ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

জিতেই শেষ ষোলোতে খেলতে চান মেসিরা

জাহিদুল আলম জয়

প্রকাশিত: ০০:২৫, ৩০ নভেম্বর ২০২২

জিতেই শেষ ষোলোতে খেলতে চান মেসিরা

অনুশীলনে সতীর্থদের সঙ্গে আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসি

হট ফেভারিট হয়ে বিশ্বকাপ মঞ্চে এসে এখন গ্রুপ পর্বেই বড্ড বেকায়দায় আছে আর্জেন্টিনা। ‘সি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে এশিয়ার দেশ সৌদি আরবের কাছে অপ্রত্যাশিতভাবে ২-১ গোলে হার মানে লিওনেল মেসির দল। ওই হারে রীতিমতো খাদের কিনারায় পৌঁছে যায় কিংবদন্তি দিয়াগো ম্যারাডোনার দেশ।

দ্বিতীয় ম্যাচে মেসি ম্যাজিকে মেক্সিকোকে ২-০ গোলে হারালেও এখনো রয়ে গেছে বিদায়ের শঙ্কা। নকআউট রাউন্ড অর্থাৎ প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে খেলতে হলে নিজেদের শেষ গ্রুপ ম্যাচে জয় ছাড়া অন্য কোনো পথ নেই বললেই চলে। হারলে তো বিদায় নিশ্চিত। এমনকি ড্র করলেও তল্পিতল্পা গোছানোর সম্ভাবনা বেশি।
এমন কঠিন সমীকরণ সামনে রেখে ইউরোপের অন্যতম সমীহ জাগানিয়া দল পোল্যান্ডের মুখোমুখি হচ্ছে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। কাতারের রাজধানী দোহার স্টেডিয়াম ৯৭৪ এ মেসি, মারিয়া, মার্টিনেজদের বাঁচা-মরার ম্যাচটি মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ সময় আজ রাত ১টায়। একই সময়ে গ্রুপের আরেক ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে সৌদি আরব ও মেক্সিকো।

লুসাইলে হতে যাওয়া এই ম্যাচের ফলাফলও আর্জেন্টিনার ভাগ্য নির্ধারণে ভূমিকা রাখতে পারে। তবে সমীকরণ যত কঠিনই হোক এসব নিয়ে ভাবছে না বিখ্যাত আকাশি-নীল জার্সিধারীরা। রবার্ট লেভানডোস্কির পোল্যান্ডকে হারিয়েই শেষ ষোলোতে খেলার আশা আলবিসেলেস্তাদের।  
বর্তমানে ‘সি’ গ্রুপে দুটি করে ম্যাচ শেষে একটি করে জয় ও ড্রয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে সবচেয়ে সুবিধাজনক অবস্থায় আছে পোল্যান্ড। আর্জেন্টিনা ও সৌদি আরব দুদলের ভা-ারেই সমান ৩ পয়েন্ট করে। তবে গোলগড়ে দুইয়ে মেসিরা এবং তিনে অ্যারাবিয়ান ফ্যালকনসরা। ১ পয়েন্ট নিয়ে সবার তলানীতে অবস্থান করছে মেক্সিকো। এমন অবস্থায় আর্জেন্টিনাকে রুখে দিতে পারলেই শেষ ষোলো নিশ্চিত হয়ে যাবে পোলিশদের। এই সুযোগটা নিশ্চিত করেই ছাড়তে চাইবে না রবার্ট লেভানডোস্কির দল।

তাছাড়া দুইবারের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার আগেই ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন, আর্জেন্টিনাকে হারাতে চান তারা। যে কারণে জিততে হলে আর্জেন্টিনাকে নিজেদের সেরা খেলাটাই উপহার দিতে হবে। ম্যাচ ড্র করলেও আর্জেন্টিনার নকআউটে খেলার সম্ভাবনা থাকবে। সেক্ষেত্রে সৌদি আরব ও মেক্সিকোর মধ্যকার ম্যাচ ড্র হতে হবে। এই ম্যাচে যদি সৌদি আরব জিতে যায় তখন পোলিশদের সঙ্গে ড্র করলেও বিদায় নিতে হবে মেসি-মারিয়াদের।
অবশ্য এমন কঠিন সমীকরণ নিয়ে ভাবছে না আর্জেন্টিনা। মেক্সিকোকে হারিয়ে জেগে উঠেছে আলবিসেলেস্তারা। এই জাগরণ দিয়েই পোল্যান্ড হারাতে মরিয়া ম্যারাডোনার দেশ। প্রত্যয়ী আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি বলেন, আমরা জানি অনেক সমীকরণ সামনে। কিন্তু এসব নিয়ে ভাবছি না। আমাদের লক্ষ্য একটাই জয়। জয় দিয়েই ছেলেরা নকআউটে খেলতে মুখিয়ে আছে। আশা করছি লক্ষ্যপূরণ হবে।

আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি মরুর বুকে এসেছেন ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ খেলতে। বর্ণাঢ্য ও রঙিন ক্যারিয়ারের রেকর্ড সর্বোচ্চ ছয়বারের ফিফা সেরা ও সাতবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী সুপারস্টার সব জিতলেও বাকি আছে শুধু সোনার বিশ্বকাপ ট্রফি। এবার সেই খরা ঘোচানোর লক্ষ্যেই কাতার এসেছেন তিনি। খুদে জাদুকরের স্বপ্ন পূরণ হলে আর্জেন্টিনারও ১৯৮৬ সালের পর ৩৬ বছরের হাহাকার ঘুচবে।

তবে আর্জেন্টিনা আপাতত এসব নিয়ে ভাবছে না। তাদের ধ্যানজ্ঞানে শুধুই পোলিশ ম্যাচ। ম্যাচটি নিয়ে মেসি বলেন, অনেকে অনেক কিছু বলছেন। কিন্তু আমরা শুধু পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচ নিয়েই ভাবছি। জানি এই ম্যাচের ওপর আমাদের ভাগ্য নির্ভর করছে। সবাই মুখিয়ে আছে ম্যাচটিতে ভালো করতে। আশা করছি জয় দিয়েই আমরা পরের রাউন্ডের টিকিট কাটব।
এই ম্যাচের আগে বিশ্ব মঞ্চে দুইবার দেখা হয়েছে আর্জেন্টিনা ও পোল্যান্ডের। একটি করে জয় পেয়েছে দুদলই। তাদের সর্বশেষ দেখা হয়েছে সেই ৪৪ বছর আগে। ১৯৭৮ বিশ্বকাপের ওই ম্যাচে জয়ের স্বাদ পেয়েছিল আর্জেন্টিনা। তার আগে ১৯৭৪ আসরে ৩-২ গোলে জিতেছিল পোল্যান্ড। এখন পর্যন্ত সবমিলিয়ে ১১ বার মুখোমুখি হয়েছে আর্জেন্টিনা ও পোল্যান্ড। এই ম্যাচগুলোর সবই গোল হজম করেছে পোলিশরা।

এর মধ্যে আর্জেন্টিনার ছয় জয়ের বিপরীতে পোলিশদের জয় তিন ম্যাচে। বাকি দুই ম্যাচ ড্র হয়। ১৯৬৬ সালে প্রথম দেখা হয় আর্জেন্টিনা ও পোল্যান্ডের। দুদলের সবশেষ দেখা ২০১১ সালে। আন্তর্জাতিক প্রীতি ওই ম্যাচে ২-১ গোলে হেরেছিল ম্যারাডোনার দেশ। বিশ্বকাপে নিজেদের আগের তিন ম্যাচে জাল অক্ষত রাখতে সক্ষম হয়েছে পোল্যান্ড। এবার মেক্সিকোর বিরুদ্ধে গোলশূন্য ড্রয়ের পর সৌদি আরবকে হারিয়েছে ২-০ গোলে।
এছাড়া দক্ষিণ আমেরিকার দলগুলোর বিরুদ্ধে বিশ্বকাপে প্রথম সাত দেখায় চারবার জিতেছে পোল্যান্ড। হেরেছে তিন ম্যাচ। এই অঞ্চলের দলের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপে সর্বশেষ তিন ম্যাচে কোনো গোল করা ছাড়াই হেরেছে তারা। অন্যদিকে ইউরোপের দলের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপে সবশেষ দুই সাক্ষাতেই হারের তেতো স্বাদ পেয়েছে আর্জেন্টিনা।

২০১৮ বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়ার কাছে ৩-০ ও ফ্রান্সের কাছে হার মানে ৪-৩ গোলে। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে আর্জেন্টিনার লাইনআপ নিয়ে কোচ লিওনেল স্কালোনিকে আরও একবার ভাবতে হচ্ছে। বিশেষ করে রক্ষণভাগ ও মাঝমাঠে তিনি পরিবর্তনের আভাস দিয়েছেন।
অন্যদিকে তিন পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের তৃতীয় স্থানে থাকা সৌদি আরবের ভাগ্য তাদের হাতেই নির্ভর করছে। মেক্সিকোকে হারাতে পারলে ১৯৯৪ সালের পর প্রথমবারের মতো নকআউট পর্বের টিকিট পাবে তারা। মেক্সিকোও নকআউট পর্বে খেলার শেষ সুযোগটি কাজে লাগাতে চায়। ১৯৯৪ সালের পর থেকে এল ট্রাইরা প্রতি বিশ^কাপেই নকআউট পর্বে খেলেছে।

পোল্যান্ড ও আর্জেন্টিনা ম্যাচ যদি ড্র হয় তবে পরের রাউন্ডে যেতে হলে মেক্সিকোকে অন্তত চার গোলের ব্যবধানে সৌদি আরবকে হারাতে হবে। শুধু তাই নয়, জয় পাওয়ার পরও তাদের পরের রাউন্ড নির্ভর করবে পোল্যান্ড ও আর্জেন্টিনার ম্যাচের ফলাফলের ওপর।

সম্পর্কিত বিষয়:

monarchmart
monarchmart