২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

হাফ ভাড়া না নেয়ায় জাবি শিক্ষার্থীদের ২১ বাস আটক, পরে সমঝোতা


জাবি সংবাদদাতা ॥ গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া নেয়ার কথা থাকলেও তার কোন তোয়াক্কা করছে না কয়েকটি পরিবহন। শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া না নিলে সংশ্লিষ্ট পরিবহনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে- সড়ক ও পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের পরও তা মেনে চলছে না কিছু গণপরিবহনের মালিকরা। ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে চলাচলকারী গণপরিবহনের মধ্যে প্রায় সবই শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া নিয়ে থাকেলেও ইতিহাস পরিবহন এর ব্যতিক্রম। সরকারী নির্দেশনাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে মিরপুর-চন্দ্রা রুটে চলাচলকারী ইতিহাস পরিবহন হাফ ভাড়া বিষয়টিকে নিয়েছে তাচ্ছিল্যের সঙ্গে। ইতিহাস পরিবহনের বাসগুলোর প্রত্যেকটিতে ‘হাফ পাস নাই’ লেখা স্টিকার লাগানো রয়েছে। বিশেষত শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া না নেয়ার জন্যই পরিবহন কর্তৃপক্ষ এমন স্টিকার লাগিয়েছে।

শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া নেয়ার দাবিতে ইতিহাস পরিবহনের ২১টি বাস আটক করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, নিয়ম অনুযায়ী বাস ভাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ (মূল ভাড়ার অর্ধেক) থাকলেও ইতিহাস পরিবহন তা গ্রহণ করে না উপরন্ত বাসের কর্মচারীরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করায় এ অবরোধ করেন তারা। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে বাসগুলো আটক করে রাখে। পরবর্তীতে বিকেল সাড়ে ৩টায় বিশ^বিদ্যালয়ের পরিবহন চত্বরে সহকারী প্রক্টর মেহেদী ইকবাল, জাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুর রহমান জনি, জাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহম্মেদ রাসেল, জাবি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাহিদুল ইসলাম মাহি এবং ইতিহাস পরিবহণের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রিপণের উপস্থিতিতে আলোচনা সভা বসে। আলোচনায় বিশ^বিদ্যালয়ের প্রধান ফটক থেকে মিরপুর-১৪ পর্যন্ত এবং ঢাকার যে কোন জায়গাতে ২০ টাকা ভাড়ার সমঝোতা হয়। এদিকে বিশ^বিদ্যালয় থেকে সাভার ও নন্দন পার্ক পর্যন্ত ৫ টাকা ভাড়া নির্ধারণ করা হয়। আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতা হওয়ার পর আটক করা সকল বাস ছেড়ে দেয় শিক্ষার্থীরা।