ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চ্যাম্পিয়নকে হারিয়ে এক দশক পর সেমিফাইনালে রোমানিয়ান তারকা 

সাবালেঙ্কাকে থামালেন সোরানা

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৫২, ৩১ মার্চ ২০২৩

সাবালেঙ্কাকে থামালেন সোরানা

জয়ের উল্লাস রোমানিয়ার সোরানা সিরস্টিয়ার

জয়রথ থেমে গেল এরিনা সাবালেঙ্কার। মিয়ামি ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে তাকে বিদায় করে রীতিমতো চমকে দিলেন সোরানা সিরস্টিয়া। বুধবার শেষ আটের ম্যাচে রোমানিয়ার এই তারকা ৬-৪ এবং ৬-৪ গেমে সরাসরি সেটে পরাজিত করেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন এরিনা সাবালেঙ্কাকে। সেইসঙ্গে এক দশকের মধ্যে এই প্রথম ডব্লিউটিএ ১০০০ পর্যায়ের কোন টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করলেন সোরানা সিরস্টিয়া।

ডব্লিউটিএ ১০০০ পর্যায়ে এটা সোরানার ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেমিফাইনাল। এর আগে এরকম পর্যায়ে প্রথমবার কোন টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলেছিলেন ২০১৩ সালে। টরেন্টোর সেই টুর্নামেন্টের ফাইনালে অবশ্য আমেরিকান কিংবদন্তি সেরেনা উইলিয়ামসের কাছে হেরে রানার্স-আপ হয়েছিলেন তিনি। দীর্ঘ এক দশক পর আরও একটি টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালের টিকিট কেটে তাই দারুণ রোমাঞ্চিত সোরানা। যেন বাকরুদ্ধই হয়ে পড়েছিলেন সাবালেঙ্কাকে হারিয়ে।

ম্যাচের শেষে তিনি বলেন, ‘মনে হচ্ছে আমি কিছুটা বাকরুদ্ধ। ম্যাচটা যে খুব কঠিন হবে সেটা জেনেই আমি লড়াইয়ে নেমেছিলাম। এরিনা দারুণভাবে হিট করে। তাই তার বিপক্ষে ম্যাচে অবশ্যই আমাকে পা মাটিতে রাখতে হবে। শেষ পর্যন্ত তার বিপক্ষে ম্যাচটা জিততে পেরেছি। সেজন্য আমি আজ আমার পারফর্মেন্স নিয়ে দারুণ খুশি।’
অথচ সোরানা সিরস্টিয়ার বর্তমান বয়স ৩২। সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে শিরোপা জয়ের সংখ্যাও মাত্র দুটি। ডাবলসে পাঁচটি। র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা স্থান ২১। ২০১৩ সালের আগস্টে এই অর্জন যোগ হয়েছিল তার নামের পাশে। গ্র্যান্ডস্লামে তার সেরা পারফর্ম্যান্স কোয়ার্টার ফাইনাল। ২০০৯ সালের ফ্রেঞ্চ ওপেনে। তারপরও টেনিস কোর্টে নিয়মিতই লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন এই রোমানিয়ান। যে বয়সে অনেকেই র‌্যাকেট তুলে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন। অসংখ্য ব্যর্থতার গল্প নিয়ে সে বয়সেও কোর্টে লড়াই করে যাচ্ছেন সোরানা।

×