রেরণের ব্যয় নির্বাহ করাও আইনটির অন্যতম উদ্দেশ্য।

খসড়া আইনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের গ্রামীণ সুবিধা বঞ্চিত জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সহায়তা চাওয়া হবে। কমিউনিটি ক্লিনিকে বেসরকারী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের অংশীদারিত্ব তৈরি করা সমীচীন ও প্রয়োজনীয়। এই আইন বলবৎ হওয়ার পর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সরকার এই আইনের বিধান অনুযায়ী কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্ট নামে একটি ট্রাস্ট স্থাপন করবে। সরকারের উন্নয়ন বা অনুন্নয়ন বাজেটের বাইরে বিশেষ প্রয়োজনে গ্রামীণ সুবিধা বঞ্চিত জনগোষ্ঠীর সমন্বিত প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের জন্য এই ট্রাস্টের তহবিল ব্যবহার করা হবে। গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর মধ্যে উন্নত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা হবে এবং কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে সুবিধা বঞ্চিত জনগোষ্ঠীর সমন্বিত প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকে আরও টেকসই করা হবে। স্থানীয় জনসাধারণের মধ্যে অংশীদারিত্বমূলক মনোভাব তৈরির লক্ষ্যে স্বাস্থ্যসেবা মান উন্নয়নে তাদের পরামর্শ/ মতামতের ভিত্তিতে ট্রাস্টের তহবিল থেকে আর্থিক সাহায্য/মঞ্জুরি প্রদানের ব্যবস্থা থাকবে। ক্লিনিক মেরামত ও রক্ষণাবেক্ষণের ব্যয়সহ বিদ্যুত বিল প্রদান ও অন্যান্য ব্যয় নির্বাহের জন্য ট্রাস্টের তহবিল ব্যবহার করা হবে। সমন্বিত প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদানসহ মাতৃ স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের লক্ষ্যে এমএসআর (মেডিক্যাল ও সার্জিকেল রিকুইজিত) সামগ্রী ক্রয়ের জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হবে। বিশেষ ক্ষেত্রে অতি দরিদ্র রোগীর উন্নত চিকিৎসার জন্য উচ্চতর পর্যায়ে প্রেরণের ব্যয় নির্বাহ করাও আইনটির অন্যতম উদ্দেশ্য।

খসড়া আইনে আরও বলা হয়েছে, যে সব উৎস থেকে সহায়তা নেয়া যাবে, সেগুলোর মধ্যে রয়েছে- সরকার কর্তৃক প্রদত্ত জাতীয় বাজেট হতে প্রাপ্ত অর্থ, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক দান ও অনুদান, বিভিন্ন অর্থ লগ্নীকারী প্রতিষ্ঠানের (ব্যাংক, বীমা) আর্থিক সহায়তা, প্রবাসীদের আর্থিক সহায়তা, সরকার অনুমোদিত দাতা দেশ, সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান হতে প্রাপ্ত অর্থ, সরকার অনুমোদিত দেশী ও বিদেশী উৎস হতে প্রাপ্ত অর্থ এবং সমাজের বিত্তবান, শিল্পপতি ও ব্যবসায়ীদের নিকট হতে প্রাপ্ত অনুদান।

শীর্ষ সংবাদ:
যে অপরাধ করবে তাকেই শাস্তি পেতে হবে ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ একটি মাইলফলক : সেতুমন্ত্রী         ইভিএম পদ্ধতির ভুল প্রমান করতে পারলে পুরস্কৃত করা হবে ॥ ইসি আহসান হাবিব         অভিবাসীদের জীবন বাঁচাতে প্রচেষ্টা বাড়াতে হবে         অস্ত্র মামলায় ছাত্রলীগ নেতা সাঈদী রিমান্ডে ॥ জোবায়েরের জামিন         স্ত্রীর কবরের পাশে চিরশায়িত হবেন আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী         শিগগিরই সব দলের সঙ্গে সংলাপ : সিইসি         চাঁদপুরে ট্রাক-অটোরিকশা মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের দুই পরীক্ষার্থী নিহত         তীব্র জ্বালানি সংকটে শ্রীলঙ্কায় স্কুল ও অফিস বন্ধ         মঠবাড়িয়ায় যাত্রীবাহী বাস চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত, আহত ২         নগর ভবনে দরপত্র জমা দেওয়ার চেষ্টা         রাজধানীর বাজারে প্রায় সব পণ্যের দাম বৃদ্ধি         শনিবার গ্যাস থাকবে না রাজধানীর যেসব এলাকায়         আজ ২০ সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে ‘পাপ-পুণ্য’         সারাদেশে চলছে ভোটার তালিকার হালনাগাদ         দৌলতখানে বাবা-ছেলে চেয়ারম্যান প্রার্থী         হাইকোর্টের নির্দেশে ভারতে অবৈধ ভাবে নেওয়া চাকরি হারালেন মন্ত্রী কন্যা         আফগানিস্তানে নারী উপস্থাপকদের অবশ্যই মুখ ঢাকতে হবে, নির্দেশ তালিবানের         শাহজালালে ৯৩ লাখ টাকার স্বর্ণসহ যাত্রী আটক         আজ দ্বিতীয় ধাপের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত