ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১

উখিয়ায় পাহাড় কাটতে গিয়ে মাটি চাপায় তিন রোহিঙ্গা নিহত

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার

প্রকাশিত: ১৪:২৮, ২৯ মার্চ ২০২৩

উখিয়ায় পাহাড় কাটতে গিয়ে মাটি চাপায় তিন রোহিঙ্গা নিহত

মাটি চাপায় রোহিঙ্গা নিহত

রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের মুহুরি পাড়ায় রাতের আঁধারে পাহাড় কাটতে গিয়ে মাটি চাপা পড়ে ২ রোহিঙ্গা নিহত ও এক রোহিঙ্গা নিখোঁজ রয়েছে। এসময় আহত হয় আরও এক রোহিঙ্গা। পরে অবশ্য নিখোঁজ রোহিঙ্গার মরদেহও পাওয়া গেছে।

ঘটনার খবর পেয়ে সকাল ১০ টার দিকে ঘটনাস্থলে উখিয়া থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে।

বুধবার ভোর রাতে মুহুরি পাড়া এলাকায় পাহাড় ধ্বসের এ ঘটনা ঘটেছে। 

নিহত রোহিঙ্গারা হলেন, কুতুপালং লম্বাশিয়া ১ নং ক্যাম্পের মৃত আবদুল মতলব এর ছেলে জাহিদ হোসাইন(২৩)ও রাবেয়া খাতুনের ছেলে সৈয়দ আকবর (২০)। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আবদুল মান্নান প্রকাশ টনা ও নেছার আহমদ বনবিভাগকে ম্যানেজ করে রাত ও ভোরে ৩০ জন রোহিঙ্গা শ্রমিক দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিশাল পাহাড় কেটে আবুল বলির ছেলে ভুলু সওদাগর ও নুর মোহাম্মদ বলি ডাম্পার যোগে মাটি বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিলেও বনবিভাগ ও স্থানীয় প্রশাসনের টনক নড়েনি।

উখিয়া ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন ম্যানেজার এমদাদুল হকের বরাত দিয়ে উখিয়া সংবাদদাতা জানান, পাহাড় ধ্বংসে রোহিঙ্গা নিহতের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে একটা লাশ পাওয়া যায়,পরে ৪ ঘন্টা পর মাটি সরিয়ে আরেক রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার করা হয়। ভোরে নিহত আরেক রোহিঙ্গার লাশ অন্য রোহিঙ্গারা ক্যাম্পে নিয়ে যায়। পুলিশ ওই লাশটিও খুঁজে পেয়েছে। 

উখিয়া থানার ওসি ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ মোহাম্মদ আলী জানান, পাহাড় ধ্বংসে রোহিঙ্গা নিহত হওয়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ৩ রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

উখিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী শফিউল আলম জানান, পাহাড় ধ্বংসে রোহিঙ্গা নিহতের ঘটনায় আবদুল মান্নান প্রকাশ টনা ও নেছার আহমদ এর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। উল্লেখ্য ২৭ মার্চ উখিয়ায় পাহাড় কাটার হিড়িক শীর্ষক সচিত্র সংবাদ দৈনিক জনকণ্ঠে প্রকাশিত হয়েছে।  
 

টিএস

×