ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১

সিডনিতে গুড মর্নিং বাংলাদেশ বিগেস্ট মর্নিং টি’র আয়োজন

প্রকাশিত: ১৮:৫৮, ২৭ মে ২০২৪

সিডনিতে গুড মর্নিং বাংলাদেশ বিগেস্ট মর্নিং টি’র আয়োজন

আয়োজনে আগত প্রবাসীরা। 

সিডনির মিন্টুর রন মূর কমিউনিটি সেন্টারে স্থানীয় সময় রবিবার (২৬ মে) দ্বিতীয়বারের মত বাংলাদেশ লেডিস ক্লাব অস্ট্রেলিয়ার গুড মর্নিং বাংলাদেশ নামে ‘বিগেস্ট মর্নিং টি’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মূল আয়োজক ফ্যামিলিজ অফ বাংলাদেশি কমিউনিটি সিডনির সাথে মিলিতভাবে এই আয়োজনটি করে। 

সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত ছিল সকালের নাস্তার এই আয়োজন। সকাল থেকে দূর দূরান্ত থেকে মানুষ আসতে থাকে এই আয়োজনে।
 বাংলাদেশ লেডিস ক্লাবের সভাপতি রাহেলা আরেফিন তার স্বাগত বক্তব্যে গুড মর্নিং বাংলাদেশ এর মূল আয়োজক ফ্যামিলিজ অফ বাংলাদেশি কমিউনিটি সিডনির মরহুম ড. আবদুল হকের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা, লায়লা হক ও ডা. আয়াজ চৌধুরীর প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানান। 

সাবরিনা হোসেনের উপস্থাপনায় সংক্ষিপ্ত আলোচনায় অংশ নেন- ক্যাম্পবেল টাউন সিটি কাউন্সিলের ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলর ইব্রাহিম খলিল মাসুদ, রুবাইয়াৎ হক সাথী, কাম্বারল্যান্ড সিটি কাউন্সিলর ড. সাবরিন ফারুকী, জেনি নিউয়েন, কাউন্সিলর মাসুদ চৌধুরী, মো শফিকুল আলম, আশিকুর রহমান অ্যাশ, শামীমা আলমগীর, আয়োজনের আহ্বায়ক রওশন জাহান পারভীন, মিলি ইসলাম প্রমুখ।  বাংলাদেশ লেডিস ক্লাব অস্ট্রেলিয়া, ফ্যামিলিজ অফ বাংলাদেশি কমিউনিটি সিডনি, জন্মভূমি টেলিভিশনের ইভেন্ট ডিরেক্টর কাজী রুবেল আলম এবং গুড মর্নিং বাংলাদেশ সকালের নাস্তার জন্য গরম পরাটা, গরুর মাংস, ভাজি, আলুর দম, সুজির হালুয়া, পুরি, সিংগারা, ছামুচা, লাবরা, বিভিন্ন পদের মিষ্টি ও পিঠা, চটপটি ইত্যাদি তৈরি ও বিক্রি করে।

সকালের নাস্তার এই আয়োজনের বিক্রয়লব্ধ সব অর্থ নিউ সাউথ ওয়েলস এর ক্যান্সার কাউন্সিলের তহবিলে জমা করা হয়। এই অর্থ ক্যান্সার গবেষণা, শিক্ষা, প্রতিরোধ এবং রোগীর সহায়তা পরিষেবা গুলিকে ক্যান্সারে আক্রান্ত সকলকে সহায়তার জন্য ব্যয় করা হবে।  

প্রতিবছর বিশ্বে ক্যান্সার রোগে বহু মানুষ মৃত্যুবরণ করে। অর্থ সংকটে ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীরা ধুঁকে ধুঁকে মারা যায়। সিডনিতে ক্যান্সার রিসোর্স ডেভেলপমেন্টকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করার লক্ষেই গুড মর্নিং বাংলাদেশ নামে ‘বিগেষ্ট মর্নিং টি’ কর্মসূচিটি ২০০১ সালে শুরু করেছিলেন মরহুম ড. আব্দুল হক। 

ফ্যামিলিজ অফ বাংলাদেশি কমিউনিটি সিডনি এর ব্যানারে ও বাংলাদেশ লেডিস ক্লাব অস্ট্রেলিয়ার সহযোগিতায় পরিচালিত হয় এই কার্যক্রম। এতে বাংলাদেশি সম্প্রদায়ের অংশগ্রহণ ছাড়াও অনেক অস্ট্রেলিয়ানরাও যোগ দেন। পুরো ইভেন্টটি সুন্দরভাবে পরিচালনা করতে বাংলাদেশ লেডিস ক্লাব অস্ট্রেলিয়াকে সহায়তা করে বাংলা হেয়ার, জন্মভূমি টেলিভিশন ও সিডনি প্রতিদিন।

এম হাসান

×