ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০

টানা চার লিগ জয়ের ইতিহাস বসুন্ধরার

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:০৭, ২৭ মে ২০২৩

টানা চার লিগ জয়ের ইতিহাস বসুন্ধরার

নিজেদের মাঠ বসুন্ধরা স্পোর্টস কমপ্লেক্সে শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রকে হারিয়ে বসুন্ধরা কিংসের শিরোপা উল্লাস

নিজেদের মাঠে খেলা। জিতলেই কেল্লাফতে। রচিত হবে ইতিহাস। শুক্রবার বসুন্ধরা স্পোর্টস কমপ্লেক্সে সেই ইতিহাসই রচনা করল বসুন্ধরা কিংস। স্বাধীন বাংলাদেশের ফুটবলের ইতিহাসে প্রথম দল হিসেবে প্রিমিয়ার লিগে টানা চারবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা। ১০ গোলের রোমাঞ্চকর ম্যাচে তারা ৬-৪ গোলে হারায় শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে। এর ফলে তিন ম্যাচ হাতে রেখেই চ্যাম্পিয়ন হলো ‘দ্য কিংস’খ্যাত বসুন্ধরা। ১৭ ম্যাচে ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে তারা। বাকি তিন ম্যাচ হারলেও কোনো দল তাদের স্পর্শ করতে পারবে না। তবে ৭৫ বছরের লিগ ইতিহাসে কিংসের আগে টানা চারবার লিগ জয়ের কীর্তি আছে ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাবেরও (১৯৫৩-১৯৫৬)।

এদিকে কুমিল্লার শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে ঢাকা আবাহনী লিমিটেড ১-১ গোলে ড্র করেছে তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের সঙ্গে। মধ্যে লড়াইটি শেষ হয়েছে ১-১ গোলের সমতায়। এ ছাড়া মুন্সীগঞ্জের বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লেফট্যান্টে মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম আবাহনী ১-০ গোলে হারায় আজমপুর এফসি উত্তরাকে। কিংসের হয়ে হ্যাটট্রিকসহ ৪ গোল করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ডরিয়েলটন গোমেজ (৬, ৫০, ৬৬ ও ৭৬ মিনিটে)। চলতি লিগে তার ব্যক্তিগত গোলের সংখ্যা দাঁড়াল ১৮টি, যা সর্বোচ্চ। এ ছাড়া একটি করে গোল করে রবসন রবিনহো (৪৫+৩ মিনিটে) এবং শেখ মোরসালিন (৪৫+৫ মিনিটে)। রাসেলের কেনেথ ইকেচুকু জোড়া গোল করেন (৬৯ ও ৯০ মিনিটে)। ১টি করে গোল করেন সুজন (২৬ মিনিটে) ও দীপক (৩৮ মিনিটে)। ১৬ ম্যাচে ২২ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের পাঁচে আছে ২০১২ লিগের চ্যাম্পিয়ন রাসেল। 
মর্যাদার লড়াইয়ে আবাহনী-মোহামেডানের ড্র ॥ দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াইয়ে জেতেনি কেউই। ঢাকা আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচটি শেষ হয়েছে ১-১ গোলের সমতায়। আর তিনদিন পরই কুমিল্লার দর্শকরা আরও একটি আবাহনী-মোহামেডান দ্বৈরথ দেখতে পারবেন। সেটি ফেডারেশন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল। আগামী মঙ্গলবার দীর্ঘ ১৪ বছর পর আবারও এই টুর্নামেন্টের ফাইনালে লড়াই করবে এই দুই দল। 
৪৫ মিনিটই ছিল গোলশূন্য। তবে ইনজুরি টাইমে (৪৫+২ মিনিটে) বক্সের মধ্যে বল নিয়ে ঢুকে পড়েছিলেন মোহামেডান অধিনায়ক সুলেমান দিয়াবাতে। তাকে ফাউল করেন আবাহনীর ইউসুফ। রেফারি পেনাল্টির নির্দেশ দেন। তা থেকে গোল করে মোহামেডানকে লিড এনে দেন অধিনায়ক সুলেমান দিয়াবাতে (১-০)। ম্যাচের ৮৩ মিনিটে ম্যাচে সমতা আনে ১৭ বারের চ্যাম্পিয়ন আবাহনী। তারাও গোল শোধ করে পেনাল্টি থেকেই। ড্যানিয়েল কলিনড্রেস গোল করলে সমতায় ফেরে আবাহনী (১-১)। ১৭ ম্যাচে ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে আছে ঢাকা আবাহনী। ১৬ ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে গোলগড়ে পুলিশ ফুটবল ক্লাবকে পেছনে ফেলে তিনে উঠে এসেছে মোহামেডান।  
চট্টগ্রাম আবাহনীর জয়ে বিপাকে আজমপুর ॥ চট্টগ্রাম আবাহনী বনাম আজমপুর এফসি উত্তরা ম্যাচের ৮৪ মিনিট পর্যন্ত বোঝা যায়নি ম্যাচের ফল কি হতে পারে। ৮৫ মিনিটে গোল করে চট্টগ্রাম আবাহনীর ইমতিয়াজ গোল করে দলকে এগিয়ে নেন। এই জয়ে ১৬ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে চট্টলার দলটি আটে এবং সমান ম্যাচে মাত্র ৪ পয়েন্ট নিয়ে অবনমিত হওয়ার শঙ্কায় আছে আজমপুর।

×