৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

এবার ওয়ানডে অধিনায়কত্বও ছাড়ছেন মাশরাফি

প্রকাশিত : ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ ও জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজ শুরু হবে ১ মার্চ। সেদিন প্রথম ওয়ানডে দিয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু হবে। ৩ মার্চ দ্বিতীয় ও ৬ মার্চ তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে সিরিজ শেষ হবে। এ সিরিজেও মাশরাফি ওয়ানডে অধিনায়ক থাকছেন। তবে সিরিজ শেষ হতেই মাশরাফি অধিনায়কত্ব শেষ হয়ে যাবে।

আর মাত্র ১৬দিন বাকি। সুস্থ থেকে যদি মাশরাফি জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে পারেন তাহলে ৬ মার্চ বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে তার নেতৃত্বের শেষদিন হতে চলেছে। টেস্ট ক্রিকেট তিনি খেলেন না। ২০০৯ সাল থেকেই টেস্টে নেই মাশরাফি। আবার ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ টি২০ ক্রিকেট থেকেও আগেই অবসর নিয়েছেন। বাকি থাকে শুধু ওয়ানডে ক্রিকেট। তা খেলেন তিনি। দলের নিয়মিত অধিনায়কও। কিন্তু তার যে বয়স (৩৭ বছর চলে) এবং বোলিং পারফর্মেন্সে ভাটা, তাতে দলে মাশরাফিকে নিয়মিত দেখা যাবে এর কোন নিশ্চয়তাও নেই। আর তাই মাশরাফিকে অধিনায়ক থেকে সরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্তই নেয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সেই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে। বুধবার বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন তা জানিয়েছেনও। একমাসের মধ্যে নতুন ওয়ানডে অধিনায়ক ঘোষণাও করা হবে।

মাশরাফিকে ভবিষ্যত দলের অবস্থা বিবেচনা করে সরিয়ে দেয়া হচ্ছে। ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি-মার্চে ভারতে পরবর্তী ওয়ানডে বিশ্বকাপ হবে। এ বিশ্বকাপে স্বাভাবিকভাবেই খেলবেন না দেশের সফল এ অধিনায়ক। যেহেতু খেলার সুযোগ নেই তাই ভবিষ্যতে যেন বিশ্বকাপের জন্য একজন অধিনায়ক গড়া যায়, দল গড়া যায় এবং মাশরাফির পরিবর্তে একজন পেসার দলে নেয়া যায় সেই চিন্তা থেকেই মাশরাফিকে অধিনায়ক থেকে সরিয়ে দেয়া হচ্ছে। বিশ্বকাপের উদ্দেশ্যে একজন অধিনায়ককে দলের দায়িত্ব দিয়ে এগিয়ে যাওয়ার চিন্তা করছে বিসিবি। ২০১০ সালে প্রথম ও ২০১৪ সালে দ্বিতীয় দফায় অধিনায়ক হওয়ার পর টানা ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাশরাফি। জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে সিরিজের পর সেই অধিনায়কত্ব শেষ হবে।

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এ নিয়ে বলেন, ‘সামনের ওয়ানডে বিশ্বকাপকে কেন্দ্র করে আমাদের দল গোছাতে হবে। একজন অধিনায়কও ঠিক করতে হবে। বিশ্বকাপের আগে অন্তত দুই বছর যেন ওই অধিনায়কের নেতৃত্বে টিমটা খেলতে পারে। সুতরাং খুব দ্রুত আমরা ওয়ানডেতে নতুন অধিনায়কের নাম ঘোষণা করব। সম্ভবত আগামী ৭-৮ তারিখে বোর্ড সভায় এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হবে।’

অধিনায়কত্ব শেষ হচ্ছে মাশরাফির। তাহলে কি জাতীয় দলেও আর দেখা যাবে না মাশরাফিকে। তিনি তো খেলতে আগ্রহী? বিসিবি সভাপতি এখনই জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে দলে থাকতে হলে বিপ টেস্টে পাস করেই মাশরাফিকে খেলতে হবে, এমন জানান। ভবিষ্যতেও তা বহাল থাকবে বলেই জানান, ‘মাশরাফি এই (জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে) সিরিজে অবশ্যই খেলছে এবং সেটা অধিনায়ক হিসেবে। তবে ফিট না হলে সেটা ভিন্ন কথা। আগে তো বিপ টেস্ট পাসের কোন ব্যাপার ছিল না। এখন তো এটা পাস করতে হয়। প্রথম কথা মাশরাফিকে বিপ টেস্টে পাস করে আসতে হবে। ওর জন্য অতটা কড়াকড়ি করব না।’

প্রকাশিত : ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০

২০/০২/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: