২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

এএসআই ইব্রাহিম হত্যায় ২৯ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ


স্টাফ রিপোর্টার ॥ গত ২২ অক্টোবর রাতে গাবতলীতে এএসআই ইব্রাহিম মোল্লা হত্যার ঘটনায় ২৯ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। এর মধ্যে ৯ জনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে যাচ্ছে তদন্তকারীরা। ঢাকা ও বগুড়া থেকে তাদের আটক করা হয়। পুলিশ কর্মকর্তা হত্যাকারী শনাক্ত হয়েছে। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

ঘটনার দিন রাত নয়টার দিকে রাজধানীর গাবতলী আমিনবাজার ব্রিজের ঢালে চেকপোস্টে দায়িত্ব পালন করছিলেন এএসআই ইব্রাহিম মোল্লা (৪০)। বগুড়া থেকে গাবতলীগামী একটি বাস থেকে ব্রিজের ঢালে তিন যুবক নামে। তাদের একজনের হাতে ব্যাগ ছিল। পুলিশ চেক করার জন্য যুবকদের থামতে বলে। একজন হেঁটে চলে যায়। দুই জন অন্ধকারে নয়, আলোতে এসে ব্যাগ তল্লাশি করতে পুলিশ কর্মকর্তাকে বলেন। পুলিশ কর্মকর্তা দুই যুবকের সঙ্গে খানিক দূরে গেলে এক যুবক ছুরি দিয়ে পেটে আঘাত করে পুলিশ কর্মকর্তাকে হত্যা করে। পালানোর সময় জনতা ও পুলিশ মাসুদ রানাকে আটক করে। মাসুদ রানা ছাত্রশিবিরের সাথী। তার তথ্য মতে, ওই রাতেই কামরাঙ্গীরচর থেকে পাঁচটি হ্যান্ড গ্রেনেডসহ আব্দুল আজিজ মিয়া, ফজলে রাব্বী ও রাকিব হাসানকে গ্রেফতার করা হয়। একই ঘটনায় বগুড়া থেকে এক বিএনপি ও এক জামায়াত নেতাসহ ২৫ জনকে আটক করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। তাদের ঢাকায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। এদের মধ্যে মাসুদ রানাকে ৭ দিনের এবং অপর ৮ জনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের পশ্চিম বিভাগের উপ-কমিশনার সাজ্জাদুর রহমান জনকণ্ঠকে বলেন, মূল হত্যাকারীকে শনাক্ত করে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।