ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

শিশু রাহুলকে বাঁচাতে সাহায্য চান তার পরিবার

নিজস্ব সংবাদদাতা, নান্দাইল, ময়মনসিংহ 

প্রকাশিত: ২১:৪১, ২৯ মে ২০২৩

শিশু রাহুলকে বাঁচাতে সাহায্য চান তার পরিবার

শিশু রাহুল মায়ের কোলে

গত চার মাস আগে একদিন সকালে শিশু রাহুলের (১৮ মাস) ঘুম ভাঙ্গলে পরিবারের লোকজন দেখতে পান তার মুখ, চোখ ও পেট ফুলে গেছে। ফোলার কারনে পুরো দুই চোঁখ ডেকে গেছে। প্রথমে সবাই ভেবেছিল ঘুমানোর সময় বালিশের কারনে এমনটা হয়েছে। কিন্তু দিনদিন অবনতি হতে দেখে হাসপাতালে ভর্তির পর পরীক্ষা নিরীক্ষার করে চিকিৎসক জানায় রাহুলের দুইটা কিডনিই বিকলের দিকে।
 
জানা গেছে, রাহুল নান্দাইল পৌরসভার পুড়াবাড়িয়া মহল্লার রিকশা চালক ফরহাদ মিয়ার ছেলে। ফরহাদ ব্রহ্মণবাড়িয়ায় রিকশা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে। স্ত্রী হেপি আক্তার অন্যের বাড়িতে কাজ করে সংসারের অভাবের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। শিশুটির দাদি মাজেদা বেগম বলেন, ফুটফুটে শিশু রাহুল সব সময় হাসি খুশি ও চঞ্চল ছিল। পরিবারের সবাই তাকে নিয়ে মেতে থাকত। হঠাৎ একদিন প্রচন্ড খিচুনি, জ্বর ছাড়াও খাবারে অরুচি থেকে শরীর ফুলে গিয়ে অচল হতে থাকে। এরপর হাসপাতালে ভর্তি করলে জানা যায় নাতির কিডনি বিকল হয়ে যাচ্ছে। এ অবস্থায় কিছুদিন হাসপাতালে অবস্থান করলেও অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে না পেরে এখন বাড়িতেই রয়েছেন। এখন সবার চোখের সামনে মৃত্যুর প্রহর গুনছে ছোট নাতি।

মা হেপি জানায়, ছেলেকে জাতীয় শিশু ইনস্টিটিউট হাসপাতালে ১০দিন চিকিৎসা করানোর পর ফোলা কমে গেলে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়। বাড়িতে আনার পরদিন থেকেই পুরো শরীর মাত্রাতিরিক্ত ফুলে যায়। এ অবস্থায় তার শ্বাসপ্রশ্বাসে অসুবিধার সৃষ্টি হচ্ছে। এখন টাকার অভাবে চিকিৎসা বন্ধ রয়েছে। এ অবস্থায় রাহুলের দরিদ্র মা-বাবা ছেলের উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ সমাজের বৃত্তবানদের কাছে সহযোগিতা চেয়েছেন।  
 
 

এমএস

×