ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

নিউইয়র্কে বাংলাদেশী আমেরিকান পুলিশ এসোসিয়েশনের অ্যাওয়ার্ড ডিনার অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: ১৫:৫০, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪; আপডেট: ১৫:৫৩, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

নিউইয়র্কে বাংলাদেশী আমেরিকান পুলিশ এসোসিয়েশনের অ্যাওয়ার্ড ডিনার অনুষ্ঠিত

‘বাপা’র সপ্তম বার্ষিক অ্যাওয়ার্ড ডিনার’অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নিউইয়র্ক পুলিশে কর্মরত বাংলাদেশী-আমেরিকানদের সংগঠন বাংলাদেশী আমেরিকান পুলিশ এসোসিয়েশন ‘বাপা’র সপ্তম বার্ষিক অ্যাওয়ার্ড ডিনার’অনুষ্ঠিত হয়েছে।  গত ১৩ অক্টোবর সন্ধ্যা কুইন্সের বিলাসবহুল একটি পার্টি হলে অনুষ্ঠিত হয়। 

জমকালো আয়োজনে যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীতের পর বাংলাদেশী আমেরিকান পুলিশ এসোসিয়েশেন এই বর্ণাঢ্য ডিনারের সংক্ষিপ্ত আলোচনা ও অ্যাওয়ার্ড বিতরণ পর্ব শুরু হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নিউইয়র্ক সিটি মেয়র এরিক এডামস।পুলিশ বাহিনীতে কর্মরত বাংলাদেশী অফিসারদের প্রশংসা করে মেয়র বলেন, আপনারা নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন বলেই এই সিটির জনজীবনকে নিরাপদ রাখা সম্ভব হচ্ছে। আইন শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। বর্ণিল আয়োজনে সংগঠনের সভাপতি ক্যাপ্টেন করম চৌধুরীর স্বাগত বক্তব্য রাখেন।বাপার বোর্ড অব ট্রাস্টির সকলকে মঞ্চে ডেকে পরিচিতি করানোর পর বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য পুলিশ অফিসারদের পুরস্কৃত করা হয়।নান্দনিক এই অনুষ্ঠানে লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন পুলিশ কমিশনার এডওয়ার্ড এ. ক্যাবান। এছাড়া ম্যান অফ দ্য ইয়ার অ্যাসিস্ট্যান্ট চিফ বেঞ্জামিন গারলি, উইমেন অফ দ্য ইয়ার অ্যাসিস্ট্যান্ট চিফ ক্রিস্টিন বাস্টডেনরেক, কমান্ডিং অফিসার অফ দ্য ইয়ার ইন্সপেক্টর জেনকিন্স ১১৩ প্রিসটিঙ্কট, বর্ষসেরা পুলিশ অফিসার হয়েছেন তৌফিউ বাকথ, সিভিলিয়ান অব দ্য ইয়ার নির্বাচিত হয়েছেন টিএম আনোয়ারুল কাদির।অ্যাপ্রিসিয়েশন অ্যাওয়াার্ড পেয়েছেন ডেপুটি কমিশনার লিসা হোয়াট, ও নিউ ইয়র্ক সিটির মেয়রের চিফ এডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার মীর বাশার, এটর্নি মঈন চৌধুরী, “ভালো” সংগঠনটি পেয়েছেন কমিউনিটি সার্ভিস অ্যাওয়ার্ড ।এই অনুষ্ঠানে অতিথি হিসাবে ছিলেন ফার্স্ট ডেপুটি কমিশনার তানিযা কিনসেলা, এসেম্বলী ওমেন জেনিফার রাজকুমার, মেয়র অ্যাডামসের উপদেষ্টা ইনগ্রিড লুইস।এছাড়া উপস্থিত ছিলেন বাপা’র সাবেক প্রেসিডেন্ট শামসুল হক সুমন সাইদসহ অন্যরা। বাপা’র সেক্রেটারি ক্যাপ্টেন এ কে এম প্রিন্স আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানটি শুরু হয়।পরে তিনি স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে কমিউনিটির কর্মকর্তাদের পরিচয় করিয়ে দেন।

বাপা’র ট্রাস্টি মাসুদ রহমানের পরিচালনায় বাংলাদেশের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী টিনা ও কমিউনিটির জনপ্রিয় দুই কণ্ঠশিল্পী রাজিব পরিবেশন করেন পছন্দের বাংলা গান। শিল্পীদের মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা দারুণভাবে উপভোগ করেন বিপুল সংখ্যক সংগঠনের সদস্য এবং আমন্ত্রিত অতিথিরা।

আমন্ত্রিত অতিথিদের স্বাগত জানান ২য় ভাইস প্রেসিডেন্ট ট্রাফিক সুপারভাইজার আলী চৌধুরী, ইভেন্ট কো-অর্ডিনেটর অফিসার সর্দার মামুন, ট্রেজারার অফিসার রাসেকুর মালিক, কো ট্রেজারার সার্জেন্ট মেহেদী মামুন,মিডিয়া লিঁয়াজো অফিসার জামিল সরোয়ার, কমিউনিটি লিঁয়াজো অফিসার মাহবুব জুয়েল, সার্জেন্ট অফ আর্মস অফিসার হাসান আহমেদ, বাপা’র ট্রাস্টি অফিসার জসীম মিয়া, সার্জেন্ট মুরাদ আহমেদ, অফিসার সব্বির আহমেদ ,অফিসার রাজীব ঘোষ, ট্রাফিক সুপারভাইজার অনিক হোসাইন, অফিসার রিপন ইসলাম, অক্সিলারি লেফটেন্যান্ট সাইদ আলী। বর্নাঢ্য এই অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্য দেন বাপার ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সার্জেন্ট এরশাদ সিদ্দিকী। সব মিলিয়ে পুরো আয়োজন বাপার সদস্য, কর্মকর্তা ও অতিথিদের হৃদয় ছুঁয়েছে।

তাসমিম

×