ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির শুটিং ইভেন্ট ২০২২

নবম বারের চেষ্টায় সফলতা জনকণ্ঠের রুমেলের!

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২১:২৯, ১৬ আগস্ট ২০২২; আপডেট: ২২:০২, ১৬ আগস্ট ২০২২

নবম বারের চেষ্টায় সফলতা জনকণ্ঠের রুমেলের!

ডিআরইউ শুটিং প্রতিযোগিতায় রানারআপ হওয়ার পর বিশেষ ভঙ্গিমায় জনকণ্ঠের রুমেল খান

স্কটিশ স্বাধীনতার বীর, রাজা রবার্ট ব্রুস ইংল্যান্ডের সঙ্গে ছয় বার যুদ্ধে হেরে গিয়ে সপ্তম বারের চেষ্টায় জয়লাভ করেছিলেন। ২০০৯ সালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) যোগ দেয়া দৈনিক জনকণ্ঠের ক্রীড়া সাংবাদিক রুমেল খান নিশ্চয়ই রবার্ট ব্রুস নন! তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে-ডিআরইউর বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় শুটিং ইভেন্টে টানা আট বছর (২০১৩-২০২১ পর্যন্ত, ২০১৮ সালে প্রতিযোগিতা হলেও শুটিং ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হয়নি) ধরে অংশ নিয়েও কোন পদক না জেতা রুমেল এবার নবম বারের চেষ্টায় অবশেষে সফলতার মুখ দেখেছেন! হয়েছেন রানারআপ। অথচ আগের আট আসরে কমপক্ষে তৃতীয় হওয়া দূরে থাক, সেরা পাঁচেও আসতে পারেননি তিনি!

আজ বুধবার দুপুরে ঢাকার পল্টনের শহীদ (ক্যাপ্টেন) এম. মনসুর আলী জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত পুরুষদের শুটিং ইভেন্টে ৩০-এর মধ্যে ২৭ স্কোর করে নতুন চ্যাম্পিয়ন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছেন গাজী টিভির সাজ্জাদ হোসাইন।

রুমেল ২৫ (++১০) স্কোর করেন। তার সমান স্কোর করেন দৈনিক যুগান্তরের জ্যোতির্ময় মণ্ডল- (১০++) বাইলজ অনুযায়ী দ্বিতীয় তৃতীয় স্থান নির্ধারণের জন্য এই দুজনকে টাইব্রেকার ম্যাচে অংশ নিতে হতো। কিন্তু দুজনের স্কোরশিট পর্যবেক্ষণ করে ইভেন্ট পরিচালনাকারী ওমর কামাল রায় দেন- টাইব্রেকার ম্যাচের প্রয়োজন নেই, রুমেলই রানারআপ এবং জ্যোতির্ময় তৃতীয়। কেননা দুজনেই একবার১০স্কোর করলেও রুমেলের শট ১০ পয়েন্টের বৃত্তের ভেতরে এবং জ্যোতির্ময়ের শট ১০ পয়েন্টের বৃত্তের লাইনে স্পর্শ করেছে।

পুরুষ শুটিং প্রতিযোগিতা শেষে তিন বিজয়ী, বিচারক, ডিআরইউ সদস্য ও ডিআরইউ ক্রীড়া সম্পাদক

ডিআরইউ ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় শুটিংয়ে এটা রুমেলের প্রথম, চলতি আসরে পঞ্চম এবং সার্বিকভাবে ২১-তম পদক। আগের ২০ পদক এসেছিল ক্রিকেট, টেবিল টেনিস, দৌড়, গোলক নিক্ষেপ এবং আরচারিতে। এবার সপ্তম ক্রীড়া-সাফল্য হিসেবে যুক্ত হলো শুটিং।   

পুরুষ শুটিংয়ের আগে একই ভেন্যুতে এর আগে অনুষ্ঠিত হয় নারী শুটিং। মজার ব্যাপার-নারী শুটিং অনুষ্ঠিত হয় আরচারির স্কোর শিটে! ডিআরইউর ক্রীড়া প্রতিযোগিতার ইতিহাসে যা বিরল ঘটনা। পুরুষ ইভেন্টের সময় অবশ্য শুটিংয়ের স্কোর শিটেই খেলা হয়েছে।

নারী সদস্যদের শুটিং ইভেন্টে চ্যাম্পিয়ন হন নাগরিক টিভির শাহনাজ শারমিন। রানারআপ হন সমকালের সাজিদা ইসলাম পারুল এবং তৃতীয় হন বিটিভির শামসুন্নাহার বিনু।

নারী শুটিং প্রতিযোগিতা শেষে তিন বিজয়িনী, বিচারক, ডিআরইউ সদস্য, ডিআরইউ ক্রীড়া সম্পাদক ও ডিআরইউ সভাপতি

সময় ডিআরইউ সভাপতি নজরুল ইসলাম মিঠু উপস্থিত থেকে খেলা উপভোগ করেন। আরো উপস্থিত ছিলেন ডিআরইউর সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ, ক্রীড়া উপ-কমিটির সদস্য তারিকুল ইসলাম মাসুম রকিবুল ইসলাম মানিক।

ডিআরইউর ক্রীড়া সম্পাদক মাকসুদা লিসার তত্বাবধানে শুটিং ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হয়। 

ডিআরউ স্পোর্টসে রুমেল খানের ২১ পদকের খতিয়ান (২০১২-২০২২) ২০১২ সালে ক্রিকেটে জনকণ্ঠের হয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচ, ২০১৩ সালে ক্রিকেটে জনকণ্ঠের হয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচ, ২০১৪ সালে টেবিল টেনিসে তৃতীয় স্থান, ম্যারাথনে রানারআপ, ২০১৬ সালে টেবিল টেনিস চ্যাম্পিয়ন, ম্যারাথনে তৃতীয় স্থান, ২০১৭ সালে টেবিল টেনিসে রানারআপ, গোলক নিক্ষেপে রানারআপ, ২০১৯ সালে টেবিল টেনিসে চ্যাম্পিয়ন, ১০০ মিটার স্প্রিন্টে তৃতীয় স্থান, ২০২০ সালে টেবিল টেনিসে চ্যাম্পিয়ন, ম্যারাথনে রানারআপ ১০০ মিটার স্প্রিন্টে তৃতীয়; ২০২১ সালে টেবিল টেনিস দ্বৈতে ম্যারাথনে রানারআপ, আরচারিতে তৃতীয় ২০২২ সালে আরচারিতে তৃতীয়, টেবিল টেনিসের এককে চ্যাম্পিয়ন দ্বৈতে রানার্সআপ, ৪০০ মিটার দৌড়ে তৃতীয় স্থান এবং শুটিংয়ে দ্বিতীয় স্থান।