১৩ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শ্মশান জবরদখলের প্রতিবাদে শিবগঞ্জে মানববন্ধন


স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস ॥ শিবগঞ্জ উপজেলার প্রাচীন শ্মশানের ভূমি দখলের প্রতিবাদে এলাকার হিন্দু সম্প্রদায় ফুঁসিয়ে উঠেছে। দখলের অভিযোগের আঙ্গুল শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুল হকের দিকে। দখলের প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ হিন্দু সম্প্রদায় শনিবার সকালে বিক্ষোভ মিছিল করে মহাশ্মশানের সামনে মানববন্ধন ও সমাবেশ করে। এরপর তারা প্রতিকার চেয়ে স্মারকলিপি দিয়েছে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে।

শিবগঞ্জ উপজেলার বানাইল বারোয়ারির কেন্দ্রীয় শিব মন্দির ও শ্মশান সংরক্ষণ কমিটির সাধারণ সম্পাদক দুলাল চন্দ্র সরকার জানান, করতোয়া নদীর তীরে ২৭ শতাংশ ভূমিতে প্রাচীন মহাশ্মশান। বংশপরম্পরায় হিন্দু সম্প্রদায় এই শ্মশানেই মৃতদের সৎকার করে। এই শ্মশানের সব দলিল তাদের আছে। যার কপি জেলা প্রশসানের কাছেও আছে। এলাকার ওসমান নামের এক ব্যক্তি শ্মশানের কিছু জমির মালিকানা দাবি করে। পরে তা প্রমাণে তিনি ব্যর্থ হন।

এরপর শিবগঞ্জ আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুল হকের নেতৃত্বে সড়কের ধারে শ্মশানের ৪ শতাংশ ভূমি দখল শুরু হলে হিন্দু সম্প্রদায় তার প্রতিবাদ করে। তারপরও ভূমি দখল হয়। ক’দিন আগের ঝড়ে শ্মশান সংলগ্ন বট গাছ পড়ে গেলে তাও নিয়ে যান আওয়ামী লীগের সভাপতি।

এই ভূমি দখলের প্রতিবাদে স্থানীয়রা কর্মসূচী দিলে আওয়ামী লীগ সভাপতি আজিজুল হক বিক্ষুব্ধ হয়ে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শাসাতে থাকেন। তিনি মহাশ্মশান কমিটির সাধারণ সম্পাদককে প্রাণনাশ ও প্রয়োজনে লাশ পোড়ানো বন্ধের হুমকি দেন। এই বিষয়ে আজিজুল হকের কথা- শ্মশানের এই জমি খাস ভূমি। যার কিছু অংশ লিজ নিয়েছে ওসমান মোল্লা। তিনি কাউকে হুমকি ধমকি দেননি। এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের ক’জন বলেন, প্রভাবশালী দখলবাজদের ভয়ে এতদিন কেউ মুখ খোলেনি। এখন তারা প্রাচীন শ্মশান রক্ষায় একজোট হয়েছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আমিনুর রহমান বলেন, শ্মশানের ভূমি যাতে কেউ দখল করতে না পারে সেই আইনী ব্যবস্থা তিনি নেবেন।

শরণখোলায় শীর্ষ সন্ত্রাসী মিলন গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ শরণখোলার শীর্ষ সন্ত্রাসী, মাদক বিক্রেতা এবং কলেজছাত্রী হিরা আক্তার অপহরণসহ একাধিক মামলার আসামি ডিলার মিলন অবশেষে গ্রেফতার হয়েছে। শনিবার দুপুরে খোন্তাকাটা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি সদস্য মুজিবর তালুকদারকে উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজার শের-ই-বাংলা সড়কে ফেলে বেদম মারধর করে ওই সন্ত্রাসী। এ ঘটনায় শনিবার বিকেলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। তার বিরুদ্ধে গাড়ি ছিনতাই, অপহরণ, চাঁদাবাজি, মারামারিসহ বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। বাজারের বাসিন্দা শাহজাহান ডিলারের ছেলে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী ও চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা মিজানুর রহমান মিলন ওরফে ডিলার মিলন গ্রেফতার হওয়ায় এলাকাবাসী স্বস্তি প্রকাশ করেছেন।