২৭ জানুয়ারী ২০২০, ১৪ মাঘ ১৪২৬, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

শনিবার তিন স্বর্ণজয় বাংলাদেশের

প্রকাশিত : ৮ ডিসেম্বর ২০১৯
শনিবার তিন স্বর্ণজয় বাংলাদেশের

রুমেল খান, কাঠমান্ডু, নেপাল থেকে ॥ ২০১৬ আসরে এসএ গেমসে ৪ স্বর্ণ জিতেছিল বাংলাদেশ। এবার সেই অর্জন টপকে যাবার উচ্চাশা ব্যক্ত করা হয়েছিল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ এবং বাংলাদেশ অলিম্পিক এ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে। অবশেষে শনিবার তাদের সেই প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে। তিন দিন স্বর্ণখরার পর শনিবার বাংলাদেশ তিনটি সোনার পদক জিতেছে। দুটিই আসে ভারোত্তোলন থেকে। অপরটি আসে ফেন্সিং থেকে। চলতি আসরে এ নিয়ে বাংলাদেশে সোনার সংখ্যা দাঁড়ালো ৭-এ।

গেমসের সাত দিনে সাত সোনা জেতায় বেশ উচ্ছ্বসিত বাংলাদেশের ক্রীড়ামোদীরা। কারণ এতে গত আসরের সাফল্যকে অতিক্রম করা গেছে। একই সঙ্গে দেশের বাইরে অনুষ্ঠিত এসএ গেমসে সবচেয়ে বেশি সোনাও ইতোমধ্যে জিতেছে বাংলাদেশ। ১৯৯৫ সালে মাদ্রাজ গেমসেও ৭টি স্বর্ণ জিতেছিল বাংলাদেশ। সেটাই এতদিন লাল-সবুজের দলটির বিদেশের মাটিতে সেরা সাফল্য ছিল। এবার ১৯৯৫ আসরের সেই অর্জনকেও ছাড়িয়ে যাওয়ার উজ্জ্বল সম্ভাবনা আছে বাংলাদেশের। ক্রিকেটের ছেলে ও মেয়ে উভয় বিভাগেই ফাইনালে ওঠায় বাংলাদেশের সোনা জয়ের সম্ভাবনা উজ্জ্বল। আর ভারত না থাকায় আরচ্যারির ১০টি ইভেন্ট থেকে আসতে পারে আজ আজতে পারে একাধিক স্বর্ণ। সেটা হলে গেমসের এক আসরের ইতিহাসে নিজেদের সর্বোচ্চ স্বর্ণজয়ের অতীত রেকর্ডকেও ছাপিয়ে যেতে পারে বাংলাদেশ। এর আগে ঢাকায় অনুষ্ঠিত ২০১০ সালের গেমসে বাংলাদেশ জিতেছিল ১৮ সোনা।

নেপালে ত্রয়োদশ এসএ গেমসে টানা তিনদিন স্বর্ণহীন গেছে বাংলাদেশের। গতকাল ফের সোনালি দিনে ফিরেছেন লাল-সবুজ ক্রীড়াবিদরা। জিতেছেন তিন-তিনটি স্বর্ণ। পোখারায় ভারোত্তোলনের ৭৬ কেজিতে মাবিয়া আক্তার সীমান্ত ও ৯৬ কেজিতে জিয়ারুল ইসলাম এবং ফেন্সিংয়ে সাবের এককে ফাতেমা মুজিব স্বর্ণ জিতেছেন।

তবে তিন স্বর্ণজয়ের দিন আবার হতাশ করেছেন টানা দুই কমনওয়েলথ গেমসে রৌপ্য জয়ী শূটার আব্দুল্লাহ হেল বাকী। সাতদোবাতো ক্রীড়া কমপ্লেক্সের শূটিং রেঞ্জে ১০ মিটার এয়ার রাইফেলের মিশ্র দ্বৈত ইভেন্টে রৌপ্য নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাকে, বাংলাদেশকেও। নিজের ভুলে এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ভারতীয় শূটারের কাছে স্বর্ণ হারাতে হয়েছে সৈয়দ আতকিয়া হাসানের সঙ্গে জুটি বেঁধে খেলতে নামা বাকী। কুস্তিতে ৫৫ কেজিতে রিমি সরকার, ভারোত্তোলনের ১০২ কেজিতে মাইনুল ইসলাম রৌপ্য ও ৭৭ কেজিতে ব্রোঞ্জ জিতেছেন আবদুর রশীদ।

এসএ গেমসে সবচেয়ে বড় প্রত্যাশা ফুটবলে। তবে ভুটারের কাছে হার দিয়ে শুরু করলেও ধীরে ধীরে বেশ গুছিয়ে উঠেছেন জেমি ডের দল। মালদ্বীপের বিপক্ষে রেফারির ভুলে ড্র করার পর শ্রীলঙ্কাকে ১-০ গোলে ফাইনাল স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন জামালরা। তবে ফাইনালের পথটা বন্ধুর, স্বাগতিক নেপালকে আজ হারাতেই হবে তাদের।

আরচ্যারির রিকার্ভ এককে রোমান সানা ও ইতি খাতুন এবং কম্পাউন্ডে সোহেল রানা ও সোমা বিশ্বাস ফাইনালে উঠেছেন। স্বর্ণ জয়ের মঞ্চে উঠেছেন রিকার্ভ ও কম্পাউন্ডের পুরুষ ও নারী দলগত এবং মিশ্র দলগতে।

প্রকাশিত : ৮ ডিসেম্বর ২০১৯

০৮/১২/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: